• বাংলাদেশের শ্রীলংকা সফর
  • " />

     

    • বাংলাদেশের শ্রীলংকা সফর

    কোচের দায়িত্বের ব্যাপারে অফিসিয়াল আলোচনা করেনি বোর্ড : মাহমুদ

    শ্রীলঙ্কা সফরে বাংলাদেশের হেড কোচের দায়িত্ব পালন করার ব্যাপারে এখনও বোর্ডের পক্ষ থেকে অফিসিয়ালি আলোচনা করা হয়নি বলে জানিয়েছেন খালেদ মাহমুদ। এর আগে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান বলেছিলেন, অন্তর্বর্তীকালিন দায়িত্ব পাওয়ার খুব কাছাকাছি আছেন মাহমুদ. তবে মাহমুদ বলছেন, আকরাম শুধু তাকে দলের দেখাশোনা করতে বলেছেন ‘আপাতত’। 

    বিশ্বকাপের পরপরই হেড কোচ স্টিভ রোডসের সঙ্গে পাট চুকিয়ে ফেলেছে বিসিবি। তবে শ্রীলঙ্কা সফরের দল ঘোষণা হয়ে গেলেও নতুন কোচ না আসা পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালিন দায়িত্ব কে পালন করবেন, সে ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি এখনও বিসিবি। জানেন না মাহমুদও, “আমার সঙ্গে এখনো কোনো কথা হয়নি এই ব্যাপারে। বোর্ড আমার সঙ্গে কোনো আলোচনা করেনি। আকরাম ভাই আমাকে বলেছেন, ‘তুই আপাতত দেখাশোনা কর। যেহেতু এখন আমাদের কোচ নেই।’ 

    বিসিবি নতুন কোচ এরই মাঝে পেয়ে যাবে কিনা, সে সম্ভাবনাও নাকচ করেননি তিনি, “বোর্ড এখন পর্যন্ত আমার সঙ্গে অফিসিয়ালি কোনো যোগাযোগ করেনি। সবচেয়ে বড় কথা, আমি এতো দিন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে আছি। দেশের স্বার্থে আমি সবসময় কাজ করে যেতে চাই। দেশের যদি আমাকে প্রয়োজন হয় আমি প্রস্তুত। তবে এখনো আমার সঙ্গে সেভাবে যোগাযোগ হয়নি। এর মধ্যে আমরা নতুন কোচ পেয়েও যেতে পারি। এমন যদি তাহলে তো ভালোই।”

    আপাতত তাই আকরামের কথাই মেনে চলছেন তিনি, “আপাতত এই দুই তিন দিন ট্রেনিং সেশনে অবশ্যই কাজ করব। এরপর বোঝা যাবে কী হবে না হবে। আপাতত যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সেটাই করি। যেহেতু আমি দলের সঙ্গে থাকি, কোচ হিসেবে না থাকলেও ম্যানেজার হিসেবে থাকতাম। ওইভাবেই আসলে, যেহেতু আকরাম ভাই বলেছেন সেভাবেই কাজ করছি।”

    এর আগেও চন্ডিকা হাথুরুসিংহে চলে যাওয়ার পর অন্তর্বর্তীকালিন দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। মোটামুটি বাংলাদেশের প্রায় স্থায়ী ম্যানেজারও তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে প্রিমিয়ার লিগে আবাহনী লিমিটেড, বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটসের কোচও তিনি। তবে কোচের দীর্ঘমেয়াদে কাজ করাই উচিৎ বলে মনে করেন তিনি, “  কোচের জন্য সকলের তো দীর্ঘ দিনের পরিকল্পনা থাকে। আপনি দেখেন স্টিভ রোডস যখন বাংলাদেশে এসেছিল তার ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ ভালো যায়নি। এরপর বাংলাদেশ তার অধীনে বেশ কয়েকটি ম্যাচ জিতেছে। সময়ের প্রয়োজন হয় পরিকল্পনা করার জন্য। যে কোনো কোচেরই এটা থাকে। যদিও আমি বাংলাদেশ দলের পরিকল্পনা সম্পর্কে জানি। কারণ দলের সঙ্গে আমি অনেক দিন ধরেই আছি। তারপরও দীর্ঘ সময়ের জন্য সুযোগ পেলে যে কোনো মানুষের জন্য কাজ করতে অবশ্যই সুবিধা হয়।”