• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    কিক অফের আগে: ইনফর্ম মেসিদের সামনে নেইমারহীন পিএসজি

    কবে, কোথায়

    বার্সেলোনা-পিএসজি, চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ ১৬

    ন্যু ক্যাম্প

    ১৭ ফেব্রুয়ারি, রাত ২টা


    চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ ১৬ এর ড্রয়ের পর থেকেই ফিরে ফিরে আসছে স্মৃতিটা। বার্সেলোনা-পিএসজি যখন আবার মুখোমুখি, দুই দলের সর্বশেষ সেই দেখার স্মৃতিটা তো আসবেই। নিজেদের মাঠে ৪-০ গোলে জেতার পরও শেষ পর্যন্ত ৬-১ গোলে ম্যাচটা হেরে গিয়েছিল পিএসজি, বার্সা পেয়েছিল মহাকাব্যিক একটা জয়। তবে সেই ম্যাচের পর সিন নদীতে গড়িয়ে গেছে অনেক জল। নেইমার বার্সেলোনা থেকে প্যারিসে গেছেন, আরও অনেক কিছু বদলে গেছে। সেই নেইমার এবার নেই, তবে পিএসজি আরও একবার খেলতে আসছে ন্যু ক্যাম্পে। এবার তাহলে কী হবে?

    মাঠে আজ যা-ই হোক, মাঠের বাইরে একটা ব্যাপার নিশ্চিত করে রেখেছে বার্সেলোনা। পিএসজির হোটেলের বাইরে ম্যাচের আগের দিন আতশবাজি জালিয়েছে, ফুটিয়েছে পটকা। নিশ্চিত করার চেষ্টা করেছে, ম্যাচের আগের দিন যাতে এমবাপেদের ঘুমটা খুব ভালো না হয়!

    তবে মাঠের লড়াইয়ে এসব হয়তো প্রভাব ফেলবে না। যে প্রেক্ষাপটে দুই দল দাঁড়িয়ে, তাতে একটা জমজমাট লড়াইয়ের আশা করাই যায়। যখন দুই দলের ড্র হয়েছিল শেষ ১৬র, তখনও বার্সা সমর্থকেরা খুব বেশি আত্মবিশ্বাসী ছিলেন না। বার্সা তখন ফর্ম হারিয়ে খুঁজছে, মেসি ওপেন নেটে গোল পাচ্ছেন না। সেই অবস্থা এখন বদলে গেছে অনেকখানিই। গত ১৮টি ম্যাচের মাত্র একটি হেরেছে বার্সা, সেটি সেভিয়ার বিপক্ষে স্প্যানিশ সুপার কাপে। লা লিগায় সর্বশেষ সাত ম্যাচে পেয়েছে জয়, পিএসজি ম্যাচের আগে ওয়ার্ম আপ করে নিয়েছে আলাভেসকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে। তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার, মেসির পায়ে দেখা যাচ্ছে পুরনো ঝলক। আলাভেসের বিপক্ষে দুর্দান্ত দুই গোলে মনে করিয়ে দিচ্ছেন সেই অপ্রতিরোধ্য ফর্মকে। মেসির জন্য অবশ্য এই ম্যাচটা আরেকদিক দিয়ে অন্যরকম হতে পারে। বার্সার সঙ্গে চুক্তিটা শেষ হয়ে যাচ্ছে এই মৌসুমেই, এরপর পিএসজিতে যাওয়ার গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে ভালোই। রোনালদো রিয়াল ছাড়ার আগে জুভেন্টাসকে যেমন ভুগিয়েছিলেন, এবারও কি সেরকম কিছু হবে?

    বার্সার সমস্যা যদি কিছু থাকে তাহলে সেটা চোট। কুতিনিয়ো অনেক দিন ধরে বাইরে, এই ম্যাচের আগে ছিটকে গেছেন ডিফেন্ডার রোনাল্ড আরাউহো। সেন্টারব্যাক নিয়ে তাই একটু সমস্যা পোহাতে হতে পারে কোমানকে। তবে বার্সা কোচ একটা সুসংবাদ পেয়েছেন, দলের সঙ্গে অনুশীলন শুরু করেছেন জেরার্ড পিকে। যদিও একাদশে তাকে দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণই।

    চোট পিএজসির জন্য অনেক দিন ধরেই বড় সমস্যা। স্কোয়াডে বিশ্বসেরা সব ফুটবলার থাকলেও সবাইকে খুব কম সময়ের জন্যই একসঙ্গে ফিট পেয়েছে পিএসজি। এই ম্যাচের ঠিক আগেই যেমন ছিটকে গেছেন নেইমার, আগে থেকে নেই আনহেল ডি মারিয়াও। অবশ্য ভেরাত্তি দলের সঙ্গে অনুশীলন শুরু করেছেন, তাকে ম্যাচের স্কোয়াডে রেখেছে পিএসজি।

    তবে পিএসজি কোচ মরিজিও পচেত্তিনো জানেন, এই ম্যাচটা তার জন্য এসিড টেস্টের চেয়েও বেশি। ঘরোয়া লিগ এখন পিএসজির অনেকটা পৈতৃক সম্পত্তি হয়ে গেছে, সেটা নিয়ে তাদের খুব বেশি মাথাব্যথাও নেই। এই মৌসুমে যদিও লিগেও ফর্ম খুব ভালো যাচ্ছে না, তারপরও পিএসজির মূল লক্ষ্য চ্যাম্পিয়নস লিগ। টমাস তুখেল গত মৌসুমে ফাইনালে নিয়েও শিরোপা জেতাতে পারেননি, কিছুদিন আগে তো চলেই যেতে হয়েছে তাকে। পচেত্তিনো জানেন, এই শিরোপা না পেলে তাকেও একই পরিণতি বরণ করে নিতে হতে পারে। নিজেও বলেছেন, ‘এটা স্পষ্ট যে আমরা এই শিরোপাটা অনেক বেশি করে চাই। ভক্তদেরও চাওয়া সেরকমই। আগে কী হয়েছে সেটা আমরা ভুলে গেছি, এখন আমরা শুধু সামনের দিকে তাকাতে চাই।’

    সম্ভাব্য একাদশ

    বার্সেলোনা

    টের স্টেগেন, মিনগুয়েজা, লেংলে, ডি ইয়ং, আলবা, পিয়ানিচ, পেদ্রি, বুসকেটস, মেসি, দেম্বেলে, গ্রিজমান

    পিএসজি

    নাভাস, মারকিনিয়স, কিমপেম্বে, কুরজাওয়া, ফ্লোরেঞ্জি, গায়ে, পারেদেস, ভেরাত্তি, কিন, এমবাপে, ইকার্দি।

     

    সংখ্যায় সংখ্যায়

    • পিএসজির সঙ্গে সর্বশেষ যে তিন বার নকআউট পর্বে দেখা হয়েছে বার্সার (২০১২-১৩ কোয়ার্টার ফাইনাল, ২-১৪-১৫ কোয়ার্টার ফাইনাল, ২০১৬-১৭ শেষ ১৬), তিন বারই জিতেছে বার্সা। পিএসজি বার্সার বিপক্ষে নকআউটে জয় পেয়েছে একবারই, ১৯৯৪-৯৫ সালে।
    • রেকর্ড ১৪ বারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার হাতছানি বার্সার সামনে। শেষ ১৬ থেকে সর্বশেষ তারা বিদায় নিয়েছিল ২০০৬-০৭ মৌসুমে লিভারপুলের বিপক্ষে
    • সর্বশেষ ৩৩টি নকআউট হোম ম্যাচের মাত্র একটিতে হেরেছে বার্সা, জিতেছে ২৫টি, ড্র ৭টি। একমাত্র হারটা এসেছিল ২০১২-১৩ মৌসুমে বায়ার্নের বিপক্ষে
    • টানা নয় মৌসুমে নকআউট পর্বে উঠেছে পিএসজি। কিন্তু সর্বশেষ চার মৌসুমে মাত্র একবার শেষ ১৬ পেরিয়েছে তারা, সেটা গত মৌসুমে।
    • নকআউটে স্পেনের দলগুলোর বিপক্ষে মাত্র একটি অ্যাওয়ে জয় আছে পিএসজির, আট বছর আগে সেভিয়ার বিপক্ষে।

    প্রেডিকশন

    বার্সেলোনা ২-১ পিএসজি

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন