• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    নকআউটে লিভারপুল, অ্যাটলেটিকোকে অপেক্ষায় রাখল বায়ার্ন

    শাখতারের কাছে রিয়ালের জয়টাই ছিল কালকের চ্যাম্পিয়নস লিগের হাইলাইটস, তবে নাটকীয়তা ছিল অ্যাটলেটিকো-বায়ার্ন ম্যাচেও। অন্যদিকে ম্যান সিটির পর এবার লিভারপুলও চলে গেছে নকআউট পর্বে।

     

    চোটজর্জর লিভারপুলকে কার্টিস জোন্সের স্বস্তি

    আয়াক্সের সাথে হার এড়াতে পারলেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত হয়ে যেত লিভারপুলের। এমনিতেই একের পর এক চোটে একাদশ সাজাতেই হিমশিম খাচ্ছেন ইয়ুর্গেন ক্লপ, কাল ম্যাচ শুরুর আগেই আরেক দফা ধাক্কা। এবার হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে ছিটকে গেলেন এলিসন, তার জায়গায় চ্যাম্পিয়নস লিগে অভিষেক হলো ২২ বছর বয়সী গোলরক্ষক কোয়াইচিন কেহলেরের।

    অনেকটা খেলার ধারার বিপরীতেই ৫৮ মিনিটে গোল পেয়ে যায় লিভারপুল। নেকো উইলিয়ামসের ক্রসটা আয়াক্স গোলরক্ষকের হাত ফসকে গেলে ফার পোস্টে সেটা পেয়ে যান কার্টিস জোন্স। গোল করে দলকে এগিয়ে দেন। তবে ক্লপ খুশি হবেন তার তরুণ গোলরক্ষকের পারফরম্যান্স দেখে। ম্যাচের শুরুতেই দারুণ দুইটি সেভ করেছেনতবে আসল কাজটা করেছেন শেষ দিকে। ক্লস ইয়ান হান্টেলারকে পয়েন্ট ব্ল্যাংক থেকে ঠেকিয়ে নিশ্চিত করেছেন লিভারপুলের জয়। ১২ পয়েন্ট নিয়ে লিভারপুলই হতে যাচ্ছে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। মিডশিলানের সাথে ১-১ গোলে ড্র করে ৮ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আটালান্টা, ৭ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে আয়াক্স।

     

    পেনাল্টি-দুঃস্বপ্নে অপেক্ষায় অ্যাটলেটিকো

    নকআউট পর্ব প্রায় নিশ্চিত হয়েই গিয়েছিল অ্যাটলেটিকোর। বায়ার্নের বিপক্ষে জয়টা পেয়েই যাচ্ছিল, কিন্তু ৮৬ মিনিটে পেনাল্টি পেয়ে যায় বায়ার্ন। গোল করে সমতায় ফেরান টমাস মুলার, ১-১ গোলে ড্র হয় ম্যাচ। নকআউট পর্বে ওঠার জন্য তাই শেষ ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হচ্ছে অ্যাটলেটিকোকে, সেজন্য সালজবুর্গের সঙ্গে অন্তত ড্র করতে হবে তাদের।

    নিজেদের মাঠে জোয়াও ফেলিক্সের গোলে ২৬ মিনিটেই এগিয়ে গিয়েছিল অ্যাটলেটিকো। বায়ার্ন আগেই নকআউটে উঠে যাওয়ায় কাল নিয়মিতদের অনেকেই ছিলেন বিশ্রামে। অ্যাটলেটিকোই দাপিয়ে খেলছিল, কিন্তু গোলের সেরকম পরিষ্কার সুযোগ আর সৃষ্টি করতে পারেনি। শেষ দিকে গোল খেয়ে আর জয় পাওয়া হয়নি। ৫ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপে দুইয়ে আছে তারা, ৪ পয়েন্ট নিয়ে তিনে সালজবুর্গ। আর বায়ার্ন গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আগেই।

     

    ম্যান সিটির সঙ্গে উঠল পোর্তোও

    আগের ম্যাচেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত হয়েছিল সিটির। কাল পোর্তোর সঙ্গে গোলশূন্য ড্রয়ের পর নিশ্চিত হলো দুই দলই উঠছে নকআউট পর্বে। পেপ গার্দিওলার দল কালও প্রাধান্য বিস্তার করেছিল, কিন্তু শেষ পর্যন্ত জয়টা পায়নি। ১৩ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষেই আছে সিটি, আর ১০ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে পোর্তো।  

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন