• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    আর্থুরের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেবে বার্সেলোনা

    ‘ক্লাবের প্রতি অশ্রদ্ধা’ দেখানোয় বার্সেলোনার ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার আর্থুর মেলোর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ক্লাবটির প্রেসিডেন্ট জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ। গত জুলাইতে এক ইতালিয়ান জায়ান্ট জুভেন্টাসের সঙ্গে এক চুক্তির মাধ্যমে আর্থুরকে ইতালিতে পাঠিয়ে তার বদলে মিরালেম পিয়ানিচকে দলে টানার সিদ্ধান্ত নেয় বার্সেলোনা। চলতি মৌসুম শেষ হলে এই দলবদল কার্যকর হওয়ার কথা। তবে এক সপ্তাহের ছুটি নিয়ে ব্রাজিলে গিয়ে এরপর আর বার্সেলোনায় ফেরেননি তিনি।

     


    এরপর থেকেই ক্লাবের সঙ্গে দ্বন্দ্ব শুরু হয় তার। আর্থুর বার্সেলোনার সঙ্গে তার চুক্তি এখনই শেষ করে দিতে চান, তবে বার্সা মৌসুম শেষ হওয়ার আগে তাকে ছাড়তে চায় না। বিষয়টি দিয়ারিও স্পোর্টের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে আর্থুরের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন বার্তোমেউ, “সে মনে করছে তার বার্সা অধ্যায় শেষ, এজন্য সে ক্লাবে আর না ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এটি তার সিদ্ধান্ত। কেউ তাকে এমনটা করার অনুমতি দেয়নি। আমার মনে হয়, সে ব্রাজিলে আরও কিছুদিন থেকে ছুটি কাটাতে চায়। আর তাই তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নিতে আমরা বাধ্য হচ্ছি। কারণ মৌসুম শেষ হওয়া পর্যন্ত আর্থুরের বার্সার সঙ্গে থাকার কথা এবং চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলার কথা। পিয়ানিচও জুভেন্টাসের হয়ে একই কাজ করবে।”

    ক্লাব এবং সতীর্থদের প্রতি আর্থুর মোটেই শ্রদ্ধা প্রদর্শন করছে না আর্থুর, এমনটা উল্লেখ করে তার নিন্দা করেন বার্তোমেউ, “দুই ক্লাবের মাঝে এটা নিয়ে চুক্তি হয়েছিল। সে তার সতীর্থদের এবং ক্লাবের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেনি, কারণ দল চ্যাম্পিয়নস লিগে ভালো করতে চায়। এটি অযৌক্তিক এবং অগ্রহণযোগ্য।”

    ২০১৮ সালে ব্রাজিলিয়ান ক্লান গ্রেমিও থেকে বার্সেলোনায় এসেছিলেন আর্থুর। এই মৌসুমে এখন পর্যন্ত ২৮ ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ২৭ জুন সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে শেষ মাঠে নেমেছিলেন আর্থুর। লিগের শেষ ছয় ম্যাচে আর মাঠে নামা হয়নি তার।

    ৮ আগস্ট চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে নাপোলির বিপক্ষে মাঠে নামবে বার্সেলোনা।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন