• ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯
  • " />

     

    • ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯

    ওভার থ্রোতে বাড়তি চার রান গ্রহণ করতে চাননি স্টোকস

    ফাইনালের পর ওই ওভার থ্রো নিয়ে কম আলোচনা হয়নি। শেষ ওভারে মার্টিন গাপটিলের থ্রো বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে হয়েছিল চার, সব মিলিয়ে ইংল্যান্ড পেয়েছিল ছয় রান। শেষ পর্যন্ত ওই মহামূল্যবান বাড়তি চার রানের সুবাদেই ম্যাচ গেছে সুপার ওভারে। ইংল্যান্ড পেসার জিমি অ্যান্ডারসন বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ওই ওভার থ্রোর পর স্টোকস নিজেই আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনাকে বলেছিলেন, ইংল্যান্ডকে যেন বাড়তি চার রান না দেওয়া হয়। 

    স্টোকসের ব্যাটে লেগে বল বাউন্ডারি লাইন পার হলে ধর্মসেনা দেন মোট ছয় রান। যদিও এমসিসির নিয়ম ও সাবেক বর্ষসেরা আম্পায়ার সাইমন টফেলসহ অনেকেই বলছেন, ইংল্যান্ডের পাওয়া উচিত ছিল পাঁচ রান। 

    শেষ পর্যন্ত ওই বাড়তি রানের সুবাদেই ম্যাচ যায় সুপার ওভারে, বিশ্বকাপ ওঠে ইংল্যান্ডের হাতে। ওভার থ্রোতে চার হওয়ার পরেই হাত উঁচিয়ে স্টোকস ক্ষমা চেয়েছিলেন। ম্যাচের পর স্টোকস এও বলেছেন, আজীবন কেন উইলিয়ামসনদের কাছে এই ব্যাপারটার জন্য ক্ষমা চাইবেন তিনি। 

    অ্যান্ডারসন বলছেন, স্টোকস ধর্মসেনাকেও বলেছিলেন বাড়তি রানটা যেন না দেওয়া হয়, ‘ক্রিকেটে বল ব্যাটে লেগে দূরে চলে গেলে রান নেয় না ব্যাটসম্যান। কিন্তু যখন বাউন্ডারি লাইন যায় ওভার থ্রো, যখন তো নিয়ম অনুযায়ী চার হয়, এটায় কিছু করার নেই। মাইকেল ভন আমাকে বলেছেন, স্টোকস আম্পায়ারকে বলেছিল, ‘ওই চার রান কি বাতিল করা যায় না? আমাদের এটার দরকার নেই।’ কিন্তু নিয়মে যেহেতু আছে, আম্পায়ারকে রান দিতেই হতো।’