• বুন্দেসলিগা
  • " />

     

    'বায়ার্ন এখন জার্মানির সবচেয়ে শক্তিশালী দল নয়'

     

    রেকর্ড ২৬ বার এবং শেষ পাঁচ মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন তাঁরা। বেশ কয়েক বছর ধরে জার্মান লিগে ছিল বায়ার্ন মিউনিখেরই ‘একছত্র আধিপত্য’। কিন্তু এই মৌসুমের শুরু থেকেই বদলে গেছে দৃশ্যপট। একের পর এক পয়েন্ট হারিয়ে দিশেহারা বায়ার্ন। এরই মাঝে বরখাস্ত হয়েছেন কোচ আনচেলত্তি। ভারপ্রাপ্ত কোচ উইলি সানিয়ল বলছেন, বায়ার্ন এখন আর জার্মানির সবচেয়ে শক্তিশালী দল নয়।

    লিগের সাত ম্যাচে ২ টিতে ড্র, একটিতে হার। এরই মাঝে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থাকা ডর্টমুন্ডের সাথে ব্যবধান দাঁড়িয়েছে ৫ পয়েন্ট। গতকাল হার্থা বার্লিনের মাঠে দুই গোলে এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ড্র করেছে বায়ার্ন। ম্যাচশেষে সানিয়ল বলছেন, লিগের অন্য দলগুলো অনেক উন্নতি করেছে, “আমাদের দল অনেক অভিজ্ঞও, দারুণ কিছু ফুটবলারও আছে। কিন্তু প্রশ্নটা হচ্ছে স্বদিচ্ছা ও নিয়মানুবর্তিতার। প্রতিপক্ষ দলগুলো দিন দিন অনেক এগিয়ে যাচ্ছে সবদিক দিয়েই। আমার মনে হয় না বায়ার্ন এখন জার্মানির সবচেয়ে শক্তিশালী দল। যেমনটা তাঁরা আগে ছিল।”

    জানুয়ারি পর্যন্ত মাঠের বাইরে থাকবেন দলের এক নম্বর গোলকিপার ন্যয়ার। তার অনুপস্থিতিতে মৌসুমের শুরুতেই লিগে সাত গোল হজম করেছে বায়ার্ন। এসবের মাঝে আনচেলত্তির বিদায় আরও বিপাকে ফেলেছে দলকে।

    সানিয়ল মনে করেন, আনচেলত্তির বিদায়ে যে শূন্যস্থান তৈরি হয়েছে তা পূরণ হতে অনেক সময় লাগবে, “আনচেলত্তি এখন নেই। এটা অনেক বড় একটা শূন্যস্থান তৈরি করেছে দলে। তিনি দারুণ একজন ব্যক্তিত্ব ছিলেন। কিন্তু এটাই ফুটবল। সময় লাগলেও দলের সবাই নতুন অবস্থার সাথে মানিয়ে নেবে। সামনেই আন্তর্জাতিক ম্যাচের জন্য বিরতি। এই সময়টায় নিজেদের ভুল শুধরে নিতে হবে।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন