• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    • ক্রিকেট, অন্যান্য

    পুরুষদের আন্তর্জাতিক ম্যাচেও এবার নারী ম্যাচ রেফারি

    গত মাসেই প্রথম নারী আম্পায়ার হিসেবে পুরুষদের ওয়ানডেতে দায়িত্ব পালন করে ইতিহাস গড়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ক্লেয়ার পোলোসাক। আইসিসি এবার ঘোষণা করল ক্রিকেট ইতিহাসের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ রেফারির নাম। ভারতের ম্যাচ রেফারি জিএস লক্ষ্মীকে আইসিসির ম্যাচে রেফারির প্যানেলে জায়গা দেওয়া হয়েছে, ছেলেদের আন্তর্জাতিক ম্যাচেও তাই দায়িত্ব পালন করতে পারবেন তিনি।

    লক্ষ্মীর শুরুটা হয়েছিল ক্রিকেটার হিসেবে। কিন্তু বিয়ে, সন্তান ও পারিবারিক নানা কারণে খেলায় নিয়মিত হতে পারেননি তিনি। পরবর্তীতে উত্তর ভারতীয় রেলওয়ের হয়ে কিছুদিন খেলেছেন, জিতেছেন আন্তঃরেলওয়ে শিরোপাও। ২০০৪ সালে ক্রিকেট ছাড়ার পর যোগ দেন কোচিংয়ে। ২০০৮ সালে যখন বিসিসিআই নারী ম্যাচ রেফারি রাখার ঘোষণা দেয়, পাঁচজন নারী রেফারির তালিকায় নাম ছিল লক্ষ্মীরও।

    ২০১৪ সালে বিসিসিআইয়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত দায়িত্ব পালন করা শুরু করেন। নারী ও পুরুষ দুই বিভাগেই দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। নারীদের আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচেও রেফারি ছিলেন লক্ষ্মী।

     

     

    ৫১ বছর বয়সী লক্ষ্মী আইসিসির প্যানেলে জায়গা করে নিতে পেরে দারুণ খুশি, ‘আইসিসির প্যানেলে সুযোগ পাওয়া আমার জন্য বিশাল ব্যাপার। খেলোয়াড় ও কোচ হিসেবে আমার সব অভিজ্ঞতা দিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করবো।

    লক্ষ্মীর এখন একটাই লক্ষ্য, বিশ্বকাপে দায়িত্ব পালন করা, ‘আমি ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি নারী বিশ্বকাপে ম্যাচ রেফারি হতে চাই, ছেলেদের টুর্নামেন্টেও রেফারি হতে চাই। বিশেষ করে ফাইনালে দায়িত্ব পালন করাটা হবে গর্বের বিষয়।’