• ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯
  • " />

     

    • ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯

    ধোনিকে সেনাবাহিনীর প্রতীকের গ্লাভস পরতে দেবে আইসিসি?

    দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ভারতের প্রথম ম্যাচে তাঁর কিপিং গ্লাভসে ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রতীক নিয়ে কম আলোচনা হয়নি। বিতর্কের মুখে গতকাল মহেন্দ্র সিং ধোনির গ্লাভস থেকে সেই প্রতীক সরিয়ে নিতে বলেছিল আইসিসি। তবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড আইসিসির কাছে বিশেষ অনুরোধ করেছে, তাঁরা যেন ধোনিকে বিশ্বকাপে এই গ্লাভস পরে খেলারই অনুমতি দেয়।

    ধোনির গ্লাভসে শোভা পাচ্ছিল ভারতীয় আর্মির প্যারাসুট রেজিমেন্টের সম্মাননাসূচক লেফটেনেন্ট কর্নেলের প্রতীক। প্রতীকটি ছিল কমান্ডো ছুরি, তার দুই পাশে দুটি পাখা। এই প্রতীকের নাম দেওয়া হয়েছে ‘বলিদান’।  

    বিশ্বকাপে ধোনির গ্লাভসে এমন প্রতীক পছন্দ হয়নি আইসিসির। এজন্য আইসিসির কমিউনিকেশন বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার ক্লেয়ার ফারলং ভারতের টিম ম্যানেজমেন্ট ও বিসিসিআইকে বলেছিলেন, ধোনি যেন এমন গ্লাভস সামনের ম্যাচ থেকে না পরেন। কারণ গ্লাভসে এরকম প্রতীক রাখা আইসিসির নিয়মবহির্ভূত। তবে বিসিসিআই চাইছে, আইসিসি যেন ধোনিকে ওই প্রতীক সম্বলিত গ্লাভস পরার অনুমতি দেয়।

     

     

    বিসিসিআইয়ের পরিচালনা কমিটির প্রধান বিনোদ রায় জানিয়েছেন তাদের এই আনুষ্ঠানিক অনুরোধের কথা, ‘আইসিসির কাছে আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি পাঠিয়েছি এই ব্যাপারে। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী কোন জাতীয়তাবাদী, ধর্মীয়, বাণিজ্যিক কিংবা সামরিক প্রতীক পরা যাবে না। ধোনির গ্লাভসের প্রতিকে ধর্মীয় কিংবা জাতীয়তাবাদের কিছু নেই। আর এটা সরাসরি প্যারামিলিটারি রেজিমেন্টের ছুরিও না। তাই ধোনি আইসিসির কোন নিয়ম ভঙ্গ করেনি। আর আইসিসি ধোনিকে অনুরোধ করেছে প্রতীকটা ব্যবহার না করার জন্য, নির্দেশ দেয়নি। বিসিসিআইয়ের প্রধান নির্বাহী রাহুল জোহরি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের আগেই আইসিসির কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করবেন।’

    শেষ পর্যন্ত আইসিসি বিসিসিআইয়ের অনুরোধ রাখে কিনা, সেটা জানা যাবে ৯ জুন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচেই।