• বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ
  • " />

     

    সেঞ্চুরি ও ৭ উইকেটে জাহাঙ্গীরনগরকে জেতালেন অময় বিশ্বাস

    শুরুতে ব্যাট করে সেঞ্চুরি। পরে বল করতে নেমে ৭ উইকেট। বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় চ্যাম্পিয়নশিপে আজ ব্যাটে-বলে এমন দারুণ অলরাউন্ড পারফরম্যান্স দেখিয়েছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অনয় বিশ্বাস অপু। তার এমন পারফরম্যান্সে আজ বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপে ক্রিকেটের দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে জাহাঙ্গীরনগর ১৭৭ রানের বড় জয় পেয়েছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপক্ষে।


    ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মাঠে আজ নামার পর থেকেই ঝড় শুরু করেছেন বাঁহাতি ওপেনার অনয় বিশ্বাস ও অন্য ওপেনার সোহানুর রহমান। মাত্র ৫০ বলে ১০১ রান করেছেন অনয়,  সোহানুর ৩২ বলে করেছেন ৬৪। শেষ দিকে বায়েজীদ আমিনের ১৪ বলে ৪৬ রানে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ২৬৩ রান করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।


    এই রান তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই উইকেট হারাতে থাকে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। এবার অনয়ের বোলিং তোপের মুখে পড়েছে তারা। ডানহাতি ফাস্ট বোলিংয়ে মাত্র ৩.২ ওভার বল করে ১০ রান দিয়ে ৭ উইকেট তুলে নেন অনয়। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় অলআউট হয়ে যায় ৮৬ রানেই। অনয় বিশ্বাসের এই পারফরম্যান্সের জন্য তাকে বিশেষ পুরস্কার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে টুর্নামেন্টের অন্যতম পৃষ্ঠপোষক ইউনাইটেড গ্রুপ।


    বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে এটিই সেরা অলরাউন্ড পারফরম্যান্স। প্রসঙ্গত, গত বছর ভারতের কর্ণাটক প্রিমিয়ার লিগে কৃষ্ণাপ্পা গৌতম সেঞ্চুরির পাশাপাশি ১৫ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ৮ উইকেট। টি-টোয়েন্টিতে যেটি এখন পর্যন্ত সেরা অলরাউন্ড পারফরম্যান্স হিসেবে ধরা হয়।


    পোলারের পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের সর্ববৃহৎ এই ক্রীড়া প্রতিযোগিতা এবার মুজিববর্ষে হচ্ছে আরও বড় পরিসরে।  ১০১টি বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে এবারের আসরে লড়বে প্রায় ৬ হাজারের কাছাকাছি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা। এদের মধ্যে নারী ক্রীড়াবিদ থাকছেন ১২০০ জন।


    এবারের আসরে সব মিলে থাকছে ১২টি ইভেন্ট। অ্যাথলেটিকস, ফুটবল, ক্রিকেট, বাস্কেটবল, টেবিটেনিস, ব্যাডমিন্টন, ভলিবল, সাইক্লিং, সাঁতার, হ্যান্ডবলের সঙ্গে এবার নতুন করে যোগ হচ্ছে দাবা ও কাবাডি। সব মিলে ৬৮৭টি পদকের জন্য হবে ৪২টি পৃথক পৃথক প্রতিযোগিতা। এখান থেকে একটি বিশ্ববিদ্যালয় পাবে চ্যাম্পিয়নের স্বীকৃতি। আর একজন করে পুরুষ ও নারী খেলোয়াড় পাবে সেরার পুরস্কার। দেশের ১৩টি বিশ্ববিদ্যালয়ে হবে এবারের আসর।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন