• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    কিক অফের আগে: বার্নাব্যুতেই 'অচেনা' রিয়াল, শেষ ষোলর দ্বারপ্রান্তে সিটি

    বার্নাব্যুতেই 'অচেনা' রিয়াল

    কবে, কখন

    রিয়াল মাদ্রিদ-গ্যালাতাসারে

    চ্যাম্পিয়নস লিগ, গ্রুপ 'এ'

    ৭ নভেম্বর, রাত ২টা 


    চ্যাম্পিয়নস লিগে এই মৌসুমে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের কাছে হারের পর ক্লাব ব্রুজের বিপক্ষে ড্র করে প্রথমবারের মত গ্রুপপর্ব থেকে বিদায় নেওয়ার আশঙ্কা জেঁকে ধরেছিল রিয়াল মাদ্রিদকে। তবে আগের গেমউইকে গ্যালাতাসারের মাঠে জয়ের পর কিছুটা স্বস্তিতে আছে রিয়াল, গেমউইক ৪-এ বার্নাব্যুতে আবারও তুরস্কের চ্যাম্পিয়নদের মুখোমুখি হচ্ছে রিয়াল।

    জিতলে শেষ ষোলর পথ অনেকটাই সুগম হবে, কিন্তু গ্যালাতাসারের সাথে রিয়ালের প্রতিপক্ষ এই মৌসুমের হতাশাজনক হোম ফর্ম। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে সহজ জয় পাওয়া যেন ভুলেই গেছে রিয়াল। নিজেদের মাঠে লেভান্তের মত দলের বিপক্ষে জিততে রীতিমত সংগ্রাম করতে হয়েছে জিনেদিন জিদানের দলকে; রিয়াল ভায়াদোলিদ, রিয়াল বেটিস, ক্লাব ব্রুজের বিপক্ষে তো ফিরতে হয়েছে ড্র নিয়েই।

     

     

    আগের ম্যাচে গ্যালাতাসারেকে হারালেও পারফরম্যান্স দিয়ে সন্তুষ্ট করতে পারেনি রিয়াল। এবারের ইউরোপিয়ান মৌসুমে অধারাবাহিক দলগুলোর তালিকা করলে হয়তো সবার শুরুতেই থাকবে রিয়ালেরই নাম। সেভিয়ার মত কঠিন প্রতিপক্ষের মাঠে জয়, আবার রিয়াল মায়োর্কার কাছে হার- লা লিগা বা চ্যাম্পিয়নস লিগের ফেভারিট হিসেবে রিয়ালের নাম হয়তো নেবেন না তাদেরই কট্টর সমর্থকেরাই।

    ‘এ’ গ্রুপের শীর্ষে থাকা পিএসজিকে ধরাটা প্রায় অসম্ভব রিয়ালের জন্য, তাই হয়তো গ্রুপ রানার্স আপ হয়েই পরের রাউন্ডে যাওয়াটাই লক্ষ্য জিদানের দলের। অবশ্য রিয়ালের জন্য কিছুটা স্বস্তির খবর হয়তো এই মৌসুমে গ্যালাতাসারের ফর্ম। তুরস্কের চ্যাম্পিয়নরা নিজেদের লিগে এবার আছে টেবিলের সাত-এ, চ্যাম্পিয়নস লিগে তিন ম্যাচ খেলা ফাতিহ তেরিমের দল এখনও জাল খুঁজে পায়নি একবারও।

     

     

    অন্যদিকে বার্নাব্যুতে রিয়ালের অধারাবাহিক ফর্মের মাঝে টানা তিন ম্যাচে ক্লিনশিট রেখেছেন গোলরক্ষক থিবো কর্তোয়া। রক্ষণের চেয়ে বরং ফরোয়ার্ডদের নিয়েই হয়তো জিদানের চিন্তা বেশি। ‘বাস পার্ক ট্যাকটিক্স’-এ খেলা দলগুলোর বিপক্ষে জাল খুঁজে পেতে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে রিয়ালকে। 

    বার্নাব্যুতে গ্যালাতাসারের বিপক্ষে নাচো, মার্কো আসেন্সিওর মত গ্যারেথ বেল এবং হামেস রদ্রিগেজকে পাচ্ছে না রিয়াল। বেটিসের বিপক্ষে ড্রয়ের ম্যাচে রিয়ালের মাঝমাঠে উরুগুইয়ান তরুণ ফেদেরিকো ভালভার্দের অভাবটা চোখে পড়েছে দারুণভাবে। এই মৌসুমে দুর্দান্ত ধারাবাহিকতা দেখানো ভালভার্দের কারণে প্রায় ম্যাচেই একাদশের বাইরে থাকতে হচ্ছে লুকা মদ্রিচকে।

    বেটিসের বিপক্ষে বিশ্রামে থাকা ভালভার্দে হয়তো ফিরবেন একাদশে। বেলের বদলে আবারও রিয়ালের একাদশে দেখা যাবে রিয়ালের নতুন সেনসেশন রদ্রিগো গোজকে। রিয়ালের বিপক্ষে আগের ম্যাচের মত গ্যালাতাসারে এবারও পাচ্ছে না রাদামেল ফালকাওকে। তুরস্কে রিয়ালের বিপক্ষে গোলের একাধিক সুযোগ পেয়েছিলেন ফ্লোরিয়ান আন্দোনে, বার্নাব্যুতেও হয়তো গোলের জন্য তার দিকেই তাকিয়ে থাকবেন তেরিম।

     

    সম্ভাব্য একাদশ

    রিয়াল মাদ্রিদ (৪-৩-৩): কর্তোয়া; কারভাহাল, ভারান, রামোস, মার্সেলো; ক্রুস, কাসেমিরো, ভালভার্দে; রদ্রিগো, বেনজেমা, হ্যাজার্ড

    গ্যালাতাসারে (৩-৪-৩): মুসলেরা; মার্কাও, ডঙ্ক, লুয়িনদামা; নাগাটোমো, সেরি, এন’জঞ্জি, মারিয়ানো; বাবেল, আন্দোনে, বেলহান্দা।


    শেষ ষোলর দ্বারপ্রান্তে সিটি

    কবে, কখন

    আটালান্টা-ম্যানচেস্টার সিটি

    চ্যাম্পিয়নস লিগ, গ্রুপ 'সি'

    ৭ নভেম্বর, রাত ২টা


    প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুলের চেয়ে পিছিয়ে থাকলেও চ্যাম্পিয়নস লিগে নিজেদের গ্রুপে রীতিমত অপ্রতিরোধ্য ম্যানচেস্টার সিটি। ৩ ম্যাচে পূর্ণ ৯ পয়েন্ট নিয়ে ‘সি’ গ্রুপের শীর্ষে আছে পেপ গার্দিওলার দল। ইতালিতে গেমউইক ৪-এ তাদের প্রতিপক্ষ প্রথমবারের মত চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলতে আসা আটালান্টা।

    সিরি আ-তে আগের মৌসুমের ফর্ম ধরে রাখলেও চ্যাম্পিয়নস লিগে একেবারেই সুবিধা করতে পারছে না আটালান্টা। গ্রুপপর্বে খেলা তিন ম্যাচের তিনটিই হেরেছে তারা। সিটির বিপক্ষে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে আগের ম্যাচে লিড নিলেও রহিম স্টার্লিংয়ের হ্যাটট্রিকে ৫-১ গোলে তাদের উড়িয়ে দিয়েছিল সিটি।

     

     

    নিজেদের মাঠে তাই হয়তো সিটিকে রুখে দেওয়ার উচ্চাশা করবে না আটালান্টা। ইতালিয়ান প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ফেভারিট হলেও স্কোয়াড বাছাই নিয়ে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে গার্দিওলাকে। লিরয় সানে, আয়মেরিক লাপোর্তে ছিটকে গেছেন আগেই; ইনজুরিতে পড়া রদ্রি, ডেভিড সিলভাকেও পাচ্ছে না সিটি।

    আগের ম্যাচে লাল কার্ড দেখায় আটালান্টার বিপক্ষে থাকছেন না তরুণ ফিল ফোডেনও। আটালান্টার মাঠে সিটি জয় পেলে এবং ডিনামো জাগ্রেব-শাখতার দনেৎস্ক ড্র করলে শেষ ষোলর টিকেট নিশ্চিত করবে সিটি।