• ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফর
  • " />

     

    অ্যাডিলেডে কোহলিদের মহাবিপর্যয়, টেস্ট ইতিহাসে নিজেদের সর্বনিম্ন স্কোর ভারতের

    অ্যাডিলেডে কোহলিদের মহাবিপর্যয়, টেস্ট ইতিহাসে নিজেদের সর্বনিম্ন স্কোর ভারতের    

    দুই প্রজন্ম আগে লিডসের মাঠের মাঠে ভারতকে কোনো রান না করে চার উইকেট হারাতে দেখেছিলেন কেউ। এক প্রজন্ম আগে গাভাস্কারদের ভারত লর্ডসে অলআউট হয়েছিল ৪২ রানে। আজ হ্যাজলুড-কামিন্সের বিপক্ষে সেই ভারত গুটিয়ে গেল ৩৬ রানে, নিজেদের সর্বনিম্ন রানে অলআউট হওয়ার ইতিহাস লিখল নতুন করে। গত ৬৫ বছরে এটাই কোনো দলের সর্বনিম্ন ইনিংস।

    যারা একটু দেরি করে টিভি ছেড়েছেন তারা নিজের চোখকেও বিশ্বাস করতে পারবেন না আজ। আগের দিন ১ উইকেট হারিয়ে দিন শুরু করেছিল ভারত, আজ সকালে ১৫ রানে ১ উইকেট ছিল একটা সময়। সেখান থেকে অলআউট হয়ে গেল ৩৬ রানে। টেকনিক্যালি অবশ্য বলা যাচ্ছে না অলআউট হয়েছে, শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে রিটায়ার্ড হার্ট হয়েছেন মোহাম্মদ শামি। তবে সেটা ভারতের বিপর্যয়টা আড়াল করতে পারবে না।

    নাইটওয়াচম্যান বুমরাকে আউট করে দিনের শুরুটা করেছিলেন কামিন্স, রিটার্ন ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান বুমরা। তখনও বোঝা যায়নি ভারতের সামনে এমন বিপর্যয় অপেক্ষা করছে। পূজারা ও আগারওয়াল চার ওভার কাটিয়ে দিয়েছিলেন, বিপর্যয় শুরু হলো ১২তম ওভার থেকে। দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে পূজারাকে স্টাম্পের পেছনে ক্যাচ দিতে বাধ্য করলেন কামিন্স। পরের ওভারে এসেই হ্যাজলউডের প্রায় আনপ্লেয়বল আরেকটা বলে আউট আগারওয়াল, একইভাবে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে। রাহানে টিকলেন চার বল, এবার হ্যাজলউডের বলে আগের দুজনের মতোই ক্যাচ দিলেন কিপারকে।

    তখনো টেস্ট ইতিহাসের সর্বনিম্ন স্কোর ২৬ রান চোখ রাঙাতে শুরু করেনি। সেটা করল বিরাট কোহলির আউটের পর। এবার কামিন্সকে ডড়াইভ করতে গিয়ে গালিতে ক্যাচ নিলেন ক্যামেরন গ্রিন, পড়তে পড়তেও সেটা ধরে ফেললেন কোনোমতে। রিপ্লে দেখে আউটই থাকল, অবিশ্বাসভরা মুখে কোহলি ফিরলেন ৪ রানে। ঋদ্ধিমান সাহা একটা চার মেরে ২৬ রানের লজ্জাটা প্রায় পার করে দিচ্ছিলেন, কিন্তু তখনই আউট হ্যাজলউডের বলে। পরের বলে অশ্বিনও ক্যাচ দিলেন, রিভিউটাও গেল একই সঙ্গে। ২০০ উইকেট হলো হ্যাজলউডের, তার আগে কামিন্সের হয়েছে ১৫০ উইকেট। হ্যাটট্রিকটা হলো না হ্যাজলউডের, তবে ভারত পেরিয়ে গেল ২৬। কিন্তু ৪২ রানটা পেরুনো হলো না, ৩৬ রানের সময় কামিন্সের বলে হাতে ব্যথা পেয়ে মাঠ ছাড়লেন। টেস্ট ইতিহাসে ভারতের সর্বনিম্ন স্কোর হলো নতুন করে। দুই অংক ছুঁতে পারেননি কেউ। আর অস্ট্রেলিয়ার মাঠে ভারতের সর্বনিম্ন ৫৮, সেটা করেছিল ব্রিসবেনে ১৯৪৭ সালে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন