• বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর
  • " />

     

    মুশফিক ভাইকে পাকিস্তানে মিস করব, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিনি অবশ্যই খেলবেন : মুমিনুল

    তিন দফায় একটা সফর, এক টেস্টের পর আরেক টেস্টের আগে বিরতির প্রায় মাসদুয়েকের। সূচিটা অদ্ভুত। সমস্যাগুলোও তাই একটু ভিন্নমাত্রার। রাওয়ালপিন্ডি টেস্টের আগে পাকিস্তানে গিয়ে যেমন মাত্র দিনখানেকের প্রস্তুতির সময় পাবে বাংলাদেশ। তবে আপাতত আরেকটি 'সমস্যা'র নাম মুশফিকুর রহিম।

    নিরাপত্তার কারণে পাকিস্তান সফর থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন তিনি, তবে পাকিস্তান সফরের মাঝ দিয়ে দেশের মাটিতে আছে জিম্বাবুয়ে সিরিজ। আপাতত পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের দল দিয়েছে বিসিবি। দেশ ছাড়ার আগে হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেছেন, মাঝে মুশফিককে ধরে ব্যাটিং অর্ডারে রদবদল নিয়ে একটু সমস্যার মধ্যে পড়ে গেছেন তিনি। রাওয়ালপিন্ডি টেস্টের জন্য ব্যাটিং অর্ডারে পরিবর্তন আনতে হবে ভারত সফর থেকে, আবার মাঝে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টে মুশফিক ফিরলে আরেকটি পরিবর্তন আসবে।

    মুমিনুল অবশ্য সেসব সমস্যা নিয়ে ভাবতে চান না। তার মতে, পাকিস্তানে তিনি মুশফিককে মিস করবেন, আর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তার খেলা নিয়ে কোনও সংশয় নেই।

    ভারত সফরের আগে বেশ একটা অপ্রস্তুত অবস্থার মধ্য দিয়ে অধিনায়কত্ব পেয়েছিলেন মুমিনুল, সাকিব আল হাসানের নিষেধাজ্ঞার কারণে। এরপর প্রধান নির্বাচক বলেছেন, ভারতের পর সামনের তিনটি সিরিজেও অধিনায়কত্বের ‘ভরসা’ রাখা হচ্ছে মুমিনুলের ওপরই। ভারত সিরিজে স্বাভাবিকভাবেই সাকিবকে পাননি, সঙ্গে ছিলেন না তামিমও। এবার মুমিনুল পাচ্ছেন না মুশফিককে।

    “দল তো ভালো। আমি সবসময় চেষ্টা করি যে, আমি অধিনায়ক থাকা অবস্থায় দলে যেন খুব বেশি পরিবর্তন না হয়। আমার কাছে মনে হয় ওই জিনিসটা খুব ভালো হচ্ছে এখন। এখন কেন, আগেও ছিল”, বলছেন মুমিনুল। “আমি ওই জিনিসটায় খুশি। শেষ টেস্ট দলে যারা ছিল তারাই আছে। হয়তো তামিম ভাই ছিল না (সেবার), (এবার) মুশফিক ভাই নেই। আবার তামিম ভাই আছে এবার। (তবে) সব মিলিয়ে মুশফিক ভাইকে মিস করবো। সাকিব ভাইকে তো আগে থেকেই মিস করছি। ব্যাটিংয়ে মুশফিক ভাইয়ের জায়গায় তাকে একটু মিস করবো। (অবশ্য) সঙ্গে সঙ্গে মুশফিক ভাইয়ের জায়গায় যারা ব্যাট করবে তাদের জন্য এটা সুযোগ।”

    শুধু মিস করবেন, সেটাও নয়, মুশফিকের দলে না থাকাটা বিরাট ক্ষতি বলেও মনে হচ্ছে মুমিনুলের কাছে, “দেখেন এটা তো বলার অপেক্ষা রাখে না। আপনিও জানেন, আমিও জানি, সারা বাংলাদেশ জানে। ক্রিকেট বিশ্বও জানে- আপনার দলে মুশফিক ভাইয়ের মতো একজন ব্যাটসম্যান না থাকা বিরাট (ক্ষতি)। সবাই তো তাকে মিস করবে। একজন অধিনায়কের জন্য এবং সবার জন্য এটা বিরাট ক্ষতি।”

    জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মুশফিকের খেলা নিয়েও সংশয় নেই তার, “সাথে এটাও বলার অপেক্ষা রাখে না যে মুশফিক ভাই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলবেন কি না। অবশ্যই খেলবেন। বাংলাদেশে যেহেতু খেলা অবশ্যই খেলবেন।”

    আপাতত নজর অবশ্যই পাকিস্তান সফরের দিকে, মানে, একটি টেস্টের দিকে। কোচ বলছেন, যাওয়ার আগে প্রস্তুতিটা ‘আদর্শ’ মনে হয়নি তার। আর মুমিনুলের মতে, ‘যা আছে তাই নিয়ে যুদ্ধে যাওয়ার মতো’, “দেখুন, আমার কাছে মনে হয় এটা তো আমার হাতেও নেই। কঠিন। এটা নিয়ে মন্তব্য করাও কঠিন। যেহেতু হাতে নেই, এটা আবহাওয়ার মতো হলো। আমি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো না। আমার কাছে মনে হয় যেটা আছে আমাদের সেটা নিয়ে যেতে হবে। যুদ্ধে যাওয়ার আগে যেরকম পরিস্থিতি হয়। কিছু করার থাকে না। এই পরিস্থিতিতে নিজেরা যে যেভাবে মানিয়ে নিতে পারে সেটাই চেষ্টা করা আর কী। আগে থেকে এরকম নেতিবাচক চিন্তা না করে আমার মনে হয় যা সম্বল আছে তা নিয়ে এগিয়ে যাওয়া ভালো। আমার কাছে এমন মনে হয়।“

    এর আগে ভারতের সঙ্গে সিরিজে “ব্যাকফুটে” ছিলেন জানিয়ে মাঠ কিংবা মাঠের বাইরে অনেক বিষয়েই উন্নতির চেষ্টা করবেন, মুমিনুল বলছেন সেটাও।

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন