• বিসিএল ২০২০
  • " />

     

    পাকিস্তানফেরত বেশির ভাগই বিশ্রামে, চোট কাটিয়ে ফিরছেন সাইফ উদ্দিন-মিরাজ

    পাকিস্তান থেকে মাত্র ইনিংস ব্যবধানে পরাজয়ের গ্লানি নিয়ে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ২২ ফেব্রুয়ারিই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট, দম ফেলার খুব একটা ফুরসত নেই তাদের। তবে কাল থেকে শুরু বিসিএলের ফাইনাল ও শেষ রাউন্ডে জাতীয় দলের বেশির ভাগ খেলোয়াড়ই বিশ্রামে থাকছেন। নাজমুল হোসেন শান্ত, নাঈম হাসান, সাইফ হাসানরা কাল খেলছেন। বড় খবর হচ্ছে, চোট কাটিয়ে ফিরছেন মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

    পাকিস্তান সফর থেকে গতকাল ও পরশু দুই ধাপে ফিরেছন ক্রিকেটাররা। বিসিএলের প্রথম রাউন্ডে খেলেছিলেন জাতীয় দলের প্রায় সবাই। তামিম করেছিলেন ট্রিপল সেঞ্চুরি, বাকিদের সবার পারফরম্যান্স ভালো ছিল। তবে জাতীয় দলের হয়ে সেটা করতে পারেননি। এবার বিসিএলের শেষ রাউন্ডে খেলছেন না বেশির ভাগ ক্রিকেটারই। যেকজন খেলছেন, তাদের ফেরায় সবচেয়ে বেশি লাভ হচ্ছে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের। সাইফ হাসান অভিষেক টেস্টে কিছু করতে পারেননি, তবে নাজমুল হোসেন শান্ত বাকিদের তুলনায় ভালো করেছেন। দুজনেই খেলবেন সেন্ট্রাল জোনের হয়ে। চোট কাটিয়ে সেন্ট্রাল জোনের হয়ে ফিরছেন মেহেদী হাসান মিরাজও। বিপিএলে আঙুলে চোট পেয়েছিলেন, এরপর সেই চোট তাকে ছিটকে দিয়েছিল পাকিস্তান সফর থেকেও। মিরাজ এবার সুস্থ হয়ে আবার ফিরছেন মাঠে।

    সাইফ উদ্দিনের ফেরাও নর্থ জোনের জন্য শুধু নয়, বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্যও সুসংবাদ। সেই সেপ্টেম্বরের পর থেকে আর প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলেননি সাইফ, পিঠের চোটের জন্য দীর্ঘ পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছিল তাকে। প্রায় মাস পাঁচেক পর আবার ফিরছেন ২২ গজে। নাঈম হাসান খেলবেন ইসলামি ব্যাংক ইস্ট জোনের হয়ে, আর শফিউল ইসলাম খেলবেন সাউথ জোনের হয়ে। পাকিস্তানে না যাওয়া মুসফিকুর রহিম এই রাউন্ডেও খেলবেন নর্থ জোনের হয়ে।

    ১৬.৩৯ পয়েন্ট নিয়ে ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে সবচেয়ে এগিয়ে সাউথ জোন। ১৩০৬ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ইস্ট জোন, ৯.৫ পয়েন্ট নিয়ে সেন্ট্রাল জোন নিয়ে, আর ৫ পয়েন্ট নিয়ে সবার নিচে নর্থ জোন। কাল সেন্ট্রাল জোন খেলবে সাউথ জোনের সঙ্গে, আর নর্থ জোনের প্রতিপক্ষ ইস্ট জোন।