• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    • ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ

    কিক অফের আগে : 'দ্বিতীয় সেরা' টটেনহামের বিপক্ষে সেরা হতে পারবে সিটি?

    কবে, কখন
    ম্যানচেস্টার সিটি-টটেনহাম হটস্পার
    ইতিহাদ স্টেডিয়াম, রাত ১০.৩০ মিনিট


    গেল মৌসুমে এই দুইদলের নাটকীয়তায় ঠাসা ম্যাচের কথা নিশ্চয়ই ভুলে যাননি এরই মধ্যে? চ্যাম্পিয়নস লিগে ইতিহাদের সেই রাতের পর অবশ্য লিগে দেখা হয়েছিল দুইদলের। সে ম্যাচ জিতে ম্যানচেস্টার সিটি এগিয়ে গিয়েছিল শিরোপা ধরে রাখার কাছাকাছি। এবার লিগের দ্বিতীয় সপ্তাহেই আবার মুখোমুখি ম্যান সিটি ও টটেনহাম।

    এপ্রিলে টটেনহামের কাছে প্রথম লেগে হারের পর থেকে এখন পর্যন্ত আর হারেনি ম্যানচেস্টার সিটি। ওয়েস্টহামকে উড়িয়ে দিয়ে মৌসুম শুরু করা পেপ গার্দিওলার দল পুরনো ছন্দেই আছে। সিটিকে হারানো কঠিন হবে টটেনহামের জন্য, তবে জিততে হলে সিটিকেও খেলতে হবে নির্ভুল।

    পেপ গার্দিওলা টটেহামকে বলছেন ইউরোপের দ্বিতীয় সেরা ক্লাব, "আমি ইংল্যান্ডে আসার পর থেকে দেখেছি তারা শিরোপার বড় দাবিদার। প্রথম মৌসুমে তারা দ্বিতীয় হলো, ওরা সবসময়ই থাকে। তারা ইউরোপের দ্বিতীয় সেরা দল।"

    প্রিমিয়ার লিগের অন্যতম সেরা দুই ম্যানেজার। একজন খেলেছেন বার্সেলোনায়, আরেকজন এস্পানিওল। পরে দুইজনই দুই ক্লাবের ম্যানেজার হয়েছিলেন। ম্যানেজার হিসেবে  ২০০৯ সালে স্পেনেই দুইজনের দেখা হয়েছিল প্রথম। ইংল্যান্ডে তো গত তিন বছর ধরেই এই দুইজনের লড়াই থাকে আলাদা আকর্ষণ।

    ম্যাচের আগে অবশ্য টটেনহাম ম্যানেজার মাউরুসিও পচেত্তিনো ম্যাচটাকে দুইজনের লড়াই বলে আলাদা কোনো মাত্রা যোগ করতে চাইলেন না, "এটা আমার আর তার লড়াই না। অবশ্যই আমি সবাইকে হারাতে চাই। তারাও যেমন আমাকে হারাতে চায়।"

    "ফুটবল একটা দলগত খেলা। এস্পানিওলের হয়ে বার্সেলোনার বিপক্ষে খেলা বা টটেনহামের হয়ে ম্যান সিটির বিপক্ষে খেলা এসব কিছুই ব্যক্তিগত লড়াই নয়।"

    গার্দিওলা ইউরোপের দ্বিতীয় সেরা দল বললেও গতবারের চ্যাম্পিয়নস লিগ রানার আপরা এবার একটি জায়গায়  নিশ্চিতভাবেই উন্নতি করতে চাইবে। গতবার প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষ ছয়ের আলাদা ছোট লিগের হিসেবে পাঁচ নম্বরে ছিল টটেনহাম। তাদের নিচে ছিল কেবল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। চ্যাম্পিয়ন ম্যান সিটির চেয়ে ২৭ পয়েন্ট পেছনে থেকে শেষ করেছিল পচেত্তিনোর। ইতিহাদে তাই ড্রটাই উদযাপন করার মতো ফল হবে টটেনহামের জন্য। সিটি-লিভারপুলের সঙ্গে শিরোপার দৌড়ে টটেনহাম কতোখানি পাল্লা দিতে পারবে সেটার একটা নির্দেশকও হতে পারে এই ম্যাচ।

    দলের খবর
    কোপা আমেরিকার পর প্রথমবারের মতো মাঠে নামতে পারেন ফার্নান্দিনহো। একাদশে ফিরতে পারেন সার্জিও আগুয়েরোও। তবে টটেনহামের বিপক্ষে প্রথম ৭ ম্যাচে ১০ গোল করলেও তাদের বিপক্ষে শেষ ৭ ম্যাচে প্রিমিয়ার লিগে আগুয়েরো রয়েছেন গোলশূন্য।

    দলবদলে এবার বেশ সাড়া ফেলে দেওয়া টটেহাম দল হিসেবে কাগজে কলমে শক্তিশালী হয়েছে কিছুটা। তবে অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে ঘরের মাঠে জিততে ভালো বেগ পেতে হয়েছিল তাদের। সে ম্যাচে ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেন মাঠে নেমে খেলা ঘুরিয়ে দিয়েছিলেন।তার টটেনহামে থাকা নিয়ে সংশয় থাকলেও এবার তার শুরু থেকেই থাকার কথা। টাঙ্গুয়ে এনদম্বেলের দারুণ এক অভিষেকের পর সিটির বিপক্ষেও থাকবেন একাদশে।

    আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার জিওভানি লো সেলসো পুরো সপ্তাহ অনুশীলন করেছেন নতুন দলের সঙ্গে। একাদশে থাকবেন কী না সেটা নিশ্চিত বলা না গেলেও ম্যাচের যে কোনো মুহুর্তে পচেত্তিনো নামিয়ে দিতে পারেন তাকে। হিউং মিন সন ও হুয়ান ফয়েথ দুইজনই নিষেধাজ্ঞার কারণে থাকছেন না এ ম্যাচেও।

    সম্ভাব্য একাদশ
    ম্যানচেস্টার সিটি

    এডারসন, ওয়াকার, লাপোর্ত, স্টোনস, জিনচেঙ্কো, রদ্রি, ডি ব্রুইন, ডেভিড সিলভা, মাহরেজ, স্টার্লিং, আগুয়েরো
    টটেনহাম
    লরিস, ওয়াকার পিটার্স, অ্যালডারভাইরেল্ড, সানচেজ, রোজ, এনদম্বেলে, উইংক্স, এরিকসেন, মউরা, সিসোকো, কেইন

    হেড টু হেড
    সিটি জিতে গেলে এটি হবে টটেনহামের বিপক্ষে প্রিমিয়ার লিগে তাদের টানা পঞ্চম জয়। ইতিহাদে লিগের শেষ ৯ ম্যাচে টটেনহাম জিতেছে মাত্র ১ বার, ১ বার ড্র, বাকি ৭ বারই হেরেছে তারা। গতবার ইতিহাদে সিটি জিতেছিল ১-০ ব্যবধানে।

    প্যাভিলিয়ন প্রেডিকশনঃ ম্যানচেস্টার সিটি ২-২ টটেনহাম