• বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    মুজিববর্ষে আরও বড় পরিসরে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ

    আবার শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। গত বারের সাফল্যের পর এবার দ্বিতীয় আসর শুরু হচ্ছে ১ মার্চ। বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের সর্ববৃহৎ এই ক্রীড়া প্রতিযোগিতা এবার মুজিববর্ষে হচ্ছে আরও বড় পরিসরে।  ১০১টি বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে এবারের আসরে ৫৮৭টি আসরের জন্য লড়বে প্রায় ৬ হাজারের কাছাকাছি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা। এদের মধ্যে নারী ক্রীড়াবিদ থাকছেন ১২০০ জন। 

    এবারের আসরে সব মিলে থাকছে ১২টি ইভেন্ট। অ্যাথলেটিকস, ফুটবল, ক্রিকেট, বাস্কেটবল, টেবিল টেনিস, ব্যাডমিন্টন, ভলিবল, সাইক্লিং, সাঁতার, হ্যান্ডবলের সঙ্গে এবার নতুন করে যোগ হচ্ছে দাবা ও কাবাডি। সব মিলে ৬৮৭টি পদকের জন্য হবে ৪২টি পৃথক পৃথক প্রতিযোগিতা। এখান থেকে একটি বিশ্ববিদ্যালয় পাবে চ্যাম্পিয়নের স্বীকৃতি। আর একজন করে পুরুষ ও নারী খেলোয়াড় পাবে সেরার পুরস্কার। দেশের ১৩টি বিশ্ববিদ্যালয়ে হবে এবারের আসর। এই ১৩টি স্বাগতিক বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব ফ্যাশন অ্যান্ড টেকনোলোজি, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিরভার্সিটি, ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটি, গণ বিশ্ববিদ্যালয়, ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি, গ্রিন ইউনিভার্সিটি, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি, ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। এ ছাড়া হাতিরঝিলে হবে সাঁতার ও সাইক্লিং। 

    যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এবং স্পেলবাউন্ড লিও বার্নেটের প্রস্তাবনার আলোকে ১ মার্চ বর্ণাঢ়্য এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শুরু হচ্ছে আসর। ১৮ এপ্রিল সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে খেলাধূলার চর্চা উৎসাহিত করা ও ক্রীড়াসুলভ মনোভাব তৈরি করার লক্ষ্য নিয়ে এবারের আয়োজনের প্রতিপাদ্য, 'সোনার বাংলা গড়তে হলে সোনার মানুষ চাই।' গত ১২ ফেব্রুয়ারি মশালযাত্রা দিয়ে শুরু হয়েছে এবারের এই আয়োজনের। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল সাংগঠিক কমিটির সভাপতি। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন