• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    মৌসুম বাতিল হয়ে যাওয়ার আলোচনা শুনে ভয় পেয়েছিলেন ক্লপ

    একটি লিগ শিরোপার অপেক্ষায় লিভারপুলের ৩০ বছর কেটে গেছে। এই দীর্ঘ সময়ে তীরে এসে তরী ডোবার ঘটনাও ঘটেছে বেশ কয়েকবার। গত মৌসুমেও অনেক কাছে এসেও ছুঁয়ে দেখা হয়নি শিরোপা। তবে এবার অনেক আগেই ইয়ুর্গেন ক্লপের দল নিজেদের ধরাছোঁয়ার বাইরে নিয়ে গিয়েছিলেন। এরপর অল রেডদের শিরোপা জয় যখন সময়ের ব্যাপার, হঠাৎ করোনাভাইরাসে বন্ধ হয়ে যায় লিগ শিরোপা। সাধারণ অলরেড ভক্তদের মতো ক্লাবটির ম্যানেজার ক্লপের মনেও তখন দুশ্চিন্তা বাসা বেঁধেছিল, হয়ত এবারও শিরোপা হাতছোয়া দূরত্বেই থেকে যাবে, ছুঁয়ে দেখা হবে না আর।

    শুক্রবার ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে ক্লপ সেই দুশ্চিন্তার কথা স্বীকার করেছেন, “মৌসুম বাতিল করে দেওয়া নিয়ে যখন আলোচনা শুরু হয়, তখন আমি চিন্তিত হয়ে পড়েছিলাম। এমনটা হলে আসলেই মেনে নেওয়া খুব, খুব কঠিন হত। আমি সেই আলোচনার খবর শুনে শারীরিকভাবেও কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়েছিলাম। তবে যখন খেলা পুনরায় শুরুর ব্যাপারে নিশ্চয়তা পেলাম, তখন বেশ স্বস্তি পেয়েছি। এই বিষয় নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে, আর তখন প্রায়ই মৌসুম বাতিল করে দেওয়ার কথা উঠত। শেষ পর্যন্ত যখন চূড়ান্তভাবে মৌসুম বাতিলের বিষয়টি আলোচনার বিষয়বস্তু থেকে সরে যায়, তখন নিশ্চিন্ত হয়েছি।”


    “যদি আমরা এই মৌসুমে আর খেলতে না পারতাম, আর ম্যাচপ্রতি পয়েন্ট হিসেব করে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হত, তাহলে আমরাই শিরোপা জিততাম। তবে এখন আর সেই সমীকরণ নেই। আমাদের মাঠে খেলেই ট্রফি জিততে হবে। শিরোপা নির্ধারণ হবে মাঠে, খেলায় এমনটাই তো হওয়া উচিৎ। আমরা আবারও মাঠে নামতে তৈরি।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন