• ভারত-ইংল্যান্ড
  • " />

     

    আর ইংল্যান্ডের অধিনায়ক থাকছেন না কুক

    গুঞ্জনটা জোরালো হয়েছিল ভারতের সঙ্গে টেস্ট সিরিজের পরেই। ৪-০ ব্যবধানে সিরিজ হেরে যাওয়ার পরেই ফিসফাস উঠেছিল, ইংল্যান্ডের অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়াতে পারেন অ্যালিস্টার কুক। অবশেষে সেটিই সত্যি হলো, আনুষ্ঠানিকভাবে ইংল্যান্ডের অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন কুক। তবে ব্যাটসম্যান হিসেবে জাতীয় দলে খেলবেন, তাঁর জায়গায় দায়িত্ব নিতে পারেন ডেপুটি জো রুট।

     

    পূর্ণকালীন অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছিলেন ২০১২ সালে। এর পর ৫৯ টেস্টে ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হয়ে টস করতে নেমেছেন। টেস্ট ক্রিকেটেই তাঁর বেশি ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছেন ছয়জন- মহেন্দ্র সিং ধোনি, ক্লাইভ লয়েড, রিকি পন্টিং, স্টিভেন ফ্লেমিং, অ্যালান বোর্ডার ও গ্রায়েম স্মিথ। ইংল্যান্ডের হয়ে সবচেয়ে বেশি টেস্টে অধিনায়কত্ব তো বটেই, টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরিও তাঁর। আর ইংল্যান্ডের হয়ে টেস্টে সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ড তো অনেক আগেই নিজের করে নিয়েছেন।

    গত বছরটা খুব একটা ভালো যায়নি কুকের, হেরেছেন আটটি ম্যাচে। ১৯৯৩ সালের পর কোনো ইংলিশ অধিনায়কের এক বছরে এটাই সবচেয়ে বেশি পরাজয়। তবে বিদায়বেলায় কুক এসব একদিকে সরিয়ে রেখেছনে, “গত পাঁচ বছর ধরে ইংল্যান্ডকে নেতৃত্ব দেওয়া ছিল দারুণ সম্মানের। ভারত সিরিজের পর আমি এই ব্যাপারে ভেবেছি। এরপর চেয়ারম্যান কলিন গ্রেভসকে নিজের সিদ্ধান্তের কথা ব্যাখ্যা করেছি। ব্যক্তিগতভাবে আমার জন্য খুবই দুঃখের একটা দিন, তবে এই সময়ে যাদের পাশে পেয়েছি সবাইকে আমি ধন্যবাদ দিতে চাই। আশা করি, এবার খেলোয়াড় হিসেবে জাতীয় দলে অবদান রাখতে পারব।”

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন