• ক্রিকেট

পাতানো ছিল ২০১১ বিশ্বকাপের বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড ম্যাচ?

 

২০১১ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের সেই অবিশ্বাস্য জয়ের কথা মনে আসে নিশ্চয়ই? নবম উইকেটে মাহমুদউল্লাহ ও শফিউল ইসলামের দুর্দান্ত এক জুটিতে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ইংলিশদের বিপক্ষে দুই উইকেটের জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। আল জাজিরার এক তথ্যচিত্রে জানানো হয়েছে, ওই ম্যাচে নাকি ফিক্সিং হয়েছিল!

কয়েক মাস আগে আল জাজিরার এক গোপন ভিডিও ফুটেজে বলা হয়েছিল, ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের বেশ কয়েকটি ম্যাচে জুয়াড়িদের প্রভাব ছিল। কাল নতুন এক তথ্যচিত্রে জানানো হয়, জুয়াড়িরা ২০১১-১২ মৌসুমে ২৬ টি ম্যাচ পাতানোর কথা বলেছিল। যার মাঝে মিলে গেছে ২৫ টি ম্যাচের ফলাফলই!

স্পট ফিক্সিংয়ের ব্যাপারে আন্তর্জাতিক ১৫টি ম্যাচকে ঘিরে রয়েছে বেশি সন্দেহ। এই ১৫ ম্যাচের মাঝে ইংল্যান্ড জড়িয়ে আছে সাতটিতে, অস্ট্রেলিয়ার ক্ষেত্রে সংখ্যাটা পাঁচে, আছে বাংলাদেশেরও নাম।ফিক্সিংয়ের অভিযোগ ওঠা ম্যাচের মাঝে আছে ২০১১ সালে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড ম্যাচ, সেই বছরের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড-বাংলাদেশ ম্যাচ। আছে ২০১১ সালের ভারত-ইংল্যান্ড টেস্টও।

আইসিসি জানিয়েছেন, আগের মতো এবারও তারা আল জাজিরার ভিডিও নিয়ে তদন্ত করবে, ‘আইসিসি সবসময়ই ফিক্সিংয়ের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। এর আগেও আল জাজিরার পক্ষ থেকে কিছু ফিক্সিংয়ের অভিযোগ এসেছিল। সেবারের মতো আমরা নতুন ভিডিও নিয়ে তদন্ত করব। আমরা তাদের কাছে বিস্তারিতও জানতে চেয়েছি।’ 

এদিকে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড বলছে, আল জাজিরার তোলা অভিযোগ পুরোপুরি সত্যি নয়, ‘আল জাজিরা অসম্পূর্ণ তথ্য দিয়েছে। তাদের ওই সামান্য তথ্য দিয়ে কিছুই প্রমাণ হয় না! তবুও আমরা ফিক্সিং নিয়ে নিজেদের মাঝে তদন্ত চালাবো। আইসিসিও আশা করি এমনটাই করবে।’ ইসিবির মতো অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ডও এই ব্যাপারে তদন্তের কথা জানিয়েছে।