• রিও অলিম্পিক ২০১৬
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    কিশোরী গৌরিকার হিট জয়

    মুখে এখনো কৈশোরের চাপল্য। হঠাৎ দেখলে মনে হবে, স্কুলে না গিয়ে বুঝি ভুল করে সুইমিং পুলে চলে এসেছে মেয়েটি। কিন্তু জলে নেমেই সেই ১৩ বছর বয়সী গৌরিকা সিং ফেলে দিল তোলপাড়। অলিম্পিকের কনিষ্ঠতম প্রতিযোগী নেপালের এই সাঁতারু ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকের প্রথম হিটেই জয় পেয়েছেন! অথচ হিটে নামার ঠিক আগ মুহূর্তেই বেঁধেছিল বিপত্তি।

    পুলে নামার মিনিট খানেক আগে গৌরিকার সুইম স্যুট ছিঁড়ে যায়। পরে নিজেই স্বীকার করেছেন, একটু স্নায়ুচাপে পড়ে গিয়েছিলেন, “হিটের কিছুক্ষণ আগে আমার সাঁতারের পোশাক ছিঁড়ে যায়। জামাটি ঠিকঠাক করার সময়ে আমার নখের আঁচড়ে এই অবস্থা হয়। আমি কোচের কাছে জিজ্ঞাসা করি যে জামাটি পালটে ফেলবো কিনা। পরে নতুন জামা পরেই পুলে নামি। অনেকটাই নার্ভাস হয়ে গিয়েছিলাম ওই মুহূর্তে!”

    তার চেয়েও বড় ব্যাপার, রিওতে নিজের কোচ রাইস গর্মলিকেই সাথে আনতে পারেননি। তবে মুঠোফোনে সবসময় যোগাযোগ রেখেছেন তাঁর সাথে, “স্যার আমাকে সর্বক্ষণই নির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছেন মোবাইলে। মনে হচ্ছে তিনি যেন আমার সাথেই আছেন!” তবে হিটে জিতলেও সেমিফাইনালে উঠতে পারেননি গৌরিকা। সেটি নিয়ে তাঁর কোনো আফসোস থাকারও কথা নয়।

    হিটে কসভো এবং সামোয়ার দুই প্রতিযোগীকে হারানোর পর এখন গৌরিকার লক্ষ্য সামনের রাউন্ডে আরও ভাল কিছু করার। পুরো নেপালবাসী যে তাকিয়ে আছে তাঁর মুখপানে!

    আগামী ৬ সেপ্টেম্বর যখন লন্ডনে নিজের স্কুলে ক্লাস করতে যাবেন,বন্ধুরা হয়তো জিজ্ঞাসা করবে এই গরমের ছুটিতে কি করল সে। হয়ত মুচকি হেসে জবাব দিবেন, “ বেশি কিছু না, অলিম্পিকের হিটে জয় পেয়েছি!”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন