• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    মেসি-রোনালদো মুখোমুখি দেখায় এগিয়ে কে?

    ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো আর লিওনেল মেসি একে অপরের বিপক্ষে খেলবেন- এটাই যেন অধবারিত নিয়ম হয়ে গিয়েছিল একটা সময়। লা লিগায় দুইজন নিয়মিতই মুখোমুখি হতেন। রোনালদো জুভেন্টাসে চলে যাওয়ার পর দুই মহারথীর লড়াইয়ের শূন্যতা কিছুটা হলেও প্রভাব ফেলেছে এল ক্লাসিকোতেও। ২০১৮ এর মে মাসের পর একে অপরের বিপক্ষে আর খেলাও হয়নি মেসি-রোনালদোর। সেই সুযোগ এবার মিলছে আবার। গ্রুপ পর্বে জুভেন্টাস ও বার্সেলোনা একই গ্রুপে পড়ার পর চ্যাম্পিয়নস লিগের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হয়ে গেছে এখন এই দুইজনের লড়াই। 


    চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বে কখনো একে অন্যের বিপক্ষে না খেললেও নকআউট পর্বে মেসি-রোনালদো পাঁচবার মুখোমুখি হয়েছেন। চ্যাম্পিয়নস লিগ সাফল্যের দিক দিয়ে মেসির চেয়ে রোনালদো এগিয়ে থাকলেও এই আসরে দুজনের মুখোমুখি লড়াইয়ে মেসি পরিষ্কারভাবে এগিয়ে আছেন। পাঁচ ম্যাচের মধ্যে মেসি জিতেছেন দুই ম্যাচ আর রোনালদো একটি। অপর দুটি ম্যাচ ড্র হয়েছিল। 

    আর চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে রেকর্ড ১২৮ গোল করলেও প্রতিপক্ষ হিসেবে মেসির বিপক্ষে ওই ৫ ম্যাচে তেমন সুবিধা করতে পারেননি রোনালদো। মেসি তিনবার গোল করলেও চ্যাম্পিয়নস লিগে রোনালদো একবারও মেসির বার্সার বিপক্ষে বল জালে জড়াতে পারেননি।

    ক্যারিয়ারজুড়ে জাতীয় দল এবং ক্লাবের হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মোট ৩৫ বার মুখোমুখি হয়েছেন মেসি-রোনালদো। এখানেও রোনালদোর চেয়ে এগিয়ে আছেন মেসি। ৩৫ ম্যাচের মাঝে মেসি জয়ের হাসি হেসেছেন ১৬ বার আর রোনালদো ১০ বার। আর অপর নয়টি ম্যাচ হয়েছে ড্র।

    তবে এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগে ভিন্ন প্রেক্ষাপটে হাজির হবেন দুই কিংবদন্তি। গত আসরের দুর্যোগের পর এবার মেসির বার্সেলোনার সামনে চ্যালেঞ্জ থাকবে ঘুরে দাঁড়ানোর। দলবদল নাটকের পর অনেকটা ইচ্ছার বিরুদ্ধে ক্লাবে থেকে যাওয়া মেসির সামনেও বার্সেলোনার হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা উঁচিয়ে ধরার এটাই শেষ সুযোগ হতে পারে।

    আর রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে টানা তিনবার চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতা রোনালদো জুভেন্টাসে এসে নিজের প্রিয় আসরে ব্যর্থ হয়েছেন প্রথম দুই মৌসুমে। তৃতীয়বারের চেষ্টায় সফল হবেন কি না সে প্রশ্নের জবাব বার্সেলোনার বিপক্ষে ম্যাচে হয়ত মিলবে না। তবে মেসির বার্সাকে হারাতে পারলে নিঃসন্দেহেই বড় প্রেরণা যোগ হবে রোনালদোর!

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন