• অ্যাশেজ ২০১৭-১৮
  • " />

     

    অ্যাশেজেও বল টেম্পারিং করেছিল অস্ট্রেলিয়া?

    দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের মাঝপথে সামনে আসে বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারি। কলিন ব্যানক্রফটের সেই কান্ড নাড়িয়ে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের ভিত। স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নাররা হয়েছেন নিষিদ্ধ, শুনতে হয়েছে বহু সমালোচনাও। এবার ইংল্যান্ড ওপেনার অ্যালিস্টার কুক বলছেন, ৪-০ তে হেরে যাওয়া অ্যাশেজেও নাকি বল টেম্পারিং করেছিল অস্ট্রেলিয়ানরা!

    পার্থ টেস্টে অস্ট্রেলিয়ান ফাস্ট বোলারদের বোলিংয়ের কথা মনে হলে খানিকটা খটকা লাগছে কুকের, ‘একটু সন্দেহ তো লাগছেই। যেখানে পার্থে মাঠের আউটফিল্ড ভেজা ছিল, সেখানে তারা রিভার্স সুইং করাচ্ছিল কীভাবে? রিভার্স সুইং আমাদের বোলাররাও করায়, অ্যান্ডারসন এটায় অনেক ভালো। কিন্তু এরকম ড্রপ ইন পিচে আমরাও রিভার্স করাতে পারিনি।’

    তবে মিচেল স্টার্ক, জস হ্যাজলউডের গতির কারণেও এরকমটা হতে পারে বলেও স্বীকার করছেন কুক, ‘ঘণ্টায় ৯০ মাইলের ওপরে বল করলে যেকোনো কিছুই হতে পারে। ২০০৫ সালে সিমন্স ও ফ্লিনটফও অজিদের চেয়ে বেশি গতিতে বল করে রিভার্স সুইং করেছিল। তাই টেম্পারিং ছাড়াও আসলে সুইং করা যায়।’

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন