• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    ২০২০-এর আগে ফিরছেন না লরিস?

    ব্রাইটনের বিপক্ষে বল দখল আনার সময় বেকায়দায় পড়ে গিয়ে কনুইয়ের ইনজুরিতে মাঠ ছাড়েন টটেনহাম গোলরক্ষক হুগো লরিস। প্রথমে কনুই ভাঙার গুঞ্জন শোনা গেলেও এমআরআই স্ক্যান করে জানা গেছে, কোনো ফ্র্যাকচার হয়নি ফ্রেঞ্চ অধিনায়কের। আন্তর্জাতিক বিরতির কারণে লরিস এখন আছেন ফ্রান্সে। সেখানে অধিনায়কের সাথে দেখা হওয়ার পর জাতীয় দলের কোচ দিদিয়ের দেশম নিশ্চিত করেছেন, এই বছর লরিসের মাঠে ফেরার সম্ভাবনা ক্ষীণ।

    না ভাঙলেও অবশ্য কনুইয়ের লিগামেন্টে বেশ ভাল চোট পেয়েছেন লরিস। অধিনায়কের সাথে দেখা করার পর দেশম বলেছেন; বড় বিপদ কেটে যাওয়ায় কিছুটা নির্ভার লরিস নিজেও, "হুগোর সাথে আমার কথা হয়েছে। আমার মত সেও কনুই ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কাই করেছিল। স্ক্যানের পর অবশ্য আমরা সবাই-ই কিছুটা স্বস্তিতে আছি। তবে কনুইয়ে বেশ চোট পেয়েছে সে।"

     

     

    "কতদিন মাঠের বাইরে থাকবে সেটা বলা মুশকিল, তবে সে এই মাস তো বটেই; নভেম্বরের আন্তর্জাতিক বিরতিতেও আমাদের সাথে থাকছে না নিশ্চিতভাবেই। গোলরক্ষক হওয়ায় হাতের ইনজুরি নিয়ে তাকে একটু বেশিই সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। আগামী সপ্তাহ থেকেই সেই পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শুরু করবে। হুগো ঠিক কতদিন মাঠের বাইরে থাকবে সেটা নিশ্চিতভাবে বলতে পারছি না; তবে আমার মনে হয় না হুগো এই বছর মাঠে ফিরতে পারবে।"

    লরিসের ইনজুরিতে ফ্রান্সের চেয়েও হয়তো নিজেদের বেশী ভুক্তভোগী ভাবতে পারে টটেনহাম। বায়ার্ন মিউনিখের কাছে সাত গোল হজমের পর ব্রাইটনের কাছে ৩-০ ব্যবধান হারের পর আত্মবিশ্বাসটা স্বাভাবিকভাবেই তলানীতে কেইন-এরিকসেনদের। লরিসের বিকল্প পাউলো গাজানিগা নিজেও স্পার্সের হয়ে খুব বেশি ম্যাচ খেলেননি। লরিসের নেতৃত্ব ছাড়াই অন্তত মাস তিনেক খেলতে হবে মাউরিসিও পচেত্তিনোর দলকে।