• বিসিএল ২০২০
  • " />

     

    শফিউলের পর রাজ্জাকের তোপ সামলানোর চেষ্টা রনি-আরিফুলের

    দ্বিতীয় দিন, স্টাম্পস
    সাউথ জোন ২৬২ অলআউট ও ৪০/১*
    নর্থ জোন ১২ ওভারে ২০৭ অল-আউট 
    সাউথ জোন ৯৫ রানে এগিয়ে 

    পুরো স্কোরকার্ড দেখুন


    ৪৬ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর প্রথম ইনিংসে ৫৫ রানে পিছিয়ে থাকা- নর্থ জোন আপত্তি করবে না নিশ্চয়ই! শফিউল ইসলামের পর আব্দুর রাজ্জাকের তোপ সামলে প্রথম ইনিংসে ২০৭ রান তারা তুলতে পেরেছে মূলত রনি তালুকদার ও আরিফুল হকের দুই ফিফটিতে। দ্বিতীয় ইনিংসে দ্রুত ফজলে মাহমুদ রাব্বিকে হারালেও দিনশেষে সাউথ জোনকে ধাতস্থ করেছেন শাহরিয়ার নাফীস ও শামসুর রহমান। অবশ্য চোট পেয়ে উঠে গেছেন এনামুল হক বিজয়। 

    আগেরদিন ২৬ রানে অপরাজিত থাকা রনি এদিন শুরু করেছিলেন তানভীর হায়দারকে নিয়ে। তানভীর দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন তাকে, চট্টগ্রামের সবুজ উইকেটে সকালে সামলেছেন পেসারদের। কামরুল ইসলাম রাব্বিকে দুই চারের পর আব্দুর রাজ্জাককে মেরেছেন আরও দুটি চার, শেষ পর্যন্ত অবশ্য রাজ্জাকের অফস্টাম্পের বাইরের বলে খোঁচা দিয়ে স্লিপে ক্যাচ বনে ফিরেছেন ৯২ বলে ৩৪ রান করে, রনির সঙ্গে ৫৮ রানের জুটির পর। 

    তানভীরের পর আরিফুলের সঙ্গে লাঞ্চের আগে-পরে আর ১৬ রান যোগ করতে পেরেছিলেন রনি। ১২৫ বলে ফিফটির পর ১৪৩ বলে ৫৫ রান করে তিনি ফিরেছেন রাজ্জাকের ভেতরের দিকে ঢোকা বলে এলবিডব্লিউ হয়ে। এরপর নর্থ জোনকে টেনেছেন আরিফুল। 

    সুমন খানকে নিয়ে ৮ম উইকেটে তুলেছেন ৫২ রান। ইনফ্রন্ট অফ স্কয়ারে আরিফুল ছিলেন দারুণ, রাজ্জাককে চার মেরে ফিফটি করেছিলেন ১০০ বলে। তবে তাকে রেখে একে একে ফিরে গেছেন নর্থের শেষ ৩ ব্যাটসম্যান। সুমন খান রাজ্জাকের বাইরের বলে ব্যাট চালিয়ে হয়েছেন কট-বিহাইন্ড, তাসকিন আহমেদ স্লিপে ক্যাচ দিয়েছেন। আর শফিউলের শর্ট বলে লেগস্টাম্পে বল ডেকে এনেছেন এবাদত হোসেন। রাজ্জাক শেষ পর্যন্ত ৭২ রানে নিয়েছেন ৪ উইকেট, আর শফিউল ৬ উইকেট নিতে খরচ করেছেন মাত্র ৪০ রান। আরিফুল শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন ১১১ বলে ৮ চারে ৫৮ রান করে। 

    দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩য় ওভারেই ফিরে গেছেন এনামুল হক, এবাদতের শর্ট বলে ডাক করতে গিয়ে চোট পেয়েছেন তিনি। ৬ষ্ঠ ওভারে তাসকিনের আহমেদের অফস্টাম্পের বাইরের বল তাড়া করতে গিয়ে দ্বিতীয় স্লিপে জুনাইদ সিদ্দিকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন রাব্বি। 

    এরপর আর বিপদ ঘটতে দেননি নাফীস ও শামসুর। দিনশেষে ৬০ বল খেলে ১৯ রানে অপরাজিত আছেন প্রথম ইনিংসে গোল্ডেন ডাক মারা নাফীস, ৫৪ বল খেলে ১৬ রান শামসুরের।