• বাংলাদেশের জিম্বাবুয়ে সফর
  • " />

     

    বড় জয়ে মাহমুদউল্লাহকে বিদায়ী উপহার দিলেন তাসকিন-মিরাজ

    বড় জয়ে মাহমুদউল্লাহকে বিদায়ী উপহার দিলেন তাসকিন-মিরাজ    

    দিনের শুরুটাই হলো মাহমুদউল্লাহর গার্ড অন অনার দিয়ে। মুমিনুলদের বিদায়ী অভিবাদনে নিশ্চিত হলো, হারারে টেস্ট শেষে বাংলাদেশের হয়ে আর সাদা পোশাকে দেখা যাবে না মাহমুদউল্লাহকে। শেষ দিনে একটু সময় লাগলেও শেষ পর্যন্ত তাকে বড় জয়ই উপহার দিয়েছেন সতীর্থেরা। তাসকিন আহমেদ ও মেহেদী হাসান মিরাজের দারুণ বোলিংয়ে বাংলাদেশ পেয়েছে ২২০ রানের জয়।

    ৩ উইকেট হারিয়ে আজ দিন শুরু করেছিল বাংলাদেশ। নাইটওয়াচম্যান ডোনাল্ড টিরিপানোকে নিয়ে ডিওন মেয়ার্স সকালের অনেকটা সময় পার করে দিচ্ছিলেন। এর মধ্যে বাংলাদেশও ক্যাচ মিস করে দুজনকে থিতু হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত ড্রিংকসের পর মনযোগে চির ধরেছে মায়ার্সের। মেহেদী হাসান মিরাজের বলে শর্ট মিডউইকেটে ক্যাচ তুলে দিয়েছেন সাদমান ইসলামকে। আউট হয়েছেন ২৬ রানে।



    এরপর খুব দ্রুতই উইকেট হারাতে শুরু করে জিম্বাবুয়ে। ওই ওভারেই মারুমা এলবিডব্লু হয়ে যান তাসকিনের বলে, কোনো রান না করেই। ১৫৯ রানে তখন ৫ উইকেট নেই জিম্বাবুয়ের। ওদিকে তাসকিন আরেক প্রান্তে করছিলেন দারুন এক স্পেল। এর আগে শ্রীলংকায় এরকম স্পেল করার জন্য পুরস্কার পাননি। তবে এবার ভাগ্য পক্ষে ছিল তার। পরের ওভারে কাইয়া কোনো রান না করে এলবিডব্লু হয়ে যান তার বলে। তবে নিজের সেরাটা রেখে দিয়েছিলেন রেজিস চাকাভার জন্য। এক ওভার পর ভেতরের দিকে ঢোকা বলে পেসে বিট হলেন চাকাভা, স্টাম্প ছত্রখান হয়ে গেল তার। তাসকিন পেলেন তৃতীয় উইকেট। ৭ উইকেট হারানো জিম্বাবুয়ের কাছে পরাজয় তখন সময়ের ব্যাপার।

    কিন্তু টিরিপানো ঠিক করলেন সেই সময়টা এত তাড়াতাড়ি আসবে না, নিউয়াচির সঙ্গে শুরুতে অনেকটা সময় আটকে রাখলেন বাংলাদেশকে। শেষ পর্যন্ত তাসকিনের শর্ট বলে নিউয়াচির ক্যাচটা দ্বিতীয়বারের চেষ্টায় নিলেন সাকিব। কিন্তু এরপর মুজারাবানিকে নিয়ে আবারও জুটি টিরিপানোর। দুজনের জুটিতে ৪১ রান ওঠার পর শেষ পর্যইন্ত আউট হলেন টিরিপানো। অবশ্য দুর্ভাগ্য তার, এবাদতের বলটা তার ব্যাটে লেগেছিল মনে করে আউট দিয়েছিলেন আম্পায়ার। কিন্তু বলটা লেগেছিল তার থাই প্যাডে। ১৪৪ বলে ৫২ রানে শেষ হলো নাইটওয়াচম্যান টিরিপানোর ইনিংস। এরপর এনবগারভাও বেশ কিছুক্ষণ হতাশ করেছেন। শেষ পর্যন্ত তাকে আউট করে ৪ উইকেট পেয়েছেন মিরাজ, ম্যাচে হলো তার ৯ উইকেট। অবশেষে টেস্টে একটু হাসার উপলক্ষ পেয়েছে বাংলাদেশ।

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন