• জিম্বাবুয়ে-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    জিম্বাবুয়ের চেয়ে দিনশেষে এগিয়ে উইন্ডিজই?

    বুলাওয়ে টেস্ট, ২য় দিনশেষে

    জিম্বাবুয়ে ১ম ইনিংস ৩২৬ অল-আউট (মাসাকাদজা ১৪৭, রাজা ৮০, রোচ ৩/৪৪)
    ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংস ৭৮/১ (পাওয়েল ৪৩*, ব্র্যাথওয়েট ৩২, ক্রেমার ১/৩১)

    ৪৯ ওভার। ৭৮ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ বুলাওয়েতে দেখালো মন্থর এক ব্যাটিং প্রদর্শনী। দিনের একবারে শেষে এসে ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটকে স্লিপে ক্যাচ দিতে বাধ্য করালেন গ্রায়েম ক্রেমার। উইন্ডিজের পাথরসম রক্ষণের সঙ্গে জিম্বাবুইয়ানদের পরিশ্রমের লড়াই যেন পেল একটা স্বীকৃতি। নাইটওয়াচম্যান দেবেন্দ্র বিশুকে নিয়ে অবশ্য আর বিপত্তি ঘটতে দেননি কাইরন পাওয়েল, দ্বিতীয় দিনশেষে উইন্ডিজ প্রথম ইনিংসে পিছিয়ে আছে ৯ উইকেট নিয়ে ২৪৮ রানে। রোমাঞ্চকর এক তৃতীয় দিনই অপেক্ষা করছে দ্বিতীয় টেস্টে। 

    অথচ প্রথম দিন ১৪ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল জিম্বাবুয়ে। সে সঙ্কট জিম্বাবুয়ে কাটিয়ে উঠেছে হ্যামিল্টন মাসাকাদজার ১৪৭ রানের দারুণ এক ইনিংসে ভর করে। পিটার মুরের সঙ্গে চতুর্থ উইকেটে ১৪২ রানের জুটি, পঞ্চম উইকেটে সিকান্দার রাজার সঙ্গে ৯০ রানের। রাজা আউট হয়েছেন ৮ম ব্যাটসম্যান হিসেবে, ৮০ রানে। ৮ম উইকেটে ক্রেমারের সঙ্গে ৪৩ রানের জুটি জিম্বাবুয়েকে নিয়ে গেছে লড়াই করার মতো প্রথম ইনিংসের স্কোরে। 

    কেমার রোচ নিয়েছেন ৩ উইকেট, শ্যানন গ্যাব্রিয়েল ও বিশু নিয়েছেন ২টি করে। দুই পার্টটাইমার রসটন চেজ ও ব্র্যাথওয়েটও পেয়েছেন একটি করে উইকেট। 

    দেখে শুনে শুরু করা উইন্ডিজের দুই ওপেনার সেই ব্যাটিংকে নিয়ে গিয়েছেন অতি রক্ষণাত্মক ভঙ্গিতে। পাওয়েলের রক্ষণ ভাঙতে পারতো, ফিরতি ক্যাচটা নিতে পারেননি ক্রেমার। ব্র্যাথওয়েটের রক্ষণ ভেঙ্গে দায়মোচন করেছেন সেটার পরে। 
     

     

     

     

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন