• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    ডি কক-মিলারদের আইপিএলের অভিজ্ঞতাই ভরসা ডুসেনের

    ভারতের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে দক্ষিণ আফ্রিকা দল এখন ধর্মশালায়। এই সিরিজে প্রোটিয়াদের সহ অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করবেন মাত্র এক বছর আগে অভিষেক হওয়া ভ্যান ডার ডুসেন। প্রথম টি-টোয়েন্টির আগে ডুসেন বলছেন, বিরাট কোহলিদের বিপক্ষে আইপিএলে খেলা ক্রিকেটারদের অভিজ্ঞতার ওপরেই বেশি নির্ভর করবে দক্ষিণ আফ্রিকা। 

    টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক হয়ে ভারতের এসেছেন কুইন্টন ডি কক। নিয়মিতভাবেই আইপিএলে খেলছেন তিনি। আরেক ব্যাটসম্যান ডেভিড মিলারও আইপিএলের কল্যাণে ভারতের পিচের সাথে যথেষ্ট পরিচিত। তাদের মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের দিকেই তাকিয়ে আছেন প্রথমবারের মতো জাতীয় দলের সাথে ভারত সফরে আসা ডুসেন, ‘কুইন্টন ও মিলার ভারতের প্রচুর ক্রিকেট খেলেছে। আমরা তাদের কাছে কন্ডিশন নিয়ে অনেক প্রশ্ন করতে পারি। ভারতের বোলাররা কেমন বোলিং করবেন সেই ব্যাপারে তারা ভালোই জানেন। যত দ্রুত আমরা সব বুঝব ততো দ্রুতই মানিয়ে নিতে সুবিধা হবে। ধর্মশালাতে আমরা এই পর্যন্ত দুইটি অনুশীলন সেশন করেছি, আরও দুইটি বাকি আছে। এখানকার আবহাওয়া অনেকটাই ডারবানের মতো, এটা আমাদের জন্য বাড়তি সুবিধা।’ 

    চার বছর আগে ভারতের মাটিতে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। সেবার ধর্মশালাতেও ম্যাচ জিতেছিল তারা। এবারও সেই জয়ের পুনরাবৃত্তি ঘটাতে চান ডুসেন, ‘শেষবার আমরা এই মাঠে সাত উইকেটে হারিয়েছিলাম ভারতকে। এটা ব্যাটিং সহায়ক পিচ হতে পারে। বাউন্ডারিও সবদিকে মাত্র ৬৫ মিটার। আমরা জানি ভারত আমাদের বিপক্ষে কী পরিকল্পনা করবে, সেভাবেই প্রস্তুতি নিচ্ছি।’ 

    বিশ্বকাপের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর এই প্রথমবার মাঠে নামছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ভারতের বিপক্ষে সিরিজে সেই হতাশা ভুলে নতুনভাবে এগিয়ে যেতে চান ডুসেন, ‘শেষবার আমরা সবাই বিশ্বকাপে খেলেছি। খুব হতাশার একটা টুর্নামেন্ট ছিল। আমাদের দলে নতুন কিছু মুখ আছে। ভারত নিজেদের মাটিতে খুব শক্তিশালী দল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেও দারুণ খেলে দেশে ফিরছে তারা। আমাদের তরুণ দল মাঠে কী করতে পারে, সেটার অপেক্ষাতেই আছি।’

     

     

    আগামী ১৫ তারিখ হবে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ।