• বাংলাদেশের শ্রীলংকা সফর
  • " />

     

    • বাংলাদেশের শ্রীলংকা সফর

    স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সবার আগে ফাইনালে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯

    বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯: ৪৭.১ ওভারে ২২৪ অলআউট

    ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব ১৯: ৩৯ ওভারে ১৫২ অলআউট

    ফল: বাংলাদেশ ৭২ রানে জয়ী


    ইংল্যান্ডে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯ দলের জয়যাত্রা চলছেই। স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে আরও একটি ম্যাচে হারের স্বাদ দিয়ে পৌঁছে গেছে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে। তানজিদ হাসানের সেঞ্চুরির পর বোলারদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্স জয় নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশি যুবাদের।

     

    বিলেরিকেতে টসে হেরে শুরুতে ব্যাট করতে নেমেছিল বাংলাদেশ দল। দলের ১৮ রানেই ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমনকে হারিয়ে ফেলে । এরপর মাহমুদুল হাসান জয় ও তানজিদ হাসান দ্বিতীয় উইকেটে যোগ করেন ১০৮ রান। ৬৮ বলে ৪১ রান করে কিম্বারের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন জয়। তবে তৌহিদ হৃদয়কে নিয়ে তানজিদ এরপর ম্যাচের লাগামটা নিজেদের কাছে রেখেছেন, দুজন তৃতীয় উইকেটে যোগ করেছেন ৭৬ রান। ৩৯.৩ ওভার শেষে ২ উইকেট হারিয়ে ২০৪ তখন বাংলাদেশের, তার আগেই সেঞ্চুরি পেয়ে গেছেন তানজিদ। এই সিরিজে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান ও প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে সেঞ্চুরি পেলেন তানজিদ। শেষ পর্যন্ত ১১৩ বলে ১১৭ রান করে আউট হয়েছে। ১৬টি চারের সঙ্গে মেরেছেন দুইটি ছয়।

    বাংলাদেশের জন্য শক্ত ভিত গড়ে দিয়ে ফিরে গেছেন তানজিদ। কিন্তু এর পরেই হুড়মুড় করে ভেঙে পড়েছে যুবাদের ইনিংস। তানজিদের পরেই ৩১ রান করে আউট হয়ে গেছেন এই সিরিজে বাংলাদেশের সফলতম ব্যাটসম্যান তৌহিদ হৃদয়। ৩ উইকেটে ২০৪ রান থেকে খানিক পর সেটা হয়ে গেছে ৪ উইকেটে ২০৫, এরপর ৫ উইকেটে ২০৬ থেকে ৬ উইকেটে ২০৯। শাহাদাত, শামীম, মৃত্যুঞ্জয় সবাই ফিরে গেছেন দুই অংক ছোঁয়ার আগেই। শেষ পর্যন্ত ৪৭.১ ওভারেই ২২৪ রান করে অলআউট হয়ে গেছে বাংলাদেশ, মাত্র ২০ রানের মধ্যে হারিয়েছে শেষ ৮ উইকেট। প্রথম চার ব্যাটসম্যানের পর দুই অংক ছুঁতে পেরেছেন কেবল অধিনায়ক আকবর আলী, তাও তার রান সর্বোচ্চ ১১।

    কিন্তু এই রানকেই যথেষ্ট বানিয়ে ফেলেছে বাংলাদেশের বোলাররা। ৬ রানে বেন চার্লসওর্থকে ফিরিয়ে প্রথম উইকেট এনে দিয়েছেন পেসার তানজিম হাসান সাকিব। এরপর ড্যান মুসলিকে ফিরিয়ে সাকিব পেয়েছেন নিজের দ্বিতীয় উইকেট। পেসার শাহীন আলমও এরপর নেমেছেন জোড়া শিকারে, পর পর আউট করেছেন টম ক্লার্ক ও লুইস গর্লদওয়ার্দিকে। জর্জ হিলকে ফিরিয়ে ৫১ রানে ৫ উইকেট করে ফেলেছেন মৃত্যুঞ্জয়। জ্যাক হেনিন্স চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু ৪০ রানে তাকে আউট করে স্বাগতিকদের বড় ধাক্কা দিয়েছেন রাকিবুল হাসান। সেই ধাক্কাটা আর সামলে উঠতে পারেনি ইংল্যান্ড। সাকিব নিয়েছেন এরপর আরও একটি উইকেট, রাকিবুল আরও দুইটি। তিনটি করে উইকেট পেয়েছেন দুজনই, আর শাহীন ও মৃত্যুঞ্জয় পেয়েছেন দুইটি করে উইকেট। ৩৯ ওভারেই ১৫২ রানে অলআউট হয়ে গেছে ইংল্যান্ড।

    ৬ ম্যাচে চারটি জয়সহ ৯ পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশ এখন সবার ওপরে। এক ম্যাচ কম খেলে ভারতের পয়েন্ট ৫, ইংল্যান্ডের ২। বাংলাদেশের ভারত ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আরও দুইটি ম্যাচ বাকি, তবে ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে গেছে এর মধ্যেই।