• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    নেইমারের হ্যাটট্রিক, আগুয়েরোর ফেরা, জেরার্ডকে ছাড়িয়ে সালাহ

    নেইমারের হ্যাটট্রিক, আগুয়েরোর ফেরা, জেরার্ডকে ছাড়িয়ে সালাহ    

    রিয়ালের নকআউট পর্বে ওঠাটাই ছিল কালকের দিনের মূল আকর্ষণ। এর বাইরে লিভারপুল, ম্যান সিটি, বায়ার্নের কাজ নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল আগেই, কাল সালজবুর্গকে হারিয়ে অসমাপ্ত কাজটা সেরে রেখেছে অ্যাটলেটিকোও। আর নেইমারের হ্যাটট্রিকে পিএসজি হয়েছে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন।

     

    জেরার্ডকে ছাড়িয়ে সালাহ

     

    ম্যাচের তখনও ১ মিনিট হয়নি, এর মধ্যেই হয়ে গেছে রেকর্ডটা। মো সালাহ গোল করে কাল মিডজিলান্ডের বিপক্ষে শুরুতেই এগিয়ে দিয়েছেন লিভারপুলকে। চ্যাম্পিয়নস লিগে এটাই সালাহর দ্রুততম গোল। তার চেয়েও বড় কথা, স্টিভেন জেরার্ডকে ছাড়িয়ে এখন চ্যাম্পিয়নস লিগে সালাহই লিভারপুলের সর্বোচ্চ গোলদাতা। কালকের পর সালাহর গোল এখন ২২টি, ছাড়িয়ে গেছেন ২১ গোল করা জেরার্ডকে।

    নকআউট পর্ব আগেই নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় কালকের ম্যাচে পরীক্ষা নিরীক্ষার সুযোগ পেয়েছিলেন ক্লপ। মূল একাদশের অনেককে বিশ্রাম দিয়ে নামিয়েছিলেন তরুণ দল। কালকের দলের গড় বয়স ছিল প্রায় ২৪, চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে এত তরুণ দল নিয়ে আগে মাঠে নামেনি লিভারপুল। চোট থেকে ফিরে অধিনায়কের আর্মব্যান্ড পরেছেন তরুণ রাইটব্যাক ট্রেন্ট আলেকজান্ডার আরনল্ড। ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত ড্র হয়েছে ১-১ গোলে। এই গ্রুপের আরেক ম্যাচে আয়াক্সকে ১-০ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয় দল হিসেবে নকআউট পর্বে জায়গা করে নিয়েছে গত বারের কোয়ার্টার ফাইনালিস্ট আটালান্টা।

     

    ফিরে গোল আগুয়েরোর

    লিভারপুলের মতো ম্যান সিটির গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন নিশ্চিত হয়েছিল আগেই, কাল পেপ গার্দিওলাও নিয়মিত একাদশের অনেককে বিশ্রাম দিয়েছিলেন। মার্শেইয়ের বিপক্ষে তার দলের অবশ্য ৩-০ গোলে জিততে সমস্যা হয়নি।

    দ্বিতীয়ার্ধে ফেরান তোরেসের গোলে গিয়ে যায় সিটি। এরপর বদলি হিসেবে নামেন আগুয়রো, আরেক দফা চোট কাটিয়ে ফিরলেন মাঠে। নামার মিনিট দশেকের মধ্যেই গোল করে এগিয়ে দিয়েছেন সিটিকে। আরেক বদলি রাহিম স্টার্লিং ম্যাচের শেষ দিকে গোল করে বড় জয় নিশ্চিত করেছে সিটির।

    গ্রুপের দ্বিতীয় দল হিসেবে আগেই উঠে গিয়েছিল পোর্তো। কাল তারা ২-০ গোলে হারিয়েছে অলিম্পিয়াকসকে। গ্রিক ক্লাবটি তৃতীয় হয়ে খেলবে ইউরোপা, মার্শেই গ্রুপ পর্ব শেষ করেছে চতুর্থ হয়ে।

    নেইমারের হ্যাটট্রিক

    বাসাকসেহিরের সাথে পিএসজির ম্যাচটা বর্ণবাদের অভিযোগে আগের দিন পণ্ড হয়েছিল। সেই সহকারী রেফারি মাঠে নামেননি কাল, ইউয়েফা তাকে ১০ ম্যাচ নিষিদ্ধ করতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে।

    কাল অবশ্য আর কোনো অঘটন হয়নি, আলোটা নিজের দিকে টেনে নিয়েছেন নেইমার। ৫০ মিনিটের ভেতরেই পেয়ে গেছেন হ্যাটট্রিক, পিএসজির হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে ২০টি গোল হয়ে গেছে। চ্যাম্পিয়নস লিগে আলাদা দুইটি ক্লাবের (পিএসজি ও বার্সেলোনা) হয়ে অন্তত ২০ গোল করার কীর্তি আর কারও। জোড়া গোল করেছেন ক্লিয়ান এমবাপে, আর তাতেই পিএসজি পেয়েছে ৫-১ গোলের বড় জয়।

     

    অ্যাটলেটিকোর স্বস্তি

    টানা তিন ম্যাচ ড্র করে একটু অস্বস্তিতে ছিল অ্যাটলেটিকো। সালজবুর্গকে ২-০ গোলে হারিয়েই কাল বায়ার্নের পর গ্রুপের দ্বিতীয় দল হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে নকআউটে। শুরুটা করেছিলেন ডিফেন্ডার মারিও হারমেসো, পরে ইয়ানিক কারাসকোর দারুণ স্ট্রাইকে ব্যবধান বাড়িয়েছে অ্যাটলেটিকো। অন্য ম্যাচে বায়ার্ন ২-০ গোলে হারিয়েছে লোকোমোটিভ মস্কোকে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন