• বিসিএল ২০২০
  • " />

     

    ফরহাদ রেজার সেঞ্চুরিতে সাউথের রানপাহাড়

    বিসিএল ফাইনাল ২০২০
    সাউথ জোন-ইস্ট জোন
    দ্বিতীয় দিন শেষে
    সাউথ জোন ৪৮৬ অলআউট (ফরহাদ ১০৩*, রাব্বি ৮৬; আশরাফুল ২/১৩, সজীব ২/৭৮, রুয়েল ২/৮৬)
    ইস্ট জোন ১১০/৩ উইকেটে (পিনাক ৩৮, আশরাফুল ২৮; রাজ্জাক ২/৩৪)
    ইস্ট জোন ৩৭৬ রানে পিছিয়ে


    মাত্র ৮ রান নিয়ে দিন শুরু করেছিলেন ফরহাদ রেজা। যদিও দলের রান তখন তিনশ ছাড়িয়ে গেছে, তবুও প্রথম ইনিংসে একটি বড় সংগ্রহ থেকে তখনও বেশ কিছুটা দূরে সাউথ জোন। শেষ পর্যন্ত তার অপরাজিত ১০৩ রানে চড়েই প্রথম ইনিংসে ৪৮৪ রানের পাহাড় গড়েছে তারা। সেই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দিন শেষে ৩ উইকেটে ১১০ রান করেছে ইস্ট জোন।
     

    শামসুর রহমান ৩৭ এবং রেজা ৮ রান নিয়ে আজ সকালে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন। সপ্তম উইকেটে দেখে-শুনে খেলে এই দুজন গড়ে তুলেন ৯৬ রানের জুটি। ১১৯ বল খেলে ৭ চারে ফিফটি করেন শামসুর। তবে অনেক সাবধানী হয়ে ব্যাট করেও ব্যক্তিগত ৭৯ রানে সাকলাইন সজীবের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে যান তিনি। শামসুর ফিরে গেলেও এক প্রান্ত আগলে রানের চাকা সচল রেখেছিলেন রেজা। 
     

    মাঝে সাউথ অধিনায়ক আব্দুর রাজ্জাক মোহাম্মদ আশরাফুলের পার্ট টাইম স্পিনে ঘায়েল হয়েছেন। তবে শফিউল ইসলামকে সঙ্গে নিয়ে নবম উইকেটে ৮৮ রানের বড় জুটি গড়েন রেজা। সেই জুটিতে ভর করেই সাড়ে চারশ ছাড়ায় সাউথ। ব্যক্তিগত ৩০ রানে আশরাফুলের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফিরে যান শফিউল। সেঞ্চুরিয়ান রেজা ১০৩ রান করে অপরাজিত থাকেন। প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে এটি তার ষষ্ঠ সেঞ্চুরি। ১৭৩ বল খেলে এই মাইলফলকের দেখা পান তিনি। ইনিংস জুড়ে ১০ চার ও ৫টি ছয় মেরেছেন এই অলরাউন্ডার।
     

    প্রথম ইনিংসে সাউথের বিশাল সংগ্রহ সামনে রেখে দুই ওপেনার পিনাক ঘোষ ও মোহাম্মদ আশরাফুলের ব্যাটে ভালো শুরু পায় ইস্ট জোন। তবে ৬৩ থেকে ৬৮, এই ৫ রানের মাঝে দুই ওপেনারকে হারিয়ে বিপদে পড়ে ইস্ট জোন। নিজের পরপর দুই ওভারে এই দুই ব্যাটসম্যানকে তুলে নেন রাজ্জাক। মাহমুদুল হাসান এবং ইমরুল কায়েসের ব্যাটে সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিচ্ছিল ইস্ট। তবে দিনের যখন আর মাত্র এক ওভার বাকি, তখনই শফিউলের দুর্দান্ত ইয়র্কারে বোল্ড হয়ে ফিরেছেন ইস্ট জোনের অধিনায়ক ইমরুল। দিন শেষে মাহমুদুল ২১ এবং আফিফ হোসেন কোনও রান না করে অপরাজিত আছেন।
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন