• ভারত-ইংল্যান্ড
  • " />

     

    অধিনায়কত্ব ছাড়ছেন কুক?

    ভারতের বিপক্ষে সিরিজের আগে থেকেই এই ব্যাপারে কিছুটা আভাস পাওয়া যাচ্ছিল। অনেকেই ধারণা করছিলেন, ইংল্যান্ড অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক নাকি এই সিরিজের পরেই অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেবেন। ৪-০ ব্যবধানে লজ্জাজনক পরাজয়ের পর থেকেই ওই গুঞ্জনটা আরও জোরালো হয়েছে। ইংরেজ দৈনিক ডেইলি টেলিগ্রাফ জানিয়েছ, খুব শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব ছেড়ে দিতে পারেন কুক, তাঁর জায়গা নিতে পারেন জো রুট। 

     

    জানা গিয়েছে, এই সপ্তাহের শেষেই ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে এই ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে। একই সাথে রুটকেও অধিনায়ক ঘোষণা করা হবে। তাঁর সম্ভাব্য ডেপুটি হতে পারেন বেন স্টোকস।

     

    গত বছরটা খুব একটা ভালো যায়নি অধিনায়ক কুকের। সব মিলিয়ে ৮ টি ম্যাচে পরাজয়ের মুখ দেখতে হয়েছে, ১৯৯৩ সালের পর যেটা সবচেয়ে বেশি। বছরের শেষের দিকে ভারতের সাথে বিশাল ব্যবধানে সিরিজ পরাজয়টা তো কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না ইংলিশ ভক্তরা। এই বছরের শেষেই হবে বহুল প্রতীক্ষিত অ্যাশেজ সিরিজ। এই কারণেই হয়তো আগেভাগেই  নিজের উত্তরসূরির হাতে দায়িত্বটা বুঝিয়ে দিতে চাচ্ছেন কুক।

     

    যদি সত্যিই রুটের কাঁধেই দায়িত্বটা বর্তায় তাহলে মাইক আথারটনের পর তিনিই হবে ইংল্যান্ডের কনিষ্ঠতম টেস্ট অধিনায়ক। মাত্র ২৫ বছর বয়সেই দলের দায়ভার এসেছিলে আথারটনের কাঁধে। কুকও তাঁর মতো বয়সেই প্রথমবার দলের অধিনায়ক হয়েছিলেন অ্যান্ড্রু স্ট্রাউসের অনুপস্থিতিতে।


    ২৬ বছর বয়সী রুটের অধিনায়কত্ব করার খুব একটা অভিজ্ঞতা নেই। ইয়র্কশায়ারের হয়ে দুই বছর আগে হাতে গোনা কয়েকটি ম্যাচে টস করতে নেমেছিলেন। কিন্তু বর্তমান ইংল্যান্ড দলে কুকের উত্তরসূরি হিসেবে তাঁর চেয়ে যোগ্য কাউকেই খুঁজে পাচ্ছে না ইংলিশ বোর্ড। আগামী কয়েক মাস অবশ্য ইংল্যান্ডের কোন টেস্ট নেই। ৬ জুলাই থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে লর্ডসে শুরু হতে যাওয়া  টেস্টের মাধ্যমেই অধিনায়ক হিসেবে যাত্রা শুরু হতে পারে রুটের।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন