• শ্রীলঙ্কার বাংলাদেশ সফর ২০২১
  • " />

     

    নেট সেশন: 'পারফেক্ট' শেষ হবে বাংলাদেশের?

    নেট সেশন: 'পারফেক্ট' শেষ হবে বাংলাদেশের?    

    শ্রীলঙ্কার বাংলাদেশ সফর, ২০২১, বিশ্বকাপ সুপার লিগ
    ৩য় ওয়ানডে

    কবে, কখন
    ২৮ মে
    বাংলাদেশ সময় ০১.০০ (১৩০০)


    প্রথম ম্যাচের আগে খোঁজ ছিল ‘একটি স্বস্তির’ জয়ের। দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে প্রথমবার দ্বিপক্ষীয় সিরিজে হারানো, সঙ্গে আইসিসি ওয়ার্ল্ড কাপ সুপার লিগের শীর্ষে ওঠা। তৃতীয় ম্যাচের আগে সেটি দাঁড়িয়েছে তিন-শূন্য ব্যবধানে জয়- হোয়াইটওয়াশ, সঙ্গে সুপার লিগ আরও ১০ পয়েন্ট। মানে বাংলাদেশের সামনে একটা ‘পারফেক্ট’ শেষের হাতছানি। আগে হলে ‘আইসিং অন দ্য কেক’ বা ‘মধুরেণ সমাপয়েত’ ধরনের কিছু বলা যেত, তবে সুপার লিগের কারণে সেসব বলার উপায় নেই আর। 

    এ কথাটা অবশ্য ঘুরেফিরে এখন সবাই বলেন- পরের বিশ্বকাপের বাছাইয়ের কারণে সব ম্যাচেরই গুরুত্ব বুঝাতে। সেটির বাইরে গিয়ে খুঁজলে, শেষ ম্যাচের জয় হতে পারে বাংলাদেশের হোম কন্ডিশনে এ ফরম্যাটের নিজেদের শক্তিমত্তার আরেকটি প্রকাশ। ২০১৪ সালের নভেম্বর থেকে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ নিজেদের মাটিতে সিরিজ হেরেছে শুধু একটি। টেস্টে নিজেদের হোম কন্ডিশন কাজে লাগানোর রেসিপিতে সাম্প্রতিক সময়ে সাফল্য আসেনি, টি-টোয়েন্টি এখনও হয়ে থেকেছে এখনও-ঠিক-বুঝলাম-না ধরনেরই। তবে ওয়ানডে বাংলাদেশের ‘প্রিয়’ ফরম্যাট, এ সিরিজ জয় সেটি প্রমাণ করেছে আরেকবার। 



    অবশ্য এখনও সিরিজে পারফেক্ট ম্যাচটা খেলতে পারেননি, তামিম ইকবাল বলেছিলেন আগেরদিনই। এদিন আগেভাগেই অনুশীলনে চলে আসা বাংলাদেশের হয়ে মাহমুদউল্লাহ বলে গেলেন, ‘সেরা’টা দেওয়া বাকি এখনও তাদের, লক্ষ্য অবশ্যই ৩-০ ব্যবধানে জয়।

    তামিম-মাহমুদউল্লাহর কথায় জয়ের ক্ষুধা স্পষ্টই, তবে মাঠের পারফরম্যান্সে অন্তত ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ নিশ্চিতভাবেই চাইবে আরও বেশি কিছু। লিটন দাসের ফর্ম খুঁজে ফেরার মাঝেই তৃতীয় ওয়ানডের স্কোয়াডে ডাকা হয়েছে নাইম শেখকে, যদিও স্কোয়াডে আগে থেকেই ছিলেন সৌম্য সরকার। টপ অর্ডারে প্রথম ম্যাচের তামিমের ফিফটির ছাড়া তেমন কিছু নেই, মিডল অর্ডারে মুশফিক এবং তার সঙ্গে মাহমুদউল্লাহর জুটিই বাংলাদেশকে দুই ম্যাচে দিয়েছে জয়ের পুঁজি। বোলিংয়ে দুই ম্যাচের পারফরম্যান্সই দাপুটে, সিরিজের আগে তামিমের যে চাওয়া ছিল ফিল্ডিং নিয়ে, সেটিরও খানিকটা পূরণ হয়েছে অবশ্যই। 

    বাংলাদেশের কাছে যখন ব্যাপারটা আরও কিছু পাওয়ার, শ্রীলঙ্কার ক্ষেত্রে তখন যদি-কিছু-পাওয়া-যায়-এর মতো। সিরিজের দল ঘোষণার সময়ই একগাদা সিনিয়র ক্রিকেটারদের বাদ দিয়ে চমক দিয়েছিল তারা, তবে কুসাল পেরেরার দলে অভিজ্ঞতার অভাব স্পষ্টই। শেষ ম্যাচের আগেরদিন হেড কোচ মিকি আর্থার আরেকবার মনে করিয়ে দিয়েছেন, প্রায় ২০০টি করে ম্যাচ খেলে ফেলা সাকিব-তামিম-মুশফিক-মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে মোস্তাফিজ-মিরাজের অভিজ্ঞতার সমন্বয়ে গঠিত দলের কাছ থেকে যে কঠিন লড়াইয়ের কথা তারা ভেবেছিলেন, হয়েছে সেটিই। তবে দেশের ফেরার আগে অন্তত একটি জয় চাওয়া তার। 


    রঙ্গমঞ্চ
    শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, মিরপুর

    আগেরদিন বৃষ্টি লুকোচুরি খেলেছে, শেষ ম্যাচের আগেরদিনও হানা দিয়েছে। বৃষ্টির পূর্বাভাস আছে ম্যাচের দিনও। 

    আগের দুই ম্যাচেই টসে জিতে ব্যাটিং নিয়ে জিতেছে বাংলাদেশ, প্রথম দিনের উইকেটকে একটু টু-পেসড বলা হলেও পরেরটিকে বলা হয়েছিল ‘বেশ ভাল’। যদিও দ্বিতীয় ম্যাচেই কম করেছিল বাংলাদেশ। 

    যাদের ওপর চোখ

    তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান

    প্রথম ম্যাচে শুরুটা ভাল হলেও ইনিংস বড় করতে পারেননি ব্যাটিংয়ে সাকিব, পরেরদিন তো ভড়কেই গেছেন শুরুতে। দুই ম্যাচ মিলিয়ে নিয়েছেন তিন উইকেট, অবশ্য করেছেন আঁটসাঁট বোলিং। অন্যদিকে প্রথম ম্যাচে ফিফটি পেলেও তামিম পরেরটিতে ফিরেছেন আগেভাগেই। টপ অর্ডারের এ দুজন পারবেন আলো নিজেদের দিকে করে নিতে? 


    কুসাল পেরেরা

    অধিনায়কত্ব দেওয়া হয়েছে, উইকেটকিপিং করছেন বলে প্রথম দুই ম্যাচের একাদশে সুযোগ পাননি নিরোশান ডিকওয়েলা। তবে কুসাল পেরেরা এখনও খুঁজে পাননি নিজেকে এ সফরে, অন্তত ব্যাটিংয়ে। 


    সম্ভাব্য একাদশ

    দ্বিতীয় ম্যাচে হেলমেটে আঘাত পেয়েছিলেন সাইফউদ্দিন, সূত্রমতে, কনকাশনের শঙ্কায় ৭২ ঘন্টা পর্যবেক্ষণে থাকবেন বলে বিশ্রাম দেওয়া হতে পারে তাকে শেষ ম্যাচে। সেক্ষেত্রে দলে আসতে পারেন মাহাদি হাসান। স্কোয়াডে ডাক পাওয়া নাইম শেখকে খেলানো হলে সরে যেতে হতে পারে লিটন দাসকে। 


    বাংলাদেশ 
    তামিম ইকবাল, লিটন দাস/নাইম শেখ, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, মাহাদি হাসান/তাসকিন আহমেদ, মেহেদি হাসান মিরাজ, শরিফুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান

    শ্রীলঙ্কা

    দানুশকা গুনাথিলাকা, কুসাল পেরেরা (অ), কুসাল মেন্ডিস, পাথুম নিসাঙ্কা, আশেন বান্দারা/নিরোশান ডিকওয়েলা, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, দাসুন শানাকা, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, লাকশান সান্দাকান, ইসুরু উদানা, দুশমন্থ চামিরা


    সংখ্যার খেলা 

    • আগেরদিন ২ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ওয়ানডে উইকেটের রেকর্ডে মাশরাফি বিন মুর্তজাকে ছুঁয়েছেন সাকিব, সঙ্গে এক ভেন্যুতে সর্বোচ্চ ওয়ানডে উইকেটে ওয়াসিম রেকর্ডেও ভাগ বসিয়েছেন তিনি। শেষ ম্যাচে দুজনকেই টপকে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে তার
    • তৃতীয় ম্যাচে জিতলে দেশের মাটিতে টানা তিন সিরিজে প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করবে বাংলাদেশ 
    • তিন ম্যাচের দ্বিপক্ষীয় সিরিজে বাংলাদেশের হয়ে ৩০০ বা এর বেশি রান আছে এখন পর্যন্ত তিনজনের- ইমরুল কায়েস, লিটন দাস ও তামিম ইকবাল। তামিম যেটি করেছিলেন দুবার। শেষ ম্যাচের আগে মুশফিকের রান ২০৯।


    তারা বলেন 

    আমার মনে হয় সব মিলিয়ে ব্যাটিং-বোলিং (যেটাই) হোক, আমরা সেরা ক্রিকেটটা এখনো খেলতে পারিনি। তো এটা আমাদের নিজেদের মধ্যে কথা হয়েছে। আশা করি ইনশাআল্লাহ আমাদের সেরা ক্রিকেটটা খেলার চেষ্টা করব। আমরা ব্যক্তিগত ভাবে মনে করি  যে টপ অর্ডারের ধস (এর কারণে) বা মিডল অর্ডার, লেট মিডল অর্ডার, স্লগ ওভারে প্রথম ম্যাচে (রান) তুলতে পারিনি। ওই জিনিসগুলো নিয়ে আমার মনে হয় আমাদের আরেকটু ভাল পারফর্ম করা উচিত। এবং আমরা সেদিকেই তাকিয়ে।

    মাহমুদউল্লাহ, বাংলাদেশ


    এখন আর ডেড রাবার বলে কিছু নেই ওয়ানডে চ্যাম্পিয়নশিপ (সুপার লিগ)-এর কারণে। প্রতিটি ম্যাচেই দশ পয়েন্ট। আমরা ভাল, দৃঢ়, ডিসিপ্লিনড পারফরম্যান্স দেখাতে চাই কাল। একটা জয় নিয়ে ফিরতে চাই।

    মিকি আর্থার, হেড কোচ, শ্রীলঙ্কা

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন