• ইংল্যান্ড-পাকিস্তান সিরিজ
  • " />

     

    • ইংল্যান্ড-পাকিস্তান সিরিজ

    'এক নম্বর' পাকিস্তানের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের নায়ক আর্চার-মরগান

    একমাত্র টি-টোয়েন্টি, কার্ডিফ
    পাকিস্তান ১৭৩/৬, ২০ ওভার 
    ইংল্যান্ড ১৭৫/৩, ১৯.৪ ওভার 


    অভিষিক্ত জফরা আর্চারের দারুণ বোলিংয়ের পর অধিনায়ক অইন মরগানের ফিফটিতে ৪ বল বাকি থাকতেই একমাত্র টি-টোয়েন্টি জিতেছে ইংল্যান্ড। বাবর আজম ও হারিস সোহেলের দুই ফিফটিতে ১৭৩ রান তোলা  টি-টোয়েন্টির এক নম্বর দল পাকিস্তান পার হতে পারেনি কার্ডিফে ইংলিশ-বাধা। 

    রানতাড়ায় জেমস ভিনসের সঙ্গে শুরু করেছিলেন অভিষেক হওয়া বেন ডাকেট। অ্যালেক্স হেলসকে বাদ দেওয়ার পর ইংল্যান্ড এখনও পরীক্ষা করছে ওপেনিংয়ে তার বদলি বেছে নিতে, ডাকেট অবশ্য সুযোগ পেয়েছেন ডেভিড মালানের চোটের কারণে। তবে তিনি টেকেননি বেশিক্ষণ, শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে ক্যাচে পরিণত হওয়ার আগে করেছেন ৯ রান। 

    জো রুটের সঙ্গে এরপর ৪৩ রান তুলেছেন ভিনস, নিজে ২৭ বলে ৩৬ রান করে হয়েছেন কট-বিহাইন্ড। রিভিউ নিয়েছিলেন, তবে আল্ট্রা-এজ নিশ্চিত করতে পারেনি স্পাইকটা ব্যাট মাটিতে লাগার ফলে নাকি বল ব্যাটের লাগার কারণে এসেছে। রুটের সঙ্গে এরপর যোগ দিয়েছেন মরগান। নিজের ৪২ বলে ৪৭ রানের ইনিংসকে অধিনায়ককে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন রুট, হাসান আলিকে আপার কাট করতে গিয়ে আউট হওয়ার আগে মরগানের সঙ্গে তার জুটি ৬৫ রানের। 

     

     

    রুট আউট হওয়ার সময় ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল ২৭ বলে ৪৩ রানের, জো ডেনলিকে নিয়ে সেটা পেরিয়ে গেছেন মরগান। ডেনলি অপরাজিত ছিলেন ১২ বলে ২০ রানের কার্যকরী ক্যামিও খেলে, আর ছয় মেরে ম্যাচ শেষ করা মরগান করেছেন ২৯ বলে ৫৭, ৫ চার ও ৩ ছয়ে। 

    এর আগে ব্যাটিংয়ে নেমে পাকিস্তান দ্বিতীয় ওভারেই হারিয়েছে ফাখার জামানকে, টম কারানের বলে এক্সট্রা কাভারে দারুণ ক্যাচ নিয়েছেন মরগান। এরপর আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে নিজের প্রথম উইকেট নিয়েছেন আর্চার। ৮৮ কিলোমিটার গতির বাউন্সার ঠিকঠাক সামাল দিতে পারেননি ইমাম-উল-হক, ৩১ রানে পাকিস্তান হারিয়েছে দ্বিতীয় উইকেট। 

     

     

    বাবর ও হারিসের দীর্ঘ জুটি এরপর। ৩১ বলে ফিফটি করেছেন বাবর, ৩৪ বলে হারিস। দুজনের জুটি শুধু ভাঙেননি, দুই বলের ব্যবধানে দুজনকেই ফেরাতে হাত ছিল আর্চারের। প্রথমে স্লোয়ারে তুলে মারতে গিয়ে ডিপ-মিডউইকেটে ক্যাচ দিয়েছেন হারিস, এরপর সিঙ্গেল নিতে গিয়ে হারিসের সঙ্গে ভুল বুঝাবুঝি হয়েছিল বাবরের। নিজের বলে ফিল্ডিং করে সরাসরি থ্রো-তে রান-আউটটা করেছেন আর্চার। এরপর আসিফও হয়েছেন রান-আউট, ফিরতি ক্যাচ মিস করে এবার সরাসরি স্টাম্প ভেঙেছেন ক্রিস জর্ডান। 

    ফাহিম আশরাফ ও ইমাদ ওয়াসিমের দুই ক্যামিওতে পাকিস্তান গিয়েছিল ১৭৩ পর্যন্ত। ১৩ বলে ১৮ রান করে অপরাজিত ছিলেন ইমাদ, জর্ডানের বলে ক্যাচ দেওয়ার আগে ফাহিম করেছেন ১০ বলে ১৭।