• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    কিক অফের আগে : জিদানের সেরা গার্দিওলা, শিরোপা বলছে জিদানই সেরা

    কবে, কখন
    রিয়াল মাদ্রিদ-ম্যানচেস্টার সিটি
    চ্যাম্পিয়নস লিগ, দ্বিতীয় রাউন্ড, প্রথম লেগ
    ২৭ ফেব্রুয়ারি, রাত ২.০০


    একজন বার্সেলোনা কিংবদন্তী, আরেকজন রিয়াল মাদ্রিদের। একজনকে খেলোয়াড় হিসেবে ফুটবল ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা ধরা হয়, অন্যজনকে কোচ হিসেবে। প্রথমবারের মতো সেই পেপ গার্দিওলা ও জিনেদিন জিদান একে অপরের মুখোমুখি হচ্ছেন। গার্দিওলা ক্লাব বদলালেও জিদান আছেন রিয়াল মাদ্রিদেই। চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচটা দুই দলের হলেও আদতে ডাগ আউটের দিকেই নজর থাকবে সবচেয়ে বেশি।

    ম্যানচেস্টার সিটি রিয়াল মাদ্রিদে যাচ্ছে শঙ্কা সঙ্গী করে। কিছুদিন আগেই এএফপির নিয়ম ভঙ্গ করায় বড় ধরনের শাস্তি জুটেছে, আগামী দুই বছর চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলতে পারবে না ম্যান সিটি। সিটি যদিও আপিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে এর আগ পর্যন্ত শাস্তিটাই বহাল আছে। ম্যাচটা তাই আক্ষরিক অর্ধেই সিটির অস্তিত্ব রক্ষার।

    এমন সমীকরণের সামনে থেকে যে জায়গাটায় আপনি একেবারেই যেতে চাইবেন না, তেমন এক জায়গায় যেতে হচ্ছে ম্যান সিটিকে। চ্যাম্পিয়নস লিগের সবচেয়ে সফল দল, রিয়াল মাদ্রিদের ঘরে। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে। সাম্প্রতিক সময়ে ম্যান সিটি ইউরোপের সেরাদের কাতারে উঠেছে বটে, তবে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় রিয়াল মাদ্রিদের সামনে দাঁড়ানোর যোগ্যতাই তো নেই সিটির!

    সিটি বার্নাব্যুতে যাচ্ছে চোয়াল শক্ত করে। লিগের শেষ দুই ম্যাচ জিতে কিছুটা ধাতস্থ হয়েছে তারা। আর রিয়াল মাদ্রিদ লিগের শেষ দুই ম্যাচে হোঁচট খেয়েছে। খোয়া গেছে শীর্ষস্থানটাও। কিন্তু জিদানের দলের খেলায় খুব বেশি হতাশ হওয়ার উপকরণ নেই। লেভান্তের বিপক্ষে একগাদা গোলের সুযোগ তৈরি করেও শেষ পর্যন্ত রিয়াল মাদ্রিদ ডুবেছে ব্যক্তিগত ভুলে। দল হিসেবে অন্তত ছন্দপতন হয়নি তাদের। ম্যাচের আগে অধিনায়ক সার্জিও রামোসও এ কথাগুলোই বলেছেন। আর চ্যাম্পিয়নস লিগ মানেই যে মাদ্রিদ সমর্থকদের জন্য আলাদা কিছু- সেটা যোগ করে দিয়ে রামোস তাঁতিয়েও দিয়েছেন সমর্থকদের।

    ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে আকর্ষণ ছিলেন অবশ্য জিদান আর গার্দিওলা। জিদান তার কোচিং ক্যারিয়ার শুরুর আগে একবার গার্দিওলার কাছ থেকে দীক্ষা নিতে জার্মানিতেও গিয়েছিলেন। শীর্ষ পর্যায়ে কোচিং নিয়ে তখন কথা হয়েছিল দুইজনের ভেতর। জিদানের মতে গার্দিওলা বিশ্বের সেরা কোচ, "প্রথমে বার্সেলোনার সঙ্গে, এরপর মিউনিখ, এরপর সিটি- সে সবসময়ই নিজেকে প্রমাণ করেছে। অন্যরা অন্য কথা বলতে পারে, কিন্তু আমার কাছে গার্দিওলাই সেরা কোচ।"

    "কোচ হিসেবে সে যা করেছে তা আমাদের অনুপ্রাণিত করে। আমরা তার দলের বিপক্ষে খেলতে অবশ্য মোটেই ভয় পাচ্ছি না।"

    জিদানের কাছ থেকে গার্দিওলা যতই প্রশাংসার বৃষ্টিতে ভিজুন, স্প্যানিশ কোচ নিজেও জানেন চ্যাম্পিয়নস লিগে সাফল্যের হিসেবে জিদানই এখন সেরা।  রিয়াল মাদ্রিদকে টানা ৩ বার চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতিয়ে জিদান আসলে নিজেকেও কিংবদন্তীর আসনে বসিয়ে ফেলেছেন বহু আগে। দ্বিতীয় দফায় ভঙ্গুর এক রিয়াল মাদ্রিদের দায়িত্ব নিয়ে এখন অনেকটাই গুছিয়ে উঠেছেন জিদান। আর চ্যাম্পিয়নস লিগের নক আউট পর্বের ১২ টাইয়ে এখনও পর্যন্ত কেউ তাকে হারাতে পারেনি। এই রেকর্ড তো যে কোনো কোচের জন্যই ইর্ষনীয়। চ্যাম্পিয়নস লিগে গার্দিওলার রেকর্ডটা সে তুলনায় সাদা-কালো। ৯ বছর আগে সবশেষ ইউরোপ সেরার পুরস্কারটি তুলে ধরার ভাগ্য হয়েছিল তার।

     দলের খবর
    লেভান্তের কাছে হার জিদানের কপালে যতখানি না দুশ্চিন্তার ভাঁজ ফেলেছিল, তার চেয়ে বেশি অনেক বেশি ঝামেলায় ফেলেছে এডেন হ্যাজার্ডের ইনজুরি। সম্ভবত হ্যাজার্ডের মৌসুমটাই শেষ হয়ে গেছে চোটের কারণে। অথচ মাত্র দুই সপ্তাহ আগে ৭১ দিনের বিরতি দিয়ে মাঠে নেমেছিলেন তিনি। জিদানকে দল সাজাতে হচ্ছে হ্যাজার্ডকে ছাড়াই। 

    সিটিতে বড় চোট নেই। তবে আয়মেরিক লাপোর্তেও লম্বা সময় মাঠের বাইরে থেকে কিছুদিন আগে ফিরেছেন। সিটির রক্ষণে তার থাকাটা কতোখানি গুরুত্বপুর্ণ সেটা এতোদিনে সমর্থকেরা টের পেয়ে গেছেন। লিগ শিরোপা হাতছাড়া হয়ে গেছে সিটির। এখন মৌসুম বাঁচাতে এই চ্যাম্পিয়নস লিগের দিকেই তাকিয়ে থাকতে হচ্ছে তাদের।

    সম্ভাব্য একাদশ
    রিয়াল মাদ্রিদ

    কোর্তোয়া, কারভাহাল, ভারান, রামোস, মার্সেলো, ভালভার্দে, কাসেমিরো, ক্রুস, বেল, বেনজেমা, ইস্কো
    ম্যান সিটি
    এডারসন, ওয়াকার, ফার্নান্দিনহো, লাপোর্তে, মেন্ডি, ডি ব্রুইন, রদ্রি, বের্নার্দো, স্টার্লিং, মাহরেজ, আগুয়েরো

    হেড টু হেড
    এর আগের ২ দেখায় দুইবারই ম্যান সিটিকে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। এই ২ ম্যাচে মোট ৫ গোল করেছে তারা।

    প্রেডিকশন
    রিয়াল মাদ্রিদ ২-১ ম্যান সিটি