• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    ফাইনালে হারের পর প্যারিসে পুলিশের সঙ্গে পিএসজি সমর্থকদের দাঙ্গা

    লাইপজিগের বিপক্ষে সেমিফাইনালে জয়ের পরও পিএসজি সমর্থকদের সঙ্গে বেধে গিয়েছিল পুলিশের। ৩৬ জন পিএসজি সমর্থককে হাজতেও যেতে হয়েছিল। এবার ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে হারের পরেও একই চিত্র। প্যারিসের বিভিন্ন জায়গায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে দলটির সমর্থকরা।


    সামাজিক দূরত্বের বিধান পালন না করা এবং মাস্ক পরিধান না করায় শম্পস এলিসি সংলগ্ন একটি পানশালায় অভিযান চালায় দাঙ্গা পুলিশ। এছাড়া পিএসজির স্টেডিয়াম পার্ক দেস প্রিন্সের বাইরেও পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় সমর্থকদের।

    ফ্রান্সে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে করোনাভাইরাসে সংক্রমণের হার ক্রমাগত হারে বেড়ে চলায় মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছিল। কিন্তু পিএসজির ‘ঐতিহাসিক’ চ্যাম্পিয়নস লিগ ক্যাম্পেইনের সময় সমর্থকরা ঘরে বসে থাকতে পারেননি। ক্লাবের ৫০ বছরের ইতিহাসে প্রথমবার চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল একসাথে উপভোগ করতে চাইছিলেন তারা। কিন্তু সেটি করতে গিয়ে করোনাকালের নিয়ম-কানুনের তোয়াক্কাই করেননি পিএসজি সমর্থকরা। আর সে কারণেই পুলিশের সঙ্গে বারবার সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়তে হয়েছে তাদের।

    ফ্রান্সে দলের খেলা দেখতে গিয়ে অথবা জয় উদযাপন করতে হট্টগোলের ঘটনা অবশ্য এবারই প্রথম নয়। ২০১৮ বিশ্বকাপ জয়ের পরও দেশটিতে মধ্যরাতে সংঘাত এবং লুটপাট শুরু হয়েছিল। সেটি ঠেকাতে পরে বেশ হিমশিম খেতে হয়েছিল পুলিশকে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন