• জিম্বাবুয়ে-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ
  • " />

     

    ১০৯ বছরের পুরোনো স্মৃতি ফিরিয়ে আনলেন হোল্ডার-ডওরিচ

    ৯ম ব্যাটসম্যান হিসেবে জ্যাসন হোল্ডার নামার সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান ছিল ২৩০। প্রথম ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ তখনও পিছিয়ে ৯৬ রানে। দ্বিতীয় টেস্টে দারুণভাবে ফিরে আসার ইঙ্গিত দিচ্ছিল জিম্বাবুয়ে। সেই জিম্বাবুয়েই চাপা পড়লো হোল্ডারের সঙ্গে শেন ডওরিচের রেকর্ড ভাঙ্গা জুটিতে। ৮ম উইকেটে দুইজন মিলে তুলেছেন ২১২ রান, ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে এ উইকেটে যা সর্বোচ্চ।

     

     

    তারা ভেঙ্গেছেন এই জিম্বাবুয়ের সঙ্গেই ২০০০ সালে জিমি অ্যাডামস ও ফ্র্যাঙ্কলিন রোজের গড়া ১৪৮ রানের জুটির রেকর্ড। সব দেশ মিলিয়ে অবশ্য হোল্ডার-ডওরিচের জুটি আছে নয় নম্বরে। ৩৩২ রান নিয়ে সবার ওপরে জোনাথন ট্রট ও স্টুয়ার্ট ব্রডের জুটি। ২০১০ সালে পাকিস্তানের সঙ্গে লর্ডসে এই ঐতিহাসিক জুটি গড়েছিলেন ইংল্যান্ডের দুইজন।

    হোল্ডার-ডওরিচ মিলিয়ে ফিরিয়ে এনেছেন প্রায় ১০৯ বছরের পুরোনো স্মৃতি। ৮ ও ৯ নম্বরে নেমে একই ইনিংসে সেঞ্চুরি পেয়েছেন দুইজন। হোল্ডারের ১১০ রানের ইনিংস তার ক্যারিয়ারের ২য় সেঞ্চুরি। নয় নম্বরে নেমে কোনো ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ব্যাটসম্যানের এটিই প্রথম সেঞ্চুরি। আর ১০৩ রান করার পথে টেস্টে প্রথম তিন অঙ্কের স্বাদ পেয়েছেন ডওরিচ। এর আগে একই টেস্টের একই ইনিংসে ৮ ও ৯ নম্বর ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরির শেষ ঘটনা ছিল ১৯০৮ সালে, অ্যাডিলেড ওভালে ইংল্যান্ডের সঙ্গে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ৮ নম্বর রজার হারটিগান (১১৬) ও ৯ নম্বর ক্লেম হিল (১৬০)। ১৮০ রানে ৭ উইকেট যাওয়ার পর দুজন মিলে গড়েছিলেন ২৪৩ রান, ৮ম উইকেটে যা ৬ষ্ঠ সর্বোচ্চ জুটি।

    হিলের সেটি ছাড়াও সেঞ্চুরি আছে আরও ৬টি। তবে ২ টেস্ট খেলা হারটিগানের সেঞ্চুরি ওই একটিই।

     

     

     

     

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন