• বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ
  • " />

     

    কিক অফের আগে : জামাল, ইয়াসিনদের নিয়ে সংশয়, পথ হারানোর সুযোগ নেই বাংলাদেশের

    কবে, কখন 
    শ্রীলঙ্কা-বাংলাদেশ 
    বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ, গ্রুপ 'এ' 
    ১৯ নভেম্বর, বিকাল ৫.০০ 
    বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম 


    শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জিততেই হবে বাংলাদেশকে। হারলে বাদ, ড্র হলে সরাসরি টাইব্রেকার। বাংলাদেশ দল ভালোভাবেই জানে সে পর্যন্ত ঝুলে থাকা হতে পারে আত্মঘাতী। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের সেমিফাইনালে উঠতে বাংলাদেশের সামনে তাই আগ পিছ না ভেবে জয়ের চিন্তা। ভালো খেললে জিতব, না খেললে হারব- ঘরানার কথাবার্তা বেশি বলা বাংলাদেশ কোচ জেমি ডেও এবার পরিষ্কার করেই বলছেন, জয়টাই তাদের লক্ষ্য। 

    ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কাকে টপকে সেমিফাইনালে উঠতে না পারলে বাংলাদেশের জন্য সেটা হবে বিপর্যয়। তাতে গত মাসে এসএ গেমসের ব্যর্থতার ক্ষতে প্রলেপ দেওয়ার বদলে সৃষ্টি হতে পারে দাগ। সেই দাগ ডের বাংলাদেশের কোচের পদটাও করে দিতে পারে নড়বড়ে।

    এমন ম্যাচের আগে বাংলাদেশ ফুটবলের সবচেয়ে বড় তারকা জামাল ভুঁইয়া খেলা নিয়েও তৈরি হয়েছে সংশয়। বাম পায়ের উরুতে ব্যাথা নিয়ে ম্যাচের আগেরদিন অনুশীলন করেননি বাংলাদেশ অধিনায়ক। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তার খেলা না খেলা কোচ ছেড়ে দিয়েছেন জামালের ওপরেই। আর জামাল নিজে বলছেন তার খেলার সম্ভাবনা "৭৫ শতাংশ।"

    শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবে শনিবার সকালে বাংলাদেশ দলই অবশ্য অনুশীলন করেছে ঘন্টাখানেক। জামাল ভুঁইয়া দলের সঙ্গে এসেছিলেন। তবে বল পায়ে সময় কাটাননি। "আমার খেলার সম্ভাবনা ৭৫ শতাংশ। এখনও ব্যথা আছে।পা নাড়াতে সমস্যা হচ্ছে।"

    "আমি কাল সকালে দৌড়ানোর চেষ্টা করব। যদি ব্যথা অনুভব না হয় তাহলে খেলব।"- জামাল ভুঁইয়া আশা দিয়ে রেখেছেন। তবে বাস্তবতা হচ্ছে জামাল ভুঁইয়ার একাদশে থাকার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। খেলার সম্ভাবনা কম ইয়াসিন খানেরও। জ্বরে ভুগছেন তিনি। 

    জামাল, ইয়াসিনরা থাকুন আর না থাকুন বাংলাদেশের লক্ষ্য স্থির থাকারই কথা। শ্রীলঙ্কা নিজেদের প্রথম ম্যাচে ফিলিস্তিনকে চমকে দিয়েছিল। যোগ করা সময়ে দুই গোল হজম করে বাংলাদেশের কাতারে নেমেছে তারা। আর বাংলাদেশও ফিলিস্তিনের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে হেরেছিল একই ব্যবধান, ২-০ তে। এই বিচারে দুইদলকে আলাদা করা না গেলেও- ফিলিস্তিনের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার পারফরম্যান্স বলছে তাদের রক্ষণ ভাঙতে রীতিমত যুদ্ধই করতে সাদ উদ্দিনদের।  

    ফিলিস্তিনের বিপক্ষে বাংলাদেশ শুরুটা ভালো করলেও দুইটি ভুলের মাশুল গুণে শেষ পর্যন্ত হতাশ হয়ে মাঠ ছেড়েছে। হারের চেয়েও সমর্থকদের বেশি হতাশ হওয়ার কথা গোলের সামনে নখদন্তহীন বাংলাদেশকে দেখে। ফিলিস্তিনের বিপক্ষে বলার মতো মাত্র একটি গোলের সুযোগ তৈরি করতে পেরেছিল লাল-সবুজরা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও বাংলাদেশের আক্রমণের অবস্থা রাতারাতি বদলে দেওয়ার সুযোগ নেই।  তবে এই  সীমিত পুঁজি নিয়েও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয় ছিনিয়ে আনা অসম্ভব কিছু নয়।

    দলের খবর 
    জামালের ইনজুরিতে দলে সুযোগ মিলতে পারে রবিউল হাসানের, আর ইয়াসিন খানের  জায়গায় রিয়াদুল হাসান রাফি। মতিন মিয়া আগের ম্যাচে তেমন একটা ঝলক দেখাতে পারেননি। সাদ উদ্দিন স্ট্রাইকার হিসেবে খেলতে নেমে ছিলেন ছায়া হয়ে। তবে এছাড়া দলে পরিবর্তন আসার সম্ভাবনা কম। 

    বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ 
    আশরাফুল ইসলাম রানা, রায়হান হাসান, তপু বর্মন, রিয়াদুল হাসান রাফি, রহমত মিয়াঁ, মামুনুল ইসলাম, রবিউল হাসান, সোহেল রানা, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, মতিন মিয়া 

    হেড টু হেড
    দুইদল সবশেষ মুখোমুখি হয়েছিল ২০১৮ সালে। জেমি ডের অধীনে সেটিই ছিল বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ। ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সেদিন ১-০ ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। তবে শেষ ৫ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওই একটাই হার লাল সবুজদের। আর সবশেষ গত ডিসেম্বরে এসএ গেমসে অলিম্পিক দলের হয়েও শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ।