• বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ ২০২০
  • " />

     

    সতীর্থকে মাঠে মারতে গেলেন মুশফিক

    সতীর্থকে মাঠে মারতে গেলেন মুশফিক    

    মাঠে মেজাজ হারানোর ঘটনা প্রায়ই ঘটে। সতীর্থদের মধ্যেও তর্কাতর্কি, কথা কাটাকাটি হয়। তবে মুশফিকুর রহিম আজ যা করেছেন, সেটা একটু বিরলই। একটা ভুলের জন্য সতীর্থ ফিল্ডারকে প্রায় মারতে গিয়েছিলেন মুশফিক, যে ছবিটা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। 

    ঘটনাটা ঢাকা-বরিশাল ম্যাচের ১৭তম ওভারে। বল করছিলেন শফিকুল ইসলাম, ক্রিজে আফিফ। পুল করতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন আফিফ, সেটা দৌড়ে ধরেন মুশফিক। একই সঙ্গে সেখানে এসে পরেছিলেন স্লিপে থাকা নাসুম আহমেদও, আরেকটু হলেই দুজনের সংঘর্ষ হয়ে যেত। তবে সেটা হয়নি শেষ পর্যন্ত, ক্যাচ ধরতে উদ্যত নাসুম শেষ মুহুর্তে নিজেকে সামলে নিয়েছেন। তবে ক্যাচ ধরার পরই গ্লাভস হাতের মুশফিক পেছন ঘুরে প্রায় মারতে গেলেন সতীর্থকে। নাসুমের চোখেমুখে অস্বস্থি ছিল স্পষ্ট, ঢাকার অন্যরা এসে একটু সামাল দিয়েছেন পরিস্থিতি। ক্ষণিকের জন্য নিজেকে সামাল দিয়েছেন, এমন মনে হলেও মুশফিক বেশ চড়া মেজাজে যেন ব্যাখ্যা করছিলেন-- তার হাতে গ্লাভস আছে বলে সে ক্যাচটা তারই নেওয়ার কথা ছিল। 

    আজ এমন ঘটনা অবশ্য বার বার করেছেন মুশফিক। মেজাজ হারিয়েছেন বেশ কয়েকবার, নাসুমের প্রথম ওভারে দুই বাউন্ডারির পরেও তাকে গালাগালি করছিলেন। এর আগে মিসফিল্ডের পরও তার প্রতি এমন করেছেন তিনি। আর ম্যাচের শেষ দিকে বার বার নিজের ওপর নিয়ন্ত্রণ হারাচ্ছিলেন, উচ্চস্বরে বকাবকি করছিলেন বোলারদের। 

    ম্যাচ শেষে মুশফিককে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল এই ঘটনা নিয়ে। সেটা এড়িয়ে গিয়ে বলেছেন, মাঠেই শেষ হয়ে গেছে ব্যাপারটা। কিন্তু কেন মাঠে এমন মেজাজ বার বার হারাচ্ছেন মুশফিক? এবারের টুর্নামেন্টে এমন উত্তপ্ত মনে হয়েছে বেশ কিছু ম্যাচেই। খেলার মাঠে হিট অফ দ্য মোমেন্টে অনেক কিছুই হয়। কিন্তু বার বার এমন ঘটনায় প্রশ্ন উঠেছে মুশফিকের টেম্পারামেন্ট নিয়ে। 

    বাংলাদেশে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে এর আগে প্রতিবারই আলাদা আলাদা দলে খেলেছেন মুশফিক, এবার বিপিএল স্থগিত হয়ে গেলেও এর বদলে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে প্রথমবার তিনি খেলছেন ঢাকার হয়ে। এখন পর্যন্ত একবারও শিরোপা জেতা হয়নি তার। এ ম্যাচে বরিশালকে এলিমিনেটরে হারিয়ে এগিয়ে গেছে মুশফিকের ঢাকা, প্রথম কোয়ালিফায়ারে গাজি গ্রুপ চট্টগ্রাম ও জেমকন খুলনার মাঝে হারা দলের সঙ্গে তারা মুখোমুখি হবে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন