• ক্রিকেট

চার মাসের জন্য নিষিদ্ধ শেহজাদ

 

তার দিকে সন্দেহের তীর ছিল সেই জুন থেকেই। পাকিস্তান কাপ চলার সময় নিষিদ্ধ বস্তু সেবন করেছিলেন ওপেনার আহমেদ শেহজাদ, ধারণা করা হচ্ছিল এমনটাই। শেষ পর্যন্ত ডোপ টেস্টে পজিটিভ হয়ে চার মাসের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন শেহজাদ।

গত মে মাসের তিন তারিখে শেহজাদের মূত্রের নমুনা নেয় পিসিবি। কয়েক মাসের পরীক্ষার পর তারা নিশ্চিত হয়েছে, পাকিস্তান কাপ চলার সময় নিষিদ্ধ ওষুধ নিয়েছিলেন শেহজাদ, ‘নিষিদ্ধ বস্তু সেবনের জন্য শেহজাদকে চার মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। এই নিষেধাজ্ঞা ধরা হবে জুন মাসের ১০ তারিখ থেকে, শেষ হবে নভেম্বরের ১১ তে। প্রাথমিক এই চার মাসের নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার পর তাকে পিষিবির নজরদারিতে রাখা হবে।’

ওষুধের সাথে নিষিদ্ধ বস্তু সেবনের অভিযোগ স্বীকার করেছেন শেহজাদ, ‘আমি নিজের দোষ স্বীকার করছি। পিসিবি যে শাস্তি দিয়েছে সেটাও মাথা পেতে নিচ্ছি। একজন সিনিয়র ক্রিকেটার হিসেবে আমার ওষুধটা নেওয়ার আগে খেয়াল করা উচিত ছিল ভালোভাবে। তবে আমি ইচ্ছা করে এরকমটা করিনি। আশা করি নিষেধাজ্ঞা উঠলে আবারও পাকিস্তানের হয়ে খেলতে পারব।’

এদিকে পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মনি সব ক্রিকেটারদের সতর্ক করেছেন ওষুধ সেবনের ব্যাপারে, ‘এইসব ব্যাপারে পিসিবি বিন্দুমাত্র ছাড় দেবে না। আশা করি শেহজাদের এই ঘটনা সবাই আমলে নিয়ে ওষুধ কিংবা অন্য যেকোনো কিছু খাওয়ার আগে ভালমতো পরীক্ষা করে নেবে।’