• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    ৭৫০ এর পথে মেসিকে ছাড়ালেন রোনালদো, জিরুর চার গোল

    রোনালদোর ৭৫০

    ডায়নামো কিয়েভের বিপক্ষে ৩-০ গোলের জয় পেয়েছে জুভেন্টাসের। এই ম্যাচের আগেই অবশ্য শেষ ষোলো নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল জুভেন্টাসের। চোখটা ছিল রেফারি স্টেফানি ফ্র্যাপার্তের ওপর, প্রথম নারী রেফারি হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোনো ম্যাচ পরিচালনা করতে নেমেছিলেন কাল। ফ্র্যাপার্টকে অবশ্য তেমন লক্ষ্য করা যায়নি, রেফারির জন্য সেটা অবশ্য ভালোই।

     

    এর মধ্যেই রোনালদো গড়েছেন দারুণ একটা কীর্তি। ৫৭ মিনিটে ট্যাপ ইন করে গোল পেয়েছেন, ক্যারিয়ারে যা তার ৭৫০তম গোল। ২০১৯ সালের অক্টোবরে পেয়েছিলেন ৭০০ গোল, এক বছর পরেই হয়ে গেল আরও ৫০টি গোল। এই ৭৫০ গোলের ৭৫টি জুভেন্টাসের জার্সিতে, সেটিও ৩৩ পেরুনোর পর।

     
     
     
     
     
     
     
     
     
     
     
     
     
     
     
     

    A post shared by Cristiano Ronaldo (@cristiano)

    রোনালদো অবশ্য কাল আরও দুইটি কীর্তি গড়েছেন। ৭৫০ তম গোলটা ছিল চ্যাম্পিয়নস লিগে ঘরের মাঠে ৭১তম গোলও। ছাড়িয়ে গেছেন লিওনেল মেসির ৭০ গোলের রেকর্ড। সব মিলে চ্যাম্পিয়নস লিগে রেকর্ড ১৩২টি গোল রোনালদরই, গোল করেছেন ভিন্ন ভিন্ন ৩৩টি প্রতিপক্ষের বিপক্ষে। টুর্নামেন্টের সবচেয়ে বেশি ৪১টি অ্যাসিস্টও তার।

    এমন একটা কীর্তি গড়ার পর ইন্সটাগ্রাম, টুইটারে পোস্ট দিয়ে ভক্তদের ধন্যবাদ দিয়েছেন রোনালদো।

    জুভেন্টাসের হয়ে কাল অন্য দুইটি গোল করেছেন ফেদেরিকো চিয়েসা ও আলভারো মোরাতা।

     

    পুসকাসের পর জিরু

    ক্রিশ্চিয়ান পুলিসিচ দলে ফিরেছেন, সেভিয়াকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করেছে চেলসি, তবে এই দিনের সব আলো ছিল অলিভিয়ের জিরুর ওপর। চার গোল করে যে হয়ে গেছেন ইতিহাসের অংশ!

    ৩৪ বছর বয়সী জিরু চেলসির একাদশে এখন নিয়মিত নন। তবে কাল সুযোগ পেয়ে দিয়েছেন আস্থার প্রতিদান। প্রথমার্ধে গোল দিয়েছেন একটি, বাকি তিনটি দিয়েছেন দ্বিতীয়ার্ধে। সর্বশেষ ১৯৬৫ সালে জিরুর চেয়ে বেশি বয়সে চ্যাম্পিয়নস লিগে হ্যাটট্রিক পেয়েছিলেন কেউ। সেই কীর্তিটা ছিল কিংবদন্তি ফেরেংক পুসকাসের।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন