• বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া
  • " />

     

    দ্বিতীয় ম্যাচেও সেঞ্চুরি অধিনায়ক শান্তর

    সেঞ্চুরি দিয়েই সফর শুরু করেছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। তবে জয়ের তৃপ্তি নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেননি বিসিবি এইচপি দলের অধিনায়ক, নটিংহামশায়ার দ্বিতীয় একাদশের সঙ্গে প্রথম ম্যাচটা যে ভেসে গেছে বৃষ্টিতে! তবে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে সেই অতৃপ্তিটাও আর রইলো না। এবার শান্তর সেঞ্চুরিতে একই প্রতিপক্ষের সঙ্গে ৬ উইকেটের জয় পেয়েছে এইচপি দল। ইংল্যান্ড সফরে এই প্রথম মুখ দেখেছে জয়ের।

    টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল নটিংহামশায়ার। ৭ রানেই ওপেনার রিভসকে ফিরিয়ে দেন এবাদত হোসেন। ২৫ রানে শুভাশীষ রায় ফিরিয়ে দেন রুটকে। এরপর অলরাউন্ডার সাইফ উদ্দিন ফিরিয়ে দেন গিবসন ও ফ্রেইকে, ৬৯ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে বসে নটিংহামশায়ার। তবে ছয়ে নেমে মার্শাল আবার পথ দেখান স্বাগতিকদের। পঞ্চম, ষষ্ঠ ও সপ্তম উইকেটে যথাক্রমে ৭৪, ২৫ ও ৬২ রান যোগ করেন। শেষ পর্যন্ত এবাদতের বলে আউট হয়ে গেছেন ৯৬ রানে। সাইফ উদ্দিন পরে নিয়েছেন আরও দুইটি উইকেট। শেষ পর্যন্ত নটিংহামশায়ার ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে করতে পেরেছে ২৯৪ রান। সাইফউদ্দিন ছিলেন সফলতম বোলার, এবাদতও নিয়েছেন দুই উইকেট। একটি করে উইকেট নিয়েছেন শুভাশীষ, তানবীর হায়দার ও মেহেদী হাসান।

    এই রান তাড়া করে ৬ রানেই ওপেনার সাদমানকে হারিয়ে ফেলে এইচপি দল। এরপর জাকির হাসানের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটে ৭০ রানের জুটিতে হাল ধরেন অধিনায়ক শান্ত। দলের ৭৬ রানে জাকির আউট হয়ে যাওয়ার আট রান পর রান আউট হয়ে যান ইয়াসির আলীও। ৮৪ আনে ৩ উইকেট থেকে এরপর আল আমিনের সঙ্গে শান্তর জুটিটাই এনে দিয়েছে জয়। চতুর্থ উইকেটে দুজন মিলে যোগ করেছেন১৯২ রান। ৮৬ রান করে আউট হয়ে গেছেন আল আমিন, তবে শান্তর সেঞ্চুরি হয়ে গেছে আগেই। শেষ পর্যন্ত দলকে জিতিয়েই ১৪৮ বলে ১৪৪ রান করে মাঠ ছেড়েছেন শান্ত, সাতটি চার ও চারটি ছয় ছিল তাঁর ইনিংসে। আজ নর্দাম্পটনের দ্বিতীয় একাদশের সঙ্গে বার্মিংহামের তৃতীয় ম্যাচে মুখোমুখি এইচপি দল।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন