• " />
    X
    GO11IPL2020

     

    সকালে ক্রিকেট, বিকেলে ফুটবল!

    পাড়া-মহল্লায় এমনটা নিত্যদিনের চিত্রই। সকালে দলবেঁধে ক্রিকেট খেলে বেলা গড়াতেই সবাই নেমে গেলো ফুটবল পায়ে। কিন্তু পেশাদার পর্যায়ে এভাবে দু’বেলায় দুটো ভিন্ন খেলায় অংশ নেয়া! এমন বিরল ঘটনারই জন্ম দিয়েছিলেন ইংল্যান্ডের সাবেক জাতীয় টেস্ট ক্রিকেটার ক্রিস বাল্ডারস্টোন। সকালে কাউন্টি ক্রিকেট খেলে বিকেলেই বুট পায় গলিয়ে নেমে পড়েছিলেন ফুটবল লিগের ম্যাচ খেলতে।

     

    ১৯৭৫ সালে ১৫ই সেপ্টেম্বর। কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপের তিনদিনের ম্যাচের দ্বিতীয় দিন। লিচেস্টারশায়ারের প্রতিপক্ষ ডার্বিশায়ার। আগের দিন প্রথম ইনিংসে লিচেস্টারশায়ারের ২২৬ রানের জবাবে ডার্বিশায়ার করে ২১১ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১ রানেই প্রথম উইকেট খুইয়ে বসে লিচেস্টার। তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে উইকেটে আসেন বাল্ডারস্টোন। অপরপ্রান্তে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পতন অব্যাহত থাকলেও একপ্রান্ত আগলে দিব্যি খেলে যান ৩৫ বছর বয়সী বাল্ডার। দিনের খেলা যখন শেষ হল তখন তিনি ৫১ রানে অপরাজিত।

     

     

    ব্যাট-প্যাড তুলে রেখে বাল্ডারস্টোন ছুটলেন ফুটবল মাঠে। ইংলিশ ফুটবলের দ্বিতীয় বিভাগের দল ডনকাস্টার রোভারসের একাদশে তখন তিনি নিয়মিত সদস্যই। সেদিন বিকেলেই আবার দলটার ম্যাচও ছিল ব্রেন্টফোর্ডের বিপক্ষে। সকালের হাফ সেঞ্চুরিয়ান ঝটপট নেমে গেলেন রোভারদের নীল জার্সি গায়ে।

     

     

    পরদিন ফের ব্যাট হাতে নেমে শতকটাও তুলে নিয়েছিলেন বাল্ডারস্টোন। এখানেই শেষ নয়। এরপর বল হাতেও দখলে নেন প্রতিপক্ষের তিন তিনটি উইকেট। ১৩৫ রানে ম্যাচটা জিতে গিয়ে সেবারের কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপই জিতে যায় লিচেস্টারশায়ার।

     

    একই দিনে ক্রিকেট-ফুটবল খেলার নজির অবশ্য বাল্ডারস্টোনের প্রথম কীর্তি নয়। ১৯২০ সালের আগস্টের এক দিন অনুরূপ ঘটনার জন্ম দিয়েছিলেন জ্যাক ডারস্টোন। মিডলসেক্সের এই অজি পেসার অবশ্য আরও এক কাঠি সরেস ছিলেন। সকালে লর্ডসে কাউন্টি ম্যাচে সারের বিপক্ষে পাক্কা ৩০ ওভার বল করে বিকেলে ব্রেন্টফোর্ডের হয়ে একটা গোলও দিয়ে এসেছিলেন!

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন