• ক্রিকেটে ফেরা
  • " />

     

    যে কারণে ওয়ানডে টুর্নামেন্টে নেই মাশরাফি

    যে কারণে ওয়ানডে টুর্নামেন্টে নেই মাশরাফি    

    মূলত প্রস্তুতির ঘাটতির সঙ্গে কোয়ারেন্টাইন-সংক্রান্ত কারণেই বিসিবির তিন দলের ওয়ানডে টুর্নামেন্টে খেলছেন না সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তবে সামনে বিসিবির পরিকল্পনায় থাকা কর্পোরেট টি-টোয়েন্টি লিগে খেলবেন তিনি। 

    ১১ অক্টোবর থেকে ৩টি দল নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ক্রিকেট আনুষ্ঠানিকভাবে ফেরাচ্ছে বিসিবি, দুটি দুইদিনের প্রস্তুতি ম্যাচের পর। জাতীয় দল, এইচপি ও অ-১৯ বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্যদের নিয়ে গড়া হয়েছে এ তিনটি দল। টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক থেকে শুরু করে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা ইরফান শুক্কুর- আছেন অনেকেই। তবে নেই মাশরাফি। 

    মার্চে জিম্বাবুয়ে সিরিজ দিয়ে ওয়ানডে অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিয়েছেন মাশরাফি। তবে ক্রিকেট চালিয়ে যাওয়ার কথা তিনি বলে এসেছেন বরাবরই। ২০১৭ সালে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নেওয়া মাশরাফি বিপিএলের শেষ মৌসুমেও খেলেছেন। সামনেও খেলার আশা প্রকাশ করেছেন। 


    ৩ দলের ওয়ানডে টুর্নামেন্ট : ফিক্সচার, স্কোয়াড, কোথায় দেখা যাবে


     

    ২০০৯ সালে সর্বশেষ টেস্ট খেললেও এ ফরম্যাট থেকেও আনুষ্ঠানিকভাবে অবসর নেননি মাশরাফি। মাঝে খেলেছেন দীর্ঘ সংস্করণেও। শেষ ২০১৮ সালে বিসিএলে সাউথ জোনের হয়ে খেলেছিলেন তিনি।মার্চে প্রিমিয়ার লিগের এক রাউন্ড হয়ে যাওয়ার পর বন্ধ ছিল দেশের ক্রিকেট, সেই রাউন্ডে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের হয়ে খেলেছিলেন মাশরাফি।

    শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিত হয়ে যাওয়ার পর ঘরোয়া ক্রিকেট ফেরানোর উদ্যোগ নিয়েছে বিসিবি, এই ওয়ানডে টুর্নামেন্টের পর হওয়ার কথা টি-টোয়েন্টির কর্পোরেট লিগ, যেটি শুরু হতে পারে নভেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে। প্রিমিয়ার লিগ শুরু হবে কিনা, সে সিদ্ধান্ত অবশ্য এখনও নেয়নি বিসিবি। 

    তিন দলের টুর্নামেন্ট চূড়ান্ত হওয়ার পর মাশরাফির এখানে না খেলার কারণ ব্যাখ্যা করেছেন বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন, “তিন দলের টুর্নামেন্টায় খেলবেনা কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে খেলবে। তিন দলেরটায় যে খেলবেনা, ও যে খেলতে চায়না তা না। ওর প্রস্তুতি-- ও আসলে হঠাৎ করে শুনেছে। প্রথম কথা হল ওদের তো কোয়ারেন্টাইনে রাখতে হবে। কোয়ারেটাইন, সঙ্গে ওর প্রস্তুতি ও ফিটনেস-- এসবে সময় লাগবে সেজন্য। কিন্তু এরপর যে কোনো টুর্নামেন্টেই ও খেলবে।”

    গত ২০ জুন করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছিলেন মাশরাফি, সঙ্গে তার স্ত্রীও। এরপর ১৪ জুলাই তার নেগেটিভ হওয়ার খবর জানিয়েছিলেন তিনি। তবে বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিয়েছিলেন তিনি। 

    এর আগে মাশরাফির না খেলার কারণ বলেছিলেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। বিডিনিউজ২৪কে তিনি বলেছিলেন, “মাশরাফি তো আপাতত সিস্টেমে নেই, এই ক্যাম্প বা প্র্যাকটিসে সে নেই। তিন দলের এই সিরিজে আমরা কেবল সিস্টেমের মধ্যে থাকাদেরই নেব। ক্যাম্পে যারা আছেন, তাদের সঙ্গে হাই পারফরম্যান্স দলের কিছু ছেলেকে নেওয়া হবে। তিন দলে ভাগ করে দেওয়া হবে ওদের।”

    সামনের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের নিজের খেলার ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন মাশরাফি নিজেও। দ্য ডেইলি সান তাকে উদ্ধৃত করেছে এভাবে, “অবশ্যই আমি খেলব। নান্নু ভাই (মিনহাজুল) ফোন করেছিলেন, কর্পোরেট লিগের তালিকায় রাখার জন্য অনুরোধ করেছি তাকে আমি।

    “শুধু টি-টোয়েন্টি বা ওয়ানডে নয়, আমি চারদিনের ম্যাচও খেলব, কারণ এখান থেকে আমি অবসর নিইনি”, বলেছেন মাশরাফি। 
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন