• বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ে সিরিজ ২০১৬
  • " />

     

    যেখানে থাকতে চাননি রনি-শহীদ

    প্রথম একাদশের একাধিক নিয়মিত মুখের ইনজুরি আর দুটো বড় টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে নতুনদের পরখ করে দেখার প্রয়াস- দু’য়ে মিলে রীতিমতো বলে-কয়েই দলে বড় ধরণের পরিবর্তন এনেছিল বাংলাদেশ। এক ম্যাচে একই সাথে অভিষেক হয়েছে চারজনের- আবু হায়দার রনি, মোহাম্মদ শহীদ, মোসাদ্দেক হোসেন ও মুক্তার আলীর। সিরিজের শুরু থেকেই উইকেটের পিছনে দায়িত্ব পালন করছেন আরেক নবীন নুরুল হাসান সোহান। আর তামিমের ইনজুরি ইনিংস উদ্বোধনের সুযোগ করে দিয়েছিল ইমরুল কায়েসকে। ম্যাচের ফল বিবেচনায় এই পরীক্ষামূলক একাদশ যে কার্যত ব্যর্থ তা বোধকরি বলাই যায়। জিম্বাবুয়ের করা ১৮৮ রান তাড়া করতে নেমে ৬ উইকেটে ১৫৬ রান তুলতেই ফুরিয়ে যায় বাংলাদেশের নির্ধারিত কুড়ি ওভার। আর বাংলাদেশের বোলারদের জন্য বাজে দিনটায় দুই অভিষিক্ত রনি ও শহীদ ঢুকে পড়েছেন অনাকাঙ্ক্ষিত এক রেকর্ডের খাতায়। বাংলাদেশের হয়ে অভিষেক টিটোয়েন্টিতে সবচেয়ে বেশী রান দেয়া বোলারদের তালিকায় এই দু’জনই এখন আছেন ‘সেরা’ পাঁচে।

     

    আজকের ম্যাচে বাংলাদেশের হয়ে টিটোয়েন্টি অভিষেক হওয়া চারজনঃ (বাঁ থেকে) মোসাদ্দেক হোসেন, মুক্তার আলী, আবু হায়দার রনি ও মোহাম্মদ শহীদ

     

    মুস্তাফিজ, আল-আমিনদের অনুপস্থিতিতে রনি-শহীদরাই বাংলাদেশের হয়ে আজ বল হাতে ইনিংস উদ্বোধন করেছেন দুই প্রান্ত থেকে। শুরুটা মন্দ হয় নি কারোরই, রনি ৭ ও শহীদ ৪ রান দেন স্ব স্ব স্পেলের প্রথম ওভার থেকে। কিন্তু ইনিংসের তৃতীয় ওভার থেকেই রুদ্রমূর্তি ধারণ করেন জিম্বাবুয়ের দুই ওপেনার ভুসি সিবান্দা ও হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। পরবর্তীতে উইলিয়ামস-ওয়ালাররাও ব্যাট হাতে চড়াও হতে শুরু করলে বাংলাদেশের বোলারদের নামের পাশে রানের খরচটাও চড়া হতে থাকে।

     

    ব্যক্তিগত স্পেলের চার ওভার শেষ করতে রনি রান দিয়ে ফেলেন ৪০টি। অবশ্য নিজের ও ইনিংসের শেষ ওভারে ক্যারিয়ারের প্রথম টিটোয়েন্টি উইকেট হিসেবে শিকার করেন উইলিয়ামসকে (৩২), তিন বল বাদে দ্বিতীয় শিকার হিসেবে তুলে নেন সিকান্দার রাজাকেও। আর ৩ ওভারে ৩২ রান দিয়ে ফেলা মোহাম্মদ শহীদ তাঁর প্রথম টিটোয়েন্টি উইকেট হিসেবে সাজঘরের পথ দেখান ভয়ংকর হয়ে উঠতে শুরু করা মাসাকাদজাকে, তাঁরই দ্বিতীয় ওভারে টানা চারটি চার মেরে ফেলার পর।

     

    ৪ ওভারে ৪০ রান দিয়ে টিটোয়েন্টি অভিষেকে বাংলাদেশের হয়ে রান খরচের রেকর্ডে তিন নম্বরে চলে এসেছেন রনি। ৪৯ রান দিয়ে এই তালিকায় সবার উপরে রুবেল ও দ্বিতীয়তে আছেন ৪৪ রান দেয়া সোহাগ গাজী। আর ৩ ওভারে ৩২ রান দিয়ে শহীদ আছেন চার নম্বরে, ৪ ওভার বল করে সমপরিমাণ রান দিয়ে তাঁর সঙ্গী মোহাম্মদ আশরাফুল।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন