• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    সরফরাজদের মেন্যু থেকে বিরিয়ানি, মিষ্টি বাদ দিলেন মিসবাহ

    ৪৩ বছর বয়সেও দিব্যি ক্রিকেট খেলে গেছেন মিসবাহ-উল-হক। ৪৫ বছর বয়সী মিসবাহর ফিটনেস এখনও ঈর্ষনীয়। কোচ যদি এমন ফিট হন, দলের ক্রিকেটারদের তো সেরকম হওয়া চাই! সরফরাজ আহমেদদের কোচের দায়িত্ব নিয়ে তাই শুরুতেই ফিটনেস ইস্যুকে সামনে এনেছেন মিসবাহ। মিসবাহ নির্দেশ দিয়েছেন, এখন থেকে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের মেন্যুতে থাকবে না তেলযুক্ত বিরিয়ানি, মাংস কিংবা মিষ্টি জাতীয় খাবার। 

    ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের ফিটনেস নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন অনেকেই। শুধু জাতীয় দল নয়, ঘরোয়া লিগের ক্রিকেটারদের খাদ্যাভ্যাসেও পরিবর্তন আনতে চান মিসবাহ। 

    পাকিস্তানের ঘরোয়া লিগের কায়েদে আজম ট্রফির ম্যাচ থেকে বদলে যাচ্ছে ক্রিকেটারদের মেন্যু।ক্রিকেটারদের খাবার সরবরাহ করা ক্যাটারিং কোম্পানির এক সূত্র দেশটির কয়েকটি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে নতুন মেন্যুর কথা, ‘এখন থেকে ক্রিকেটারদের খাদ্যতালিকায় বিরিয়ানি, তেলযুক্ত মাংস কিংবা মিষ্টি জাতীয় খাবার থাকবে না। পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা জাতীয় দলের খেলার মাঝে না থাকলে তেলযুক্ত ও ফাস্টফুড খেতে ভালোবাসেন। কিন্তু মিসবাহ বলেছেন ক্রিকেটারদের সবসময় কঠিন ডায়েট মেনে চলতে হবে। কেউ যদি এটা না মানেন, তাহলে তাকে দলে নেওয়া হবে না।’ 

     

     

    মিসবাহ নির্দেশ দিয়েছেন, এখন থেকে ঘরোয়া লিগ কিংবা জাতীয় দলের হয়ে খেলা ক্রিকেটারদের দেওয়া হবে পাস্তা, বারবিকিউ করা মাছ, মাংস, সবজি ও প্রচুর পরিমাণে ফল।