• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    • ক্রিকেট, অন্যান্য

    বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর নিয়ে আশাবাদী পিসিবি, সতর্ক বিসিবি

    সেই  ২০১৫ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলেছিল। সেটি ছিল দেশের মাটিতে, এরপর ২০১৭ সালে আবার বাংলাদেশে আসার কথা ছিল পাকিস্তানের। কিন্তু পিসিবি সেই সফর বাতিল করেছে তখন। এর মধ্যে আর্থিকভাবে লাভজনক নয় বলে আমিরাতে বাংলাদেশকে আমন্ত্রণ জানায়নি পিসিবি। নতুন এফটিপিতে সামনের জানুয়ারিতে পাকিস্তানের আবার আতিথ্য জানানোর কথা বাংলাদেশকে। পিসিবি বলেছে, সেই সফরটা পাকিস্তানে করার ব্যাপারে তারা আশাবাদী। তবে বিসিবি এ নিয়ে এখনই কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

    পাকিস্তানে বাংলাদেশকে নেওয়ার জন্য অনেক দিন ধরেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পিসিবি। তবে এখন পর্যন্ত সেই উদ্যোগ সফল হয়নি। শ্রীলঙ্কার বাসে গুলি ছোঁড়ার পর গত দশ বছরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট একরকম নির্বাসিতই পাকিস্তানে। পিএসএলের ম্যাচ আয়োজন করে পিসিবি অবশ্য আবার ক্রিকেট ফেরানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তানে। সেই চেষ্টার অংশ হিসেবে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড দলের নিরাপত্তা প্রধানকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তবে তার আগে শ্রীলংকা ও বাংলাদেশকে আনার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পিসিবি।

    নতুন সূচিতে সামনের বছরের জানুয়ারিতে পাকিস্তানের সঙ্গে অ্যাওয়ে সিরিজ খেলার কথা বাংলাদেশের। ইএসপিএনক্রিকইনফোকে পিসিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওয়াসিম খান বলেছেন, এই সিরিজটা পাকিস্তানে আয়োজন করার ব্যাপারে তারা আশাবাদী, ‘ওদের (বাংলাদেশের) নিরাপত্তা দলের প্রধান এবারের পিএসএলের সময় এসেছিল। আমাদের মধ্যে খুবই ইতিবাচক কথা হয়েছে। এমনকি তারা বলেছে এখানে খুবই নিরাপদ, আবহ বা সবকিছুই ভালো। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য আমাদের একটা দ্বিপাক্ষিক চুক্তি আছে, এখন পর্যন্ত সেটা হচ্ছে বলেই আমরা জানি। ওদের সঙ্গে কথা বলে আমরা ব্যাপারটা চূড়ান্ত করার চেষ্টা করব।’

     

     

    এ ব্যাপারে প্যাভিলিয়নের পক্ষ থেকে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। তিনি এখনই এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। জানুয়ারিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের ব্যাপারটা বিসিবির মাথায় আছে বলে নিশ্চিত করেছেন। তবে কোনোকিছু চূড়ান্ত হওয়ার আগে আরও কিছুদিন সময় দরকার বলে জানিয়েছেন প্যাভিলিয়নকে।