• শাহরিয়ার নাফীসের বিশ্লেষণ
  • " />

     

    • শাহরিয়ার নাফীসের বিশ্লেষণ

    শ্রীলংকার বিপক্ষে রুবেল ও লিটনের সুযোগ পাওয়া উচিত

    শ্রীলংকার বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই

    ইংল্যান্ডের কাছে হারের পর পয়েন্ট টেবিলের যে অবস্থা, তাতে বাংলাদেশের জন্য প্রতিটা ম্যাচই এখন গুরুত্বপূর্ণ। শেষ চারে যেতে হলে অন্তত আরও চারটা ম্যাচ জিততেই হবে। সেক্ষেত্রে শ্রীলংকার বিপক্ষে ম্যাচটার গুরুত্ব আরও বেড়ে যাচ্ছে। বিশ্বকাপে আসার আগে যে কয়েকটা ম্যাচে আমরা জয় পেতেই হবে হিসেব করে এসেছিলাম তার মধ্যে শ্রীলংকা ও আফগানিস্তানের ম্যাচটা আছে। সেই হিসেবে এই ম্যাচটা যদি আমরা জিততে না পারি, তাহলে শীর্ষ চারে ওঠার সম্ভাবনা কমে যাবে অনেকটাই।

    শ্রীলংকার এই দলটা অনেক দিন ধরেই একটু অফ ফর্মের ভেতর দিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বকাপের আগে তারা সেভাবে ভালো করতে পারেনি। শক্তির দিক দিয়েও তারা বাংলাদেশের চেয়ে পিছিয়ে থাকবে। ওদের সঙ্গে জয়ের কোনো বিকল্প নেই বলেই আমি মনে করি।

     

    বৃষ্টিতে ওভার কমলে বাংলাদেশেরই সমস্যা

    ব্রিস্টল ইংল্যান্ডের গতানুগতিক ভেন্যুগুলোর মতোই। সামনে পিছনে কিছুটা ছোট, দুই পাশে বড়। তবে বৃষ্টি এখানে বড় একটা প্রভাবক হতে পারে। আবহাওয়ার পূর্বাভাস বোধহয় কালকেও বৃষ্টির আভাস দিচ্ছে। আমি মনে করি, পুরো ৫০ ওভার খেলা হলেই বাংলাদেশের জন্য ভালো। ওভার কমে এলে সেটা বাংলাদেশের পক্ষে নাও যেতে পারে। তবে ৫০ ওভার হোক বা না হোক, ম্যাচটা আগে হওয়া জরুরি। এই ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে গেলে এর চেয়ে বেশি দুর্ভাগ্যজনক আর কিছু হতে পারে না।

    তামিমকে নিয়ে চিন্তা নেই

    তামিমের ব্যাটিং আমি যতদূর দেখেছি, আমার মনে হয় না বড় কোনো সমস্যা আছে। ও শুরুটা ভালো করেছে, যতক্ষণ ব্যাট করছিল আমার কাছে সেটি ঠিকঠাকই মনে হয়েছে। একটা ভালো ইনিংস পেলেই সে এরপর টানা রান করা শুরু করবে। ওকে নিয়ে চিন্তার কিছু নেই বলেই মনে করি। তবে মাহমুদউল্লাহ যে ছন্দে আছে, সেটা আমি বলতে পারছি না। ওর ব্যাটিং নিয়ে আরও কাজ করার দরকার আছে বলে মনে হয়।

    লিটন-রুবেলের সুযোগ পাওয়া উচিত

    বাংলাদেশের এই মুহূর্তে দলের অবস্থা যদি দেখেন, বোলিংটা একদমই ভালো হচ্ছে না। মিরাজ-সাকিব তাও একটু চেষ্টা করছে, কিন্তু পেসাররা একদমই সুবিধা করতে পারছে না। এই পরিস্থিতিতে রুবেলের মতো একজন অভিজ্ঞ পেসার, যে আগে বিশ্বকাপ খেলেছে দলে একটা সুযোগ সে পেতেই পারে। ওকে টুর্নামেন্টে খেলানোর এখনই সবচেয়ে ভালো উপলক্ষ বলে আমি মনে করি।

    এক্ষেত্রে আমার মনে হয় দলে দুইটি পরিবর্তনের সময় এসেছে। লিটন বিশ্বকাপের আগে যে দুইটি ম্যাচে সুযোগ পেয়েছিল, দুইটিতেই ভালো খেলেছে। তবে সাকিব যেহেতু তিনে রান পাচ্ছে, টপ অর্ডারে ওর সুযোগ পাওয়া কঠিন। সেক্ষেত্রে আমার মনে হয় ওকে পাঁচ বা ছয়েই ব্যাট করতে হবে। সেক্ষেত্রে একাদশ হতে পারে দুই রকম। লিটন ও রুবেলের জন্য জায়গা করে দিতে হতে পারে সাইফ উদ্দিন আর মিঠুনকে। শ্রীলংকার টপ অর্ডারে যেহেতু বাঁহাতি ব্যাটসম্যান আছে মিরাজকেও দলে রাখা দরকার। তবে দল যদি মনে করে মোসাদ্দেক সে কাজটা চালিয়ে নিতে পারবে  তাহলে মিরাজের জায়গায় রুবেল হয়তো আসতে পারে।

    আমার একাদশ:

    তামিম, সৌম্য, সাকিব, মুশফিক, লিটন, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক, মিরাজ, মাশরাফি, রুবেল, মোস্তাফিজ

    হুমকি হতে পারেন যে

    ওদের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে যদি একজনকে বেছে নিতে হয় , তাহলে মনে হয় কুশল পেরেরাকেই নেব। ভালো ফর্মে আছে সে, যার আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে যে কোনো সময় ম্যাচের গতিপথ বদলে দিতে পারে। ওকে আগে তুলে নিতে হতে পারে আমাদের।

     

    যে দ্বৈরথে চোখ

    সাকিব-মালিঙ্গা

    নুয়ান প্রদীপ না থাকায় মালিঙ্গাই ওদের বড় হুমকি। সাকিব যেরকম ফর্মে আছে, তাকে থামানোর জন্য মালিঙ্গার ওপরেই নির্ভর করতে পারে শ্রীলংকা

     

     

    পরিসংখ্যান- এখন পর্যন্ত ১০টি ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছেন সাকিব-মালিঙ্গা। সব মিলে সাকিবকে ৩৩টি বল করেছেন মালিঙ্গা, ৫৪.৫৫ স্ট্রাইক রেটে ১৮ রান নিয়েছেন সাকিব। আর একবার হয়েছেন আউট।

     

    সাকিব-কুশল পেরেরা

    পেরেরা-সাকিবের দ্বৈরথটা হতে পারে দেখার মতো।

    পরিসংখ্যান- ওয়ানডে ক্যারিয়ারে কখনো মুখোমুখি হননি সাকিব--পেরেরা  

     


    শাহরিয়ার নাফীস:  বাংলাদেশের হয়ে ২৪টি টেস্ট ও ৭৫টি ওয়ানডে খেলেছেন। ছিলেন বাংলাদেশের প্রথম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির অধিনায়ক।