• ইংল্যান্ডের শ্রীলঙ্কা সফর ২০১৮
  • " />

     

    জরিমানা দিয়েই পার পাচ্ছেন স্টোকস-হেলস

     

    মাঝরাতে পানশালার বাইরে একজনকে ঘুসি মেরে দীর্ঘদিন ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ ছিলেন ইংল্যান্ডের বেন স্টোকস ও অ্যালেক্স হেলস। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে দুজনকে দলে ফেরালেও ওই ঘটনার চূড়ান্ত শাস্তি পাওয়া বাকি ছিল তাদের। শেষ পর্যন্ত ক্রিকেট ডিসিপ্লিন কমিশন স্টোকস ও হেলসকে বড় অংকের জরিমানা করেছে, দিয়েছে বেশ কয়েক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞাও। তবে ঘটনার পর অনেক ম্যাচ নিষিদ্ধ থাকায় ডিসিপ্লিন কমিশনের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা আগেই ভোগ করেছেন তাঁরা, ধরে নেওয়া হয়েছে এমনটাই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে তাই তাদের দলে নিতে পারবে ইংল্যান্ড।

    গত বছরের সেপ্টেম্বরে ব্রিস্টলে একটি পানশালার বাইরে দুইজনের সাথে তর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন স্টোকস, তার সাথে ছিলেন হেলসও। এক পর্যায়ে সেই ব্যক্তিকে ঘুসি মারতে শুরু করেন স্টোকস। সেই ঘটনার ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ পেলে হইচই পড়ে যায় ক্রিকেট বিশ্বে, স্টোকস ও হেলসকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে ইসিবি।

    নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে স্টোকস, হেলস দুজনেই ফিরেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। তবে ওই ঘটনা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া বাকি ছিল ক্রিকেট ডিসিপ্লিন কমিশনের। তাঁরা স্টোকসকে ৩০ হাজার পাউন্ড জরিমানা করেছে, দিয়েছে ৮ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা। হেলসকে জরিমানা করা হয়েছে সাড়ে সতেরো হাজার পাউন্ড, তার নিষেধাজ্ঞা ছয় ম্যাচের জন্য।

    তবে স্টোকস ও হেলসের এই ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে না আগামী বছরের শুরুতে হওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে। গত বছরের শেষে নিষেধাজ্ঞায় থাকা স্টোকস ওই সময়ে খেলতে পারেননি অ্যাশেজসহ ছয়টি টেস্ট ও নয়টি ওয়ানডে। তার শাস্তিটা তাই ওই সময়ই পূর্ণ হয়ে গেছে বলে ধরে নিয়েছে ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ড। অন্যদিকে হেলস তখন মিস করেছিলেন দুই ওয়ানডে। তার বাকি চার ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা এক বছরের জন্য স্থগিত করা হয়েছে।

    স্টোকস তার জরিমানা মেনে নিয়ে বলছেন, ওই ঘটনা তার জন্য শিক্ষণীয় হয়ে থাকবে, ‘আমি কমিশনের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছি। সতীর্থ ও সমর্থকদের কাছে আমি আগেই ক্ষমা চেয়েছি সবকিছুর জন্য। যা হয়েছে সেটায় আমি অনুতপ্ত। যারা ওই কঠিন সময়ে আমার পাশে ছিলেন তাদের অনেক ধন্যবাদ। ক্রিকেট আমার জীবন, ওই ঘটনা ১৫ মাস ধরে আমার ওপর বোঝা হয়ে ছিল। খেলায় ফিরতে পেরে স্বস্তিতে আছি। যে শিক্ষাটা আমি পেয়েছি সেটা আজীবন মনে থাকবে।’

    স্টোকসের মতো স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন হেলসও, ‘জরিমানা দেওয়ার পর ওই বিষয়টা এখন আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ হয়ে গেলো। এখন ক্যারিয়ারে সামনের দিকে এগোতে পারি। আমি ভুল করেছিলাম, সেটা স্বীকার করেছি। যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল সেটার জন্য আমি দুঃখিত। এখন স্বস্তিতে আছি, খেলায় সব মনোযোগ দেওয়াই আসল লক্ষ্য।’