• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    সংখ্যায় সংখ্যায় : রোনালদোর রেকর্ডে লেভানডফস্কির ভাগ

    চ্যাম্পিয়নস লিগে এ সপ্তাহের যত রেকর্ড... 

    ২৮ 

    চ্যাম্পিয়নস লিগ নক আউট পর্বে সবচেয়ে বেশি জয় পাওয়া কোচ এখন পেপ গার্দিওলা। রিয়াল মাদ্রিদকে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে হারিয়ে কোচিং ক্যারিয়ারের ২৮ তম জয় পেয়েছেন তিনি। ২৭ জয় নিয়ে পরের স্থানে আছেন স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন, হোসে মরিনহো ও কার্লো আনচেলোত্তি।

    ২ 
    ঘরের মাঠে চ্যাম্পিয়নস লিগে শুরুতে এগিয়ে গিয়ে এই নিয়ে মাত্র দ্বিতীয় বারের মতো ম্যাচ হেরেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ২০০৯ সালে সবশেষ এসি মিলান শুরুতে পিছিয়ে পড়েও জয় নিয়ে ফিরেছিল সান্তিয়াগো বার্নাব্যু থেকে।  

    ৩ 
    ২০০৪ সালের পর থেকে চ্যাম্পিয়নস লিগে মাত্র ৩ বার পুরো ম্যাচে একবারও গোলে শট করতে পারেনি জুভেন্টাস। লিঁওর আগে ২০১৪ সালে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ও ২০০৬ সালে আর্সেনালের বিপক্ষে সবশেষ শট অন টার্গেটশুন্য ছিল বিয়াঙ্কোনেরিদের।  

    ৬ 
    ইতালির মাঠে ৬ ম্যাচ ধরে নক আউট পর্বে জয়ের মুখ দেখে না বার্সেলোনা। ৪ হার আর ২ ড্র। ২০০৬ সালে সবশেষ মিলানের বিপক্ষে জিতেছিল বার্সেলোনা। 

    লন্ডনে দুইবার খেলতে এসে ৬ গোল দিয়েছেন সার্জ গ্যানাব্রি। 

    ৯ 
    চ্যাম্পিয়নস লিগে এই মৌসুমের সর্বোচ্চ গোলদাতা রবার্ট লেভানডফস্কি। ১১ গোলের ৯টি করেছেন অ্যাওয়ে ম্যাচে। এক মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগে সবচেয়ে বেশি অ্যাওয়ে গোলের রেকর্ড এখন তারও।ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোও ২০১৩-১৪ মৌসুমে সর্বোচ্চ ৯টি অ্যাওয়ে গোল দিয়েছিলেন। 

    ১২১ 
    নাপোলির ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার পথে এগুচ্ছেন ড্রিস মার্টেনস। বার্সেলোনার বিপক্ষে গোল করে মারেক হামসেকের ১২১ গোলের রেকর্ড ছুঁয়েছেন তিনি। পেছনে ফেলেছেন ডিয়েগো ম্যারাডোনাকেও।  

    ১০ 
    একুশ শতকে বার্নাব্যুতে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ জয়ী কোচ এখন পেপ গার্দিওলা। ডিয়েগো সিমিওনে ও এর্নেস্তো ভালভার্দের ৯ ম্যাচের রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছেন তিনি। 

    ১০০ 
    রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে শততম ম্যাচ খেলেছেন করিম বেনজেমা। ক্লাবটির মাত্র ধষ্ঠ্য ফুটবলার হিসেবে ম্যাচের সেঞ্চুরি হয়েছে তার। সামনে আছেন কেবল- ইকার ক্যাসিয়াস (১৫০), রাউল গঞ্জালেজ (১৩০), সার্জিও রামোস (১২৪*), রবার্তো কার্লোস (১০৭), ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো (১০১)।   

    ১ 
    নাপোলি ও বার্সেলোনার ম্যাচে চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রথমবারের মতো অভিষেক হয়েছে দুই কোচ জেনেরো গাত্তুসো ও কিকে সেতিয়েনের। চ্যাম্পিয়নস লিগের নক আউট পর্বে দুই কোচের এক ম্যাচে অভিষেক হলো এই প্রথমবার।

    প্রথম কোচ হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগে আলাদা দুই ক্লাব নিয়ে বার্নাব্যু থেকে জয় নিয়ে ফিরেছেন গার্দিওলা।  আর সবমিলিয়ে বার্নাব্যুতে দুই ম্যাচ জেতা কোচ আছেন আর একজন। অটমার হিটজফিল্ড।