• বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর
  • " />

     

    জাতীয় দলের নতুন বোলিং কোচ ওটিস গিবসন

    বাংলাদেশ জাতীয় দলের নতুন বোলিং কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ওটিস গিবসনকে। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে শার্ল ল্যাঙ্গেভেল্ডট চলে যাওয়ার পর থেকে শূন্য ছিল এ পদ। তার সঙ্গে দুই বছরের চুক্তি করেছে বিসিবি, পাকিস্তান সফরই হবে তার প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট। 

    ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ১৭টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেললেও কাউন্টিসহ ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ পরিচিত মুখ ছিলেন গিবসন। তবে পেশাদার ক্রিকেটার ক্যারিয়ার শেষের পর থেকেই যুক্ত আছেন কোচিংয়ে, এই সেক্টরে বেশ হাই-প্রোফাইল কোচই তিনি। 

    দুই দফায় ইংল্যান্ডের বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি, ২০০৭ থেকে ২০১০, এবং পরে ২০১৫ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত। দুই দফাতেই ইংল্যান্ডের বোলিং কোচের দায়িত্ব ছেড়ে দুটি জাতীয় দলের হেড কোচের দায়িত্ব নিয়েছিলেন- ২০১০ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দায়িত্ব, ২০১৭ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার দায়িত্বে। 

    দক্ষিণ আফ্রিকার হেড কোচের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি পাওয়ার পর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ, বিপিএলে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের হেড কোচ ছিলেন তিনি। মূলত তখনই বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন, বিসিবির সঙ্গে এ নিয়ে তার কথাবার্তা চলছে, জানিয়েছিলেন সেটিও। কুমিল্লার শেষ ম্যাচের পর গিবসন বলেছিলেন, এখন বিসিবির সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছেন তিনি। 

    তার নিয়োগের ব্যাপারে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরি বলেছেন, দলের কোচিং স্টাফের শক্তিমত্তা বাড়াবে এটি, “তার দারুণ অভিজ্ঞতা আছে, বিশ্বজুড়ে কোচিং করিয়েছেন তিনি। বাংলাদেশ ক্রিকেটকে কাছ থেকে দেখার সুযোগও পেয়েছেন। বাংলাদেশের দলের কোচিং গ্রুপে তিনি খুবই মূল্যবান এক সংযোজন হবেন বলে আমি নিশ্চিত।” 

    পাকিস্তান সফরে প্রথম দফা তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলতে ২২ জানুয়ারি দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ।