• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু এবার কার পায়ে?

    লিওনেল মেসি আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো আরও অনেক পুরস্কারের মতো ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শ্যুও নিজেদের করে নিয়েছেন অনেক দিন থেকে। লুইস সুয়ারেজও অবশ্য দুইবার গত এক দশকে ভাগ বসিয়েছেন এই পুরস্কারে। এখন পর্যন্ত রবার্ট লেভানডফস্কি বাকিদের চেয়ে বেশ এগিয়ে, তবে রোনালদো বা ইমমোবিলের কাছে শেষ পর্যন্ত যেতেই পারে।


     

    ডর্টমুন্ড আর বায়ার্নের হয়ে গত আট বছর ধরেই লেভানডফস্কি দুর্দান্ত ফর্মে, বুন্দেসলিগার সর্বোচ্চ গোলদাতাও হয়েছেন বেশ কয়েকবার। তবে ইউরোপের সবচেয়ে বেশি গোলদাতার পুরস্কারটা কাছাকাছি গিয়েও পাওয়া হয়নি। এই মৌসুমেও লেভা দারুণ ফর্মে, সদ্যসমাপ্ত বুন্দেসলিগায় বায়ার্নের হয়ে করেছেন ৩৪ গোল। তবে জার্মান লিগ শেষ হয়ে যাওয়ায় আপাতত নিজের গোলসংখ্যা বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ নেই তার।

    যেটি আছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো বা চিরো ইমমোবিলের। এখন পর্যন্ত ইমমোবিলেই এগিয়ে আছেন, ২৯ গোল নিয়ে সিরি আর সবচেয়ে বেশি গোলও লাৎসিওর এই স্ট্রাইকারের। এর আগে আরও দুইবার সিরি আর সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছিলেন ইমমোবিলে, তবে গোল্ডেন শ্যু পাওয়া হয়নি।

    রোনালদোর জন্য এই পুরস্কারটা অচেনা নয়, এর আগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে মোট চার বার এই পুরস্কার জিতেছেন। তবে জুভেন্টাসের হয়ে এবার সেটা পেলে সেটা অন্যরকমই হওয়ার কথা তার কাছে। সিরি আ তে ২৮ গোল হয়েছে এবার, জুভেন্টাসেই গত ৬০ বছরে এই কীর্তি কারও নেই। লিগ নতুন করে শুরু হওয়ার পর আছেন দারুণ ফর্মে, কালও দুইটি গোল পেয়েছেন। ইমমোবিলে আর রোনালদো দুজনেই টপকে যেতে পারেন লেভানডফস্কিকে। সেজন্য ইমমোবিলের বাকি ৬ ম্যাচে করতে হবে ৬ গোল, আর রোনালদোর সমান ম্যাচে করতে হবে ৭টি গোল।

    রোনালদোর সমান ২৮ গোল আছে লাইপজিগের টিমো ভের্নারেরও। তবে তার এই পুরস্কার জেতার সম্ভাবনা নেই, বুন্দেসলিগা তো এই মৌসুমের জন্য শেষ। ক্যারিয়ারের এক মৌসুমে এত গোল করেননি আগে ভের্নার, তিন বছর আগে সর্বোচ্চ ২১ গোল করেছিলেন বুন্দেসলিগায়। এবারের ফর্মের পর এর মধ্যেই চেলসি নিয়ে এসেছে তাকে, নতুন ক্লাবের হয়ে কতটা কী করতে পারবেন?

    পাঁচ নম্বর নামটিও আপনার চেনা, এই মৌসুমে যে এরলিং হালান্ড মানেই হইচই। রেড বুলসের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে হ্যাটট্রিক করে তোলপাড় ফেলে দিয়েছিলেন, এরপর ডর্টমুন্ডে আসার পরও ফর্মটা ধরে রেখেছেন এই টিন এজার। প্রশ্ন হতে পারে, ২৯ গোল করেও কেন তালিকার পাঁচে কেন? রেড বুলের ইউয়েফা কোয়েফিসিয়েন্ট কম হওয়ায় তাদের হয়ে যে ১৬টি গোল করেছেন, তার জন্য পাচ্ছেন ২৪ পয়েন্ট। আর ডর্টমুন্ডের হয়ে ১৩ গোল করার জন্য আরও ২৬ পয়েন্ট, সব মিলে পাচ্ছেন ৫০। সেজন্য বাকিদের চেয়ে কিছুটা পেছনেই এই তরুণ।

    এদের বাইরে আপাতত অন্য কারও সম্ভাবনা খুব কম। লিওনেল মেসি লা লিগায় এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ২২ গোল করেছেন, তবে বাকি দুই ম্যাচে লেভানডফস্কিকে ছাড়ানোটা প্রায় অসম্ভবই তার জন্য।  যেরকম খুব কঠিন ইংলিশ লিগের এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ গোলদাতা জেমি ভার্ডি বা পিয়েরে এমেরিক অবামেয়াংয়ের জন্যও।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন